The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

৪ শত শিক্ষার্থীর প্রাণ বাঁচাতে বোমা কাঁধে এক কনস্টেবল!

বর্তমান সমাজে এমন দায়িত্বশীল ব্যক্তির দেখা পাওয়া খুবই দুষ্কর

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ দায়িত্ব বা কর্তব্য এমন একটি জিনিস তার মূল্যায়ন যারা করতে পারেন তারা সত্যিকারভাবে একজন মানুষ হিসেবে সমাজের কাজে পরিগণিত হন। এমনই একজন দায়িত্বশীল করস্টেবলের কাহিনী রয়েছে আজ। যিনি জীবন বাজি রেখে ৪শত শিক্ষার্থীকে বাঁচাতে কাঁধে বোমা নিয়ে এক কিলোমিটার দৌড় দেন!

৪ শত শিক্ষার্থীর প্রাণ বাঁচাতে বোমা কাঁধে এক কনস্টেবল! 1

বর্তমান সমাজে এমন দায়িত্বশীল ব্যক্তির দেখা পাওয়া খুবই দুষ্কর। বর্তমান সমাজে মানুষের মধ্যে মমত্ববোধ একেবারেই নেই বললেই চলে। কারণ বর্তমানে দেখা যায় শিশুদের উপর অত্যাচারের খবর। জমিজমা বা অর্থের জন্য নিজের ভাইকে কুপিয়ে খুন করার মতো ঘটনাও আমরা দেখতে পেয়ে থাকি।

তবে তাই বলে সমাজে এখনও এমন লোকও আছে যার কাছে নিজের জীবন একেবারেই নস্যি। মানুষকে বাঁচানো বা তাদের পাশে থাকার ব্যাপারে তারা থাকেন তৎপর। এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে ভারতের মধ্য প্রদেশে।

একজন সাধারণ কনস্টেবল। এই এই পুলিশের কনস্টেবলের নাম অভিষেক প্যাটেল। তিনি একটি বিদ্যালয়ের ৪শত শিক্ষার্থীর প্রাণ বাঁচাতে জীবন্ত (অবিষ্ফোরিত) বোমা কাঁধে দৌড় দিয়ে এক কিলোমিটার দূরে নিয়ে গেছেন!

এক খবরে জানা গেছে, ভারতের মধ্য প্রদেশের সাগর প্রদেশের একটি বিদ্যালয়টির পাশে একটি অবিষ্ফোরিত বোমা দেখতে পান কনস্টেবল অভিষেক। তখনই তিনি সেটি কাঁধে তুলে নিয়ে দৌড়ে এক কিলোমিটার দূরে নিয়ে যান। কারণ ওই বোমাটি সেখানে বিস্ফোরিত হলে অন্তত ৪শত শিক্ষার্থীর প্রাণ সংহার হতে পারতো।

ভারতীয় পুলিশের আইজি সতীশ সাক্সেনা কনস্টেবল অভিষেকের এই অসম সাহসীকতায় খুশি হয়ে তাকে পুরস্কারে ভূষিত করার ঘোষণা দিয়েছেন। সত্যিই এই সময়ে এমন একজন অসম সাহসী ও দায়িত্বশীল পুলিশের কর্তব্য পরায়ণতা সকলকে মুগ্ধ করেছে।

Loading...