ভিডিও চ্যাটেও ‘ছুঁয়া’ যাবে ওপারের মানুষটিকে!

গবেষকরা বিশেষ এই দস্তানার নাম দিয়েছেন ‘ফ্লেক্স-এন-ফিল’

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রযুক্তি মানুষকে ক্রমেই সহজ থেকে সহজতর করে তুলছে। জীবন-যাত্রার মান বাড়ছে। প্রযুক্তির বদৌলতে এবার নাকি ভিডিও চ্যাটেও ‘ছুঁয়া’ যাবে ওপারের মানুষটিকে!

ভালোবাসার মানুষটিকে দূরে রাখা বড়ই কষ্টের বিষয়। আর সেই ভালোবাসার মানুষটি যখন অনেক দূরে থাকে তখন আরও কষ্টকর হয়ে যায়। তবে আধুনিক প্রযুক্তির বদৌলতে মানুষ এখন ঘরে বসেই সেই প্রিয় মানুষটির সঙ্গে কথা বলেন, ভিডিও চ্যাটে দেখেন ও কথা বলেন। কিন্তু সেই ভিডিও ফোনে স্পর্শ করা যায় না। এবার সেই দূর থেকে দেখার ভার খানিকটা হলেও কমতে চলেছে। সাত সমুদ্র তেরো নদী দূরে হতেই ভালোবাসার মানুষটিকে ছোঁয়া যাবে। সেই বিশেষ পদ্ধতিই আবিষ্কারের দাবি করেছেন কানাডার সিমোন ফ্রেজার বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক কারমান নিউস্টেডার!

ওই গবেষক এক বিশেষ ধরনের দস্তানা আবিষ্কার করেছেন। আপনি যারসঙ্গে ভিডিও চ্যাট করছেন, দস্তানাটি পরলেই তাঁকে নাকি ‘ছোঁয়া’ যাবে! অর্থাৎ আপনি আপনার সঙ্গীর হাতের স্পর্শও অনুভব করতে পারবেন! এমনকি তাকে নাকি আলিঙ্গনও করা যাবে। যারসঙ্গে আপনি চ্যাট করছেন, বিশেষ এই দস্তানাটি থাকলে তিনিও দিব্যি অনুভব করতে পারবেন আপনার সেই ভালোবাসার ছোঁয়া।

গবেষকরা বিশেষ এই দস্তানার নাম দিয়েছেন ‘ফ্লেক্স-এন-ফিল’। গবেষক কারমানের দাবি, এই দস্তানার মধ্যে থাকা সেন্সরগুলো মাইক্রো-কন্ট্রোলারের সঙ্গে অ্যাটাচ করা থাকবে। ওয়াই-ফাই মডিউলে ব্যবহার করতে হবে। এই দস্তানার মধ্যে হাত ঢোকাতে হবে। তারপর হাত নাড়লেই সেন্সরগুলো অ্যাক্টিভ হয়ে যাবে। তবে প্রাথমিক পরীক্ষায় সাফল্য এলেও এখনও অনেকগুলো পরীক্ষা পার করতে হবে এই নতুন আবিষ্কারটি কাজে লাগাতে হলে। সেইসব পরীক্ষায় পাশ করলে তবেই বাজারে আসবে এই দস্তানাটি। আর তখন কাছের মানুষটি যতো দূরেই থাকুক না কেনো তার সংস্পর্ষে আসতে পারবেন!

Advertisements
Loading...