ডিজিটাল যুগে সম্পর্ক বিচ্ছেদে কষ্ট বেশি!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ জীবনযাপনের অন্যতম অংশ হয়ে উঠেছে বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট। এর মাধ্যমেই গোটা দুনিয়া এখন হাতের মুঠোয়। বিশ্বের লাখো তরুণের জীবনসঙ্গী খোঁজা হয়ে যাচ্ছে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটের মাধ্যমে। আবার সম্পর্ক বিচ্ছেদের পর ও এই সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইড সমূহ বিচ্ছেদ হওয়া মানুষদের কষ্ট বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়। যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকেরা জানিয়েছেন, ডিজিটাল যুগে সম্পর্ক ভেঙে গেলে বা ছাড়াছাড়ি হয়ে গেলে মানুষকে বেশি কষ্ট পেতে হয়।


serverance

সম্পর্ক ভেঙে গেলে চিঠি পুড়িয়ে, ছবি ছিঁড়ে বা অন্তরালে কেঁদে হালকা হওয়ার চেষ্টা করলেও ফেসবুকের মতো সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটগুলো থেকে যাওয়া স্মৃতি সহজে সরিয়ে ফেলা সম্ভব হয় না। ভেঙ্গে যাওয়া সম্পর্কের অনেক স্মৃতিই ছবি, বার্তা বা নোট আকারে সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটগুলোতে থেকে যায়, যা ক্রমাগত মানসিক পীড়া দিতে থাকে। চাইলেও সহজেই অনলাইন থেকে সরিয়ে ফেলা সম্ভব হয় না। অনেক ক্ষেত্রে ই-মেইল বা ডিজিটাল ছবি মুছে ফেলা সহজ হলেও অন্য কারও পোস্ট করা গান, ছবি বা বার্তা মুছে ফেলা সহজ নয়। অনেক স্মৃতির সঙ্গে এ ধরনের বিষয়গুলো মিলে গেলে ভেঙে পড়তে দেখা যায় অনেককেই।

গবেষকেরা অবশ্য এ ধরনের সমস্যার ক্ষেত্রে সমাধান হিসেবে তথ্য একত্রীকরণ সফটওয়্যার ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন। এরকম একটি সফটওয়্যার হচ্ছে প্যান্ডোরা’স বক্স। সফটওয়্যারটি অতীতের সব ডিজিটাল তথ্য একসঙ্গে করতে পারে এবং তা থেকে মুছে ফেলার সুবিধা দিতে পারে।

টেলিগ্রাফ অনলাইনে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ক্যালিফোর্নিয়া শান্তা ক্রুজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা সম্প্রতি ১৯ থেকে ৩৪ বছর বয়সী ২৪ জন ব্যক্তিকে নিয়ে একটি গবেষণা পরিচালনা করেছেন। সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পর তাঁদের মানসিক অবস্থা নিয়ে গবেষকেরা পরীক্ষা করে দেখেছেন, ডিজিটাল যুগে হূদয় ভাঙলে তা উপশম হতে অনেক বেশি কষ্ট হয়।

সূত্রঃ প্রথম আলো

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...