১০ দলের বিশ্বকাপ হবে ২০১৯ সাল থেকে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ১০ দলের বিশ্বকাপ হবে ২০১৯ সাল থেকে। সিদ্ধান্তটা প্রায় চূড়ান্ত করে ফেলেছে আইসিসি। কেবল বাকি চূড়ান্ত অনুমোদনের।

10 team & World Cup

২০১৯ সাল হতে বিশ্বকাপ ক্রিকেট হয়ে যাচ্ছে ১০ দলের প্রতিযোগিতা। সিদ্ধান্তটা প্রায় চূড়ান্ত করে ফেলেছে আইসিসি। কেবল বাকি চূড়ান্ত অনুমোদনের। বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আভিজাত্য বজায় রাখতে ও ক্রিকেটের এই বিশ্ব আসরে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়াতেই নাকি ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা এই সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে- এমনটি জানানো হয়েছে।

আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসনের মনে করেন বিশ্বকাপের প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়াতেই ১০ দলের এমন সিদ্ধান্ত। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপ ক্রিকেটে আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়াতে হবে। তাই আমাদের নিশ্চিত করতে হবে, যে ১০টি দল বিশ্বকাপে খেলবে, সেই দলগুলোর যেনো প্রতিটিই বিশ্বকাপ জয়ের উপযোগী দল হয়। তারা যেনো প্রতিটি দলই প্রতিটিকে হারাতে পারে।’

আইসিসির নীতি নির্ধারকরা মনে করেন, ১৯৯২ সালে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপ আসরটিই নাকি আইসিসিকে ১০-দলীয় বিশ্বকাপে উৎসাহী করে তুলেছে। এই ব্যাপারটি জানিয়েছেন রিচার্ডসন নিজেই, ‘বিরানব্বই বিশ্বকাপকে এখন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ বিশ্বকাপ হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। সেবার অংশগ্রহণকারী ৯টি দেশ প্রত্যেকেই প্রত্যেকের মুখোমুখি হয়েছিল লিগ পদ্ধতিতে। রাউন্ড রবিন লিগ পর্বের শেষ পর্যায়ে এসেও বোঝা যাচ্ছিল না কোন ৪টি দেশ সেমিফাইনালে খেলবে। আমরা বিশ্বকাপে ঠিক এমন ধরনের প্রতিদ্বন্দ্বিতাই সৃষ্টি করতে চাই।’

সত্যিই যদি বিশ্বকাপ ১০ দলের হয়ে যায় তাহলে আয়ারল্যান্ড, আফগানিস্তানের মতো উদীয়মান ক্রিকেট-শক্তিগুলোর আসলে কী হবে। আইসিসির এই সিদ্ধান্ত ক্রিকেট খেলা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধক সৃষ্টি করবে কি না তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। শচীন টেন্ডুলকারের মতো ক্রিকেট ব্যক্তিত্বও আইসিসির এমন একটি সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে বলেছেন, ‘নতুন চিন্তাটি ক্রিকেটের ছড়িয়ে পড়া ব্যাহত করবে। আয়ারল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, আফগানিস্তানের মতো উদীয়মান ক্রিকেট-শক্তির বিকাশ অবশ্যই ব্যাহত হবে। সবচেয়ে বড় কথা, ক্রিকেটের প্রতি আগ্রহী বিশ্বের অনেক দেশই খেলাটিতে বিনিয়োগ করার ক্ষেত্রে নিরুৎসাহিত হবেন।’

শচীন টেন্ডুলকারের মতে, আইসিসির উচিত প্রতিদ্বন্দ্বিতা বৃদ্ধির উছিলায় বিশ্বকাপে দল না কমিয়ে তথাকথিত ‘ছোট দল’ গুলোর ক্রিকেটীয় শক্তি বৃদ্ধিতে সার্বিক পদক্ষেপ নেওয়া। অপরদিকে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ১০ দলের মধ্যে হলেও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দলের সংখ্যা ১৬-তে উত্তীর্ণ করার ব্যাপারটিও নাকি এক প্রকার চূড়ান্ত হয়ে আছে এমন খবর বেরিয়েছে।

তবে বিশ্বের ক্রিকেট বোদ্ধারা মনে করেন, যে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে ভালোভাবে চিন্তা-ভাবনা করা উচিত। কারণ বর্তমান বিশ্বে ক্রিকেট যতোটা এগিয়ে গেছে এর ধারা অব্যাহত রাখতে হলে যে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে হলে চিন্তা-ভাবনা করেনই নিতে হবে। ক্রিকেটের প্রসার ঘটাতে হলে ছোট দলগুলোর প্রতি নজর দিতে হবে।

Advertisements
Loading...