The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

কুষ্টিয়ার ঝাউদিয়া শাহী মসজিদ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুভ সকাল। শুক্রবার, ৯ এপ্রিল ২০২১ খৃস্টাব্দ, ২৬ চৈত্র ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫ শাবান ১৪৪২ হিজরি। দি ঢাকা টাইমস্ -এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভ সকাল। আজ যাদের জন্মদিন তাদের সকলকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শুভ জন্মদিন।

কুষ্টিয়ার ঝাউদিয়া শাহী মসজিদ 1

কুষ্টিয়া সদর উপজেলা হতে ২২ কিলোমিটার দূরে ঝাউদিয়া গ্রামে অবস্থিত ঝাউদিয়া শাহী মসজিদ। এটি একটি ঐতিহাসিক প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন।

ইট, পাথর, বালি এবং চিনামাটি নির্মিত মসজিদের সঠিক নির্মাণকাল জানা যায়নি। এই মসজিদটি নিয়ে অনেক লোককথা প্রচলিত রয়েছে। জনশ্রুতি রয়েছে যে, ঝাউদিয়া শাহী মসজিদ নাকি অলৌকিকভাবে নির্মাণ করা হয়েছে। অনেকেই মনে করেন, সম্রাট আওরঙ্গজেবের শাসনামলে ইরাকের শাহ সুফি আদারি ইসলাম ধর্ম প্রচারের উদ্দেশ্যেই এই অঞ্চলে আস্তানা গড়ে তুলেন। পরবর্তীকালে ইবাদত বন্দেগীর জন্য ঝাউদিয়া মসজিদটি নির্মাণ করেন। অনিন্দ্য সুন্দর ঝাউদিয়া শাহী মসজিদটি বর্তমানে কুষ্টিয়ার একটি অন্যতম প্রাচীন স্থাপত্য নিদর্শন হিসেবে পরিচিত।

শৈল্পিক কারুকার্যমণ্ডিত মসজিদের মূল কাঠামোতে ৩টি গম্বুজ, ৩টি দরজা এবং নামাজের জন্য রয়েছে ৩টি কাতার। মসজিদের উপরিভাগে সুদৃশ্য ৫টি গম্বুজ ও ভিতরের প্রবেশ দরজায় ২টি মিনার লক্ষ্য করা যায়। এছাড়াও ঝাউদিয়া শাহী মসজিদের উত্তর এবং দক্ষিণ দিকে চুন ও সুরকি নির্মিত দুটি দৃষ্টিনন্দন জানালাও রয়েছে।

এই মসজিদটি মাটির ট্যালি, চুন এবং সুরকি দিয়ে নির্মিত হওয়ার কারণে ভিতরে বেশ ঠাণ্ডা থাকে। তবে মসজিদের আলপনা সজ্জিত দেওয়াল হলো এর প্রধান বৈশিষ্ট্য। শাহী মসজিদের পাশে রয়েছে সুফি সাধকের কবর। ১৯৬৯ সালে এই মসজিদটি বাংলাদেশ প্রত্নতাত্ত্বিক অধিদপ্তরের নথিভুক্ত করা হয়। বর্তমানে দূর দূরান্ত হতে অসংখ্য মুসল্লি এবং দর্শনার্থী মসজিদে নামায আদায় ও দর্শন করতে আসেন।

তথ্যসূত্র: vromonguide.com

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...