The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

পাঁচ টাকার চা খেলেই পাওয়া যাবে আনলিমিটেড ইন্টারনেট ফ্রি!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ একটার সঙ্গে একটা ফ্রির যুগে আরও একধাপ যেনো এগিয়ে গেছে। এবার পাঁচ টাকার চা খেলেই পাওয়া যাবে আনলিমিটেড ইন্টারনেট ফ্রি!

five-taka-tea-and-unlimited-internet-free

এটি যেনো এক বাই ওয়ান গেট ওয়ান ফ্রি অফারের মতো। মাত্র পাঁচ টাকা খরচ করে চা খেলেই ৩০ মিনিটের জন্য আপনি আনলিমিটেড ডেটা ব্যবহার করতে পারবেন। এমন অভাবনীয় অফার দিচ্ছে ভারতের একটি চায়ের দোকান। সে কারণে তরুণ-তরুণীরা ভিড় করছেন ওই দোকানটিতে।

অভিনব এমন একটি অফার চালু করেছে ভারতের কর্নাটকের বালারি জেলার সিরুগুপ্পার প্রত্যন্ত এলাকার একটি চা দোকানের মালিক সাঈদ খাদার বাশা। মূলত ব্যবসা বাড়াতে তিনি এমন একটি অভিনব ফন্দি এটেছেন।

সাঈদ খাদার বাশা জানিয়েছেন, এই ‘ডেটা-চা’ এখন সবার কাছেপছন্দের বিষয়। আগে প্রতিদিন হয়তো ১০০ কাপ চা বিক্রি হতো। এখন এক লাফে তা বেড়ে গিয়েছে প্রায় চার গুণ। শুধু তাই নয়, এখন সকাল থেকে চা খাওয়ার জন্য তার দোকানের সামনে লম্বা লাইনও পড়ে যায়।

বাশা মনে করেন, দেশের বড় বড় শহরে ফ্রি ওয়াইফাই জোন থাকাটা বর্তমান সময়ে খুবই সাধারণ ব্যাপার। তবে সিরুগুপ্পার মতো ছোট শহরে এই সুবিধা কোথাও নেই এই যা। তাছাড়া মফঃস্বলে নেটের স্পিডও অনেক কম। যে ছাত্র-ছাত্রীরা মাসে খুব বেশি হলে ১০০ টাকা হাত খরচা পায় তারা হয়তো প্রতিমাসে নেট রিচার্জ করতে পারে না। তবে এখানে পাঁচ টাকা খরচ করে এক কাপ চায়ের সঙ্গে আধ ঘণ্টা ফ্রি ডেটা ব্যবহার করতে পারেন। যার স্পিড থাকে মোটামুটি ১/২ এমবিপিএস। এতে বহু ছেলে-মেয়ের উপকারও হয়। প্রতিদিন এতো লোককে ফ্রি ইন্টারনেট দিতে কী পন্থা নিয়েছেন বাশা?

বাশা তিন হাজার টাকা দিয়ে একটি রাউটার কিনেছেন। ১,৭০০ টাকা দিয়ে প্রতিমাসে স্থানীয় কেবল অপারেটরের নিকট হতে আনলিমিটেড ডেটা প্যাক রিচার্জ করান ২৩ বছরের এই স্মার্ট চা বিক্রেতা। যারা তার দোকান থেকে চা কেনেন তাদের তিনি ওয়াইফাইয়ের পাসওয়ার্ড দেওয়া হয়। এই পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ-ইন করে বিনামূল্যে এই ডেটা ব্যবহার করা যায়। তবে প্রতি ক্রেতাকে এই সুবিধা দেওয়া হয় কেবলমাত্র ৩০ মিনিটের জন্য। আধাঘণ্টা পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে লগ-আউট হয়ে যায় এই সংযোগের।

দারিদ্রের কারণে দশম শ্রেণীর পর আর পড়া-লেখা করা হয়নি বাশার। সেই জন্য তার এই অভিনব পদ্ধতিতে মূলত ছাত্র-ছাত্রীদের উপকার করতে চান সাঈদ খাদার বাশা!

Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx