১০০ বছর ধরে জ্বলছে একটি বাল্ব!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এমন কথা শুনে হয়তো আপনি বিশ্বাস করতে নাও পারেন। তা হলো একটি বাল্ব ১০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে জ্বলছে!

a-light-bulb-burning-for-over-100-years

এই খবর জানার পর সকলেই বিস্মিত। এমন ঘটনা শোনার পর মাথায় হাত উঠতে পারে বিশ্বের বড় বড় বিজ্ঞানীদের।

সেই ১৯০১ সালের ঘটনা। ক্যালিফোর্নিয়ার লিভারমোরে ফায়ারহাউসে এই বাল্বটি লাগানো হয়। ২০১৬ সালে এখনও এই বাল্বটি বহাল তবিয়েতে জ্বলছে!

এই ধরনের কার্বন ফিলামেন্টের বাল্বের আয়ু সাধারণত ১ হাজার হতে ২ হাজার ঘণ্টার হয়ে থাকে। এই সময়ে যে ফ্লুরোসেন্ট বাল্ব কিংবা এলইডি লাইটের চল হয়েছে তাদেরও আয়ু ২৫ হতে ৫০ হাজার ঘণ্টার মতো। সেখানে পুরনো আমলের ফিলামেন্ট লাগানো বাল্ব এতো বছর ধরে জ্বলছে কীভাবে তা জেনে বিস্মিত সকলে। বিজ্ঞানীরাও এ ঘটনার কোনও কুল-কিনারা করতে পারছেন না। এক এক জন একেক রকমের ব্যাখ্যা দিচ্ছেন।

মাস্টারমাইন্ড ইলেক্ট্রিশিয়ান অ্যাডলফে এ চেইলট-এর করা নক্সায় এই বাল্বটি তৈরি করেছিল শেলবি ইলেক্ট্রিক নামে একটি কোম্পানি। বাল্বের ফিলামেন্টে তখন ব্যবহার করা হয়েছিল কার্বন। তবে এই ধরনের বাল্বের আয়ু কোনওভাবেই এক বছরের বেশি হয় না বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। মাঝে এই বাল্বটি নিভেছিল এলাকায় লোডশেডিং হওয়ার কারণে। এছাড়া বাল্বটি কখনও নেভানোই হয়নি।

তবে বিজ্ঞানীদের হাতে পরীক্ষা-নিরিক্ষার জন্য এই বিস্ময়কর বাল্বটি এখনও তুলে দেওয়া হয়নি। যে কারণে অনেকে বাল্বটির আয়ু নিয়ে অনেকরকম ব্যাখা দিয়েছেন। যদিও বেশিরভাগটাই অনুমান সাপেক্ষে।

অনেকেই মনে করেন, ফিলামেন্টে ব্যবহৃত কার্বনের মান খুব ভালো হওয়ায় বাল্বটি এখনও আলো দিচ্ছে। আবার কারও ধারণা, বাল্বের যে কাচের খোল রয়েছে তা খুবই সুগঠিত। এটি ভেতরে বাতাস প্রবেশ করতে দেয় না। যে কারণে বাল্বটি এখনও টিকে রয়েছে। তবে আরও পরীক্ষা-নীরিক্ষা চালালে হয়তো এর সত্য উদঘাটন হতো।

Advertisements
Loading...