আমার ছেলেকে দত্তক নেবেন? এক বাবার ব্যতিক্রমি আর্জি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এক বাবার এবার এক ব্যতিক্রমি আর্জি জানালেন। আর সেটি হলো তিনি প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে ফুটপাতে দাঁড়িযেছেন। আর তাতে লেখা রয়েছে, ‘আমার ছেলেকে দত্তক নেবেন?’

Adopt my son

সত্যিই সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত এমন একটি খবর সকলকে বিস্মিত করেছে। ব্যস্ত রাস্তার ফুটপাথের উপর দিয়ে সাধারণ মানুষরা যাতায়াত করছেন। হঠাৎ করে নজরে আসতেই আঁতকে উঠছেন অনেকেই। আবার কেও দাঁড়িয়েও পড়ছেন প্ল্যাকার্ডটি দেখে। একটা আবেদন সে প্ল্যাকার্ডে। চার বছর বয়সের শিশুসন্তানকে দত্তক নেওয়ার আবেদন এক বাবার! ঘটনাটি চীনের। এক ব্যবসায়ী দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার পর নিজের ছেলেকে একটি ব্যস্ত রাস্তায় নিয়ে যান। সেখানে জনসমক্ষে তিনি একটি প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন, যাতে লেখা ছিল, ‘এই শিশুকে দত্তক নিতে কেও আগ্রহী?’

ট্যাং নামে ওই ব্যক্তির বাড়ি চীনের জংইয়াং প্রদেশে। ব্যবসায়ী ট্যাং একসময় নিজের সংস্থায় এক মিলিয়ন ইয়েন বিনিয়োগ করেন। তবে ভাগ্য খারাপ থাকায় তার প্রয়াস কোনো কাজে লাগেনি। আর্থিক সংকটে পড়েন ট্যাং। শেষপর্যন্ত ২০০৭ সালে নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করতে বাধ্য হন ট্যাং।

তারপর নিজের সংসার চালানো, বাড়ি ভাড়া দেওয়া, সর্বপরি দুই ছেলেকে খাওয়ানোর টাকা তিনি জোগাড় করতে হিমশিম খাচ্ছিলেন। অতএব এমন এক পথ বেছে নিলেন ট্যাং। চার বছরের শিশুপুত্রকে নিয়ে সোজা চলে আসেন চীনের আনহু প্রদেশের একটি ব্যস্ততম রাস্তায়।

ছেলের হাতে একটি প্ল্যাকার্ড ধরিয়ে দিলেন ট্যাং। নিজের হাতেও একটি প্ল্যাকার্ড রাখেন। ট্যাংয়ের প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘আমার ছেলেকে কেও দত্তক নেবেন?’ অপরদিকে ট্যাংয়ের শিশুপুত্রের হাতে থাকা প্ল্যাকার্ডটিতে লেখা ছিল, ‘আমাকে দত্তক নাও’।

তবে আশ্চর্য হলেও, অনেকেই এর প্রতিবাদও করেছেন। আবার কেও কেও সোশাল নেটওয়ার্কেও বিষয়টি ছড়িয়ে দিয়েছেন। আবার অনেকে ওই শিশুকে দত্তক নেওয়ার জন্য নিজের ফোন নম্বর পর্যন্ত দিয়ে দিয়েছেন।

Advertisements
Loading...