একটি মন্দিরে চলে ১৬টি ধর্মের উপাসনা!

মন্দিরটির ধারণ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য প্রতিদিন বিভিন্ন ধর্মীয় বিশ্বাসকে নিজের মধ্যে একিভূত করার চেষ্টা চালাচ্ছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ উপাসনার বিষয়টি বাহ্যিক দিকের সঙ্গে অন্তরের বিষয়টিও জড়িত। মনের মধ্যে ভক্তি-শ্রদ্ধার মাধ্যমে মানুষ সৃষ্টিকর্তার আরাধনা করেন। এবার এমন একটি মন্দিরের খবর পাওয়া গেছে যেখানে ১৬টি ধর্মের উপাসনা হয়!

টেম্পল অব অল রিজন বা যাকে বলা হয় ইউনিভার্সেল টেম্পল। এটি হলো এমন একটি মন্দির যেখানে ১৬টি ধর্মের অনুসারীদের উপাসনার ব্যবস্থা রয়েছে! এই মন্দিরটি অবস্থিত রাশিয়ার সিটি অফ কাজানে। ১৯৯২ সালে লোকহিতৈষী ইলদার খানভ এই মন্দিরটি প্রতিষ্ঠা করেন।

এর ইতিহাস ঘেটে অনেক কিছুই পাওয়া যায়। জানা যায়, ইউনিভার্সাল টেম্পলে ১৬টি বিভিন্ন ধর্মের স্থাপত্য লক্ষ্য করা গেছে। শোনা যায় যে, এমনও একটি ধর্মের সাক্ষ্য বহন করছে যে মন্দিরটি অধুনা অবলুপ্ত। তবে এই মন্দিরের ভেতরে বা সংলগ্ন স্থানে কোনো ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান পালিত হয় না।

এর মূল কারণ হলো এটি একটি বিশেষ প্রকারের প্রতীকী মন্দির। এই মন্দিরের নির্মাণ কাজ এখনও অসম্পূর্ণ। মন্দিরটির ধারণ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য প্রতিদিন বিভিন্ন ধর্মীয় বিশ্বাসকে নিজের মধ্যে একিভূত করার চেষ্টা চালাচ্ছে স্থানীয়রা। তারা মনে করেন, এই মন্দিরটি আরও প্রসিদ্ধ মন্দিরে রূপান্তর করা সম্ভব। তাই তারা প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন।

Advertisements
Loading...