আগুন নেভানোর বিস্ময়কর পদ্ধতি উদ্ভাবন!

তুরস্কের একদল শিক্ষার্থী আগুন নেভানোর কাজে পারঙ্গম একটি রোবট তৈরি করেছেন!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আগুন লাগার অর্থ হলো সবকিছু্ই পুড়ে ছারকার হওয়া। আগুন মানুষকে নি:শ্ব করে দেয়। সম্প্রতি লন্ডন অগ্নিকাণ্ড গোটা বিশ্বের মানুষের মনে দাগ কেটেছে। এবার আগুন নেভানোর বিস্ময়কর পদ্ধতি উদ্ভাবন করা হয়েছে!

আগুনের নানা দুঃসংবাদের মধ্যেই এসেছে ভালো একটি খবর। আর তা হলো আগুন নেভানোর বিস্ময়কর পদ্ধতি উদ্ভাবন! তুরস্কের একদল শিক্ষার্থী আগুন নেভানোর কাজে পারঙ্গম একটি রোবট তৈরি করেছেন।

এই রোবট তৈরি করেছেন তুরস্কের ওসমানগাজি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থীরা।
রোবটটিতে আগুন সংবেদনশীল পদ্ধতি দেওয়া হয়েছে। যে কারণে এটি ভবনের যেখানে আগুন, সেটি খুঁজে বের করতে সক্ষম। রোবটটি স্বয়ংক্রিয় ও রিমোর্ট- দু’ভাবেই চালানো সম্ভব বলে জানা গেছে।

ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ফুয়াদ বারসাগলিয়া বলেছেন, ‘রোবটটিতে মানুষের কিছু গুণাবলী দেওয়া হয়েছে। যে কারণে এটি আগুন নেভানোর সময় মানুষের সঙ্গে সমানতালে কাজ করতে পারবে।’

অধ্যাপক ফুয়াদ বারসাগলিয়া আরও জানান, মাত্র তিন মাসের মধ্যে শিক্ষার্থীরা এই রোবটটি তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন।

ওই শিক্ষার্থী দলের একজন মুখপাত্র গোহকান আয়াজ বলেছেন, ‘অগ্নি নির্বাপনে রোবটটি পুরো এলাকা চষে বেড়াতে পারবে। যেখানে আগুন লেগেছে, সেখানে কোনো মানুষ থাকলে তাকেও এই রোবটটি খুঁজে বের করতে পারবে। যে কারণে আগুনে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানি কমানো অনেকটা রোধ করা সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে।’

Advertisements
Loading...