The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ফুচকাপ্রেমী এক কনে: বিয়েতেও পরলেন ফুচকার গহনা! [ভিডিও]

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিয়ের দিনও তিনি ফুসকার কথা ভুলতে পারলেন না। তাইতো বিয়ের কনে সাজতে গিয়েও সেই ফুসকাকেই করলেন সঙ্গী। এমনই এক ফুসকা পাগলের গল্প রয়েছে আজকের চিত্র-বিচিত্র’র প্রতিবেদনে!

ফুচকাপ্রেমী এক কনে: বিয়েতেও পরলেন ফুচকার গহনা! [ভিডিও] 1

এই উপমহাদেশের অনেক দেশেই ফুচকা অনেক জনপ্রিয় একটি খাবার। রাস্তার পাশে অহরহই এই খাবারটির দোকান চোখে পড়ে। বিশেষ করে বাংলাদেশ ও ভারতে এটি বেশি দেখা যায়। ফুচকার দোকান মানেই হলো লোকজনের উপচে পড়া ভিড়। তবে ফুচকা ভালোবেসে কেও যদি নিজের বিয়েতে এই খাবার দিয়েই গহনা বানিয়ে পরেন, সেক্ষেত্রে যে কারও তা দেখে অবাক লাগবে সেটিই স্বাভাবিক ঘটনা। সম্প্রতি ভারতীয় এক নারী নিজের বিয়েতে সাজের অনুষঙ্গ হিসেবে এই ফুসকার ব্যবহার করে সবাইকে চমকে দেন। যা নেট দুনিয়ায় এখন ভাইরাল!

সম্প্রতি ভারতের দক্ষিণী এক বিয়ের অনুষ্ঠানে এমন ঘটনার ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায় যে, দক্ষিণী এক বিয়ের আসরে কনে সাজের অনুষঙ্গ হিসেবে ফুচকা ব্যবহার করেন। ওই তরুণী বিয়ের সাজপোশাক পরে ফুচকা দিয়ে তৈরি মাথার মুকুট ও গলার মালাও পরেছেন। এমনকি তার হাতের সাজেও দেখা গেছে ফুচকার অলঙ্কার! কনের প্লেটেও অনেক ফুচকা দেখা যায়। ভিডিওতে আরও দেখা যায়, কনে বিয়ের রীতির জন্য বসতেই ঘর থেকে একজন বেরিয়ে কনের মাথায় ফুচকার একটি মুকুট পরিয়ে দেন। তারপরই কনে যেনো হাসতে থাকেন।

বিয়ের কনের ওই সাজ দেখে নেটিজেনদের মধ্যে শুরু হয়ে যায় নানা আলোচনা। কেও কেও এমন সাজের প্রশংসা করেন। আবার কেও মেয়েরা কেনো এতো ফুচকা পছন্দ করেন, তাই নিয়েও বিস্ময় প্রকাশ করেন। অনেকেই আবার নিজেদের বিয়েতেও এই ধরনের ফুচকার সাজে সেজে ওঠার কথা ব্যক্ত করেছেন!

দেখুন ভিডিওটি

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...