২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ১৩তম বার্ষিকী আজ

২০০৪ সালের ২১ আগস্টের এইদিনে ঘটেছিল এক নারকীয় ঘটনা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আজ ২১ আগস্ট ভয়াবহতম গ্রেনেড হামলার ১৩তম বার্ষিকী। জাতি শ্রদ্ধাবনতচিত্তে ইতিহাসের ভয়াবহতম সেই গ্রেনেড হামলার ১৩তম বার্ষিকী পালন করছে।

২০০৪ সালের ২১ আগস্টের এইদিনে ঘটেছিল এক নারকীয় ঘটনা। সেদিন বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী শান্তি সমাবেশে এক নারকীয় গ্রেনেড হামলা চালানো হয়।

সেদিনের ২১ আগস্টের ওই হামলায় শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের শীর্ষ স্থানীয় কয়েকজন নেতা অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যান। ওই নারকীয় বোমা হামলায় ২৪ জন নিহত হন।

২১ আগস্টের সমাবেশে বিকেলে যখন শেখ হাসিনা বক্তৃতা দিচ্ছিলেন, ঠিক তখন আকস্মিকভাবে ওই হামলায় প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের সহধর্মিণী এবং আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক আইভি রহমান মারাত্মকভাবে আহত হন। পরে তিনি হাসপাতালে মারা যান।

ওই হামলায় আরও অন্তত ৪০০ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে অনেকেই চিরতরে পঙ্গু হয়ে গেছেন। তাদের কেও কেও আর স্বাভাবিক জীবন ফিরে পাননি।

ওইদিন শেখ হাসিনার বক্তব্যের শেষ পর্যায়ে আকস্মিক গ্রেনেড বিস্ফোরণে ঘটনাস্থলে মারাত্মক বিশৃঙ্খলা, ভয়াবহ মৃত্যু ও দিনের আলো মুছে গিয়ে এক ধোঁয়াচ্ছন্ন বিদ্ধস্ত পরিবেশ সৃষ্টি হয়। শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যেই এই সিরিজ গ্রেনেড হামলা চালানো হলেও তৎকালীন ঢাকা সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ও শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত দেহরক্ষী তাৎক্ষণিকভাবে এক মানববলয় তৈরি করে নিজেরা আঘাত সহ্য করেন এবং শেখ হাসিনাকে গ্রেনেডের হাত হতে রক্ষা করেন। পরে শেখ হাসিনাকে নিরাপত্তা দিয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়। শেখ হাসিনা গ্রেনেডের আঘাত হতে সেদিন বেঁচে গেলেও তাঁর শ্রবণশক্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল।

ওই বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলায় নিহত ব্যক্তিরা হলেন:

আইভি রহমান, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষী ল্যান্স করপোরাল (অব.) মাহবুবুর রশীদ, আবুল কালাম আজাদ, রেজিনা বেগম, নাসির উদ্দিন সরদার, আবদুল কুদ্দুস পাটোয়ারি, আতিক সরকার, আমিনুল ইসলাম মোয়াজ্ঝেম, বেলাল হোসেন, মামুন মৃধা, লিটন মুনশী, রতন শিকদার, সুফিয়া বেগম, হাসিনা মমতাজ রিনা, রফিকুল ইসলাম (আদা চাচা), মোশতাক আহমেদ সেন্টু, জাহেদ আলী, মোহাম্মদ হানিফ, আবুল কাশেম, মোমেন আলী, ইসাহাক মিয়া এবং এম শামসুদ্দিন।

মারাত্মক আহত ব্যক্তিরা হলেন:

শেখ হাসিনা, আমির হোসেন আমু, আবদুর রাজ্জাক, সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত, ওবায়দুল কাদের, অ্যাড: সাহারা খাতুন, মোহাম্মদ হানিফ, এ এফ এম বাহাউদ্দিন নাসিম, আওলাদ হোসেন, নজরুল ইসলাম বাবু, সাঈদ খোকন, মাহবুবা আখতার, অ্যাডভোকেট উম্মে রাজিয়া কাজল, শাহিদা তারেক দিপ্তী, নাসিমা ফেরদৌস, রাশেদা আখতার রুমা, হামিদা খানম মনি, ইঞ্জিনিয়ার সেলিম, রুমা ইসলাম, কাজী মোয়াজ্জেম হোসেইন ও মামুন মল্লিক।

২০০৪ সালের পর হতে ২১ আগস্ট দিনটিকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্ভাসিত জনগণ গ্রেনেড হামলা দিবস হিসেবে পালন করে আসছে। আজ ১৩তম বার্ষিকী পালিত হচ্ছে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দিনটি যথাযথ মর্যাদায় পালন করছে। প্রতিবারের মতো এবারও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দিবসটি স্মরণে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

Loading...