দেশীয় প্রযুক্তির সাফল্য: ভয়েস ও মেসেজিংয়ে অ্যাপ ‘ওগো’

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুধু বিদেশী প্রযুক্তির দিকে তাকিয়ে না থেকে দেশীয় প্রযুক্তির উপর এখন থেকে নির্ভর করা যাবে। এমনই এক দেশীয় প্রযুক্তির সাফল্য এসেছে। এই ভয়েস ও মেসেজিংয়ে অ্যাপ হলো ‘ওগো’।

voice and Massage App ogo

আর হয়তো আমাদের পর নির্ভর হতে হবে না বিশেষ করে কথা বলা ও বার্তা পাঠানোর ক্ষেত্রে। অর্থাৎ ভাইবারের বিকল্প অ্যাপ হলো ‘ওগো’। দেশেই তৈরি হয়েছে কথা বলা ও বার্তা পাঠানোর এই অ্যাপ- ওগো। নির্মাতা দাবি করেছেন যে, ভাইবারের বিকল্প হতে যাচ্ছে ‘ওগো’।

দেশীয় প্রতিষ্ঠান ইন্টার ক্লাউড তৈরি করেছে ‘ওগো’। প্রতিষ্ঠানটির দাবি, ‘ওগো’-ই দেশে তৈরি প্রথম ভয়েস কলিং এবং মেসেজিং অ্যাপ। এই ধরনের আরেকটি অ্যাপ রয়েছে তবে তাতে কেবল কথা বলা যায়।

১৪ এপ্রিল গুগল প্লে এবং আই-স্টোরে ‘ওগো’ হতে ছেড়েছে ইন্টার ক্লাউড।। ফ্রি অ্যাপটি যে কেও মোবাইলে ইনস্টল করে কথা বলতে পারবেন বিনামূল্যে। ইচ্ছে মতো পাঠাতে পারবেন মেসেজ।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানানো হযেছে, ওগো’র পরবর্তী সংস্করণে যুক্ত হবে বাংলা কি-বোর্ড। অবশ্য অ্যাপল সংস্করণে বাংলা কি-বোর্ড এখনই পাওয়া যাচ্ছে। আগামীতে অ্যান্ড্রয়েডেও যোগ হবে এটি। আরও যুক্ত হবে ছবি শেয়ার করার সুবিধা। এরসঙ্গে যুক্ত হবে ভিডিও কলিং, ফাইল শেয়ারিং ও ভয়েস রেকর্ড। তারপর চালু হবে ‘পুশ টু টক’ এবং স্টিকার পাঠানোর ব্যবস্থা। এসব স্টিকার তৈরি করবে দেশের শিক্ষার্থীরা। স্টিকার তৈরির প্রক্রিয়া সফল হলে বাণিজ্যিক উৎপাদনে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটির।

অ্যাপটি গুগল প্লে-স্টোরের এই লিংক হতে অ্যাপটি পাবেন: https://play.google.com/store/apps/details?id=com.intercloud.ogo.com.bd&hl=en

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...