আইফোন সর্বপ্রথম কেনার জন্য এক ভক্তের কাণ্ড!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আইফোন নিয়ে বিশ্বব্যাপী যেনো মাতামাতি শুরু হয়ে গেছে। আইফোন বাজারে আসার আগেই ভক্তরা নানা কাণ্ড ঘটিয়েছেন। আইফোনের এক ভক্ত সর্বপ্রথম কেনার জন্য ১০ দিন আগেই লাইন দিয়েছেন!

প্রতীক্ষার পালা শেষ হয়েছে। ১২ তারিখ বাংলাদেশ সময় রাত ১১টায় যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার কুপারটিনোতে স্টিভ জবস থিয়েটারের অডিটোরিয়ামে অ্যাপল তাদের নতুন মডেলের আইফোন ‍উন্মোচন করেছে। যা বিশ্বের লক্ষ লক্ষ আইফোন ভক্তরা সরাসরি দেখেছেন।

নতুন আইফোন সবার আগে হাতে পাওয়ার জন্য এক আইফোন ভক্ত রাজধানী সিডনিতে মাজেন কাওরাচে নামক স্থানে শহরটির অ্যাপল স্টোরের বাইরে বসে অপেক্ষা শুরু করে দেন। ১০ দিন আগেই তিনি সেখানে হাজির হন। তার উদ্দেশ্য হলো যখন নতুন আইফোন বিক্রি শুরু হবে তখন তিনি যেনো লাইনে সবার আগে থাকতে পেরে সর্বপ্রথম নতুন আইফোনটি কিনতে পারেন!

জানা গেছে, আগামী ২২ সেপ্টেম্বর হতে নতুন আইফোন বিক্রির জন্য উন্মুক্ত করা হবে। তবে ইতিমধ্যে অস্ট্রেলিয়ায় এই আইফোন ভক্তের কান্ড বেশ সাড়া ফেলে দিয়েছে।

নিউ সাউথ ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয়ের সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে অধ্যয়নরত ২০ বছর বয়সি ওই শিক্ষার্থী অ্যাপলের নতুন আইফোন কেনার জন্য গত বছরও বিক্রির কয়েকদিন পূর্ব হতেই স্টোরের সামনে এসে লাইনে অপেক্ষা করেন।

এ বছরও তিনি তার ইউটিউব ভক্তদের জন্য এটি করছেন। সেইসঙ্গে বিশ্বে সর্বপ্রথম নতুন মডেলের এই আইফোন কেনা ব্যক্তিদের একজন হওয়ার ইচ্ছাও পোষণ করার কারণে তিনি এমনটি করেছেন।

ডেইলি মেইল অস্ট্রেলিয়াকে মাজেন বলেছেন, ‘গত বছর অস্ট্রেলিয়াতে নতুন আইফোন কেনায় আমি তৃতীয়তম ব্যক্তি হয়েছিলাম। তার আগের বছরে ১০০তম।’

‘আমি একজন ইউটিউবার। এবার আমি আমার দর্শকদের জন্য পুরো সময়টি রেকর্ড করছি। যেদিন আইফোন বিক্রির জন্য বক্স খোলা হবে, সেদিনই সবার আগে আমি আমার দর্শকদের লাইভ ভিডিওতে নতুন আইফোনটি দেখাবো।’ ঠিক এভাবেই মন্তব্য করেছেন ওই আইফোন ভক্ত।

সবার আগে তিনি আইফোন হাতে পেতে এতোই দৃঢ় প্রত্যয়ী যে, লাইনে সবার আগে থাকার স্থানটি ছেড়ে দেওয়ার জন্য বিশাল অংকের লোভনীয় অফার পেলে তাও প্রত্যাখান করবেন বলে জানিয়েছেন।

মাজেন আরও বলেন, ‘কেও যদি আমাকে সবার আগে স্থানটি ছেড়ে দেওয়ার জন্য ৫০ হাজার ডলার অফার করে তাও আমি জানিনা আমার কি সিদ্ধান্ত নেওয়াটা উচিত হবে। তবে আমাকে আসলে আমার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য ৫০ হাজার সাবস্ক্রাইবার পেতেই হবে, যা দীর্ঘমেয়াদে আমাকে ৫০ হাজার ডলার করে দেবে। তাই সাময়িক লাভের পরিবর্তে আমি দীর্ঘমেয়াদী লাভের বিষয়টির কথায় ভাবছি।’

Advertisements
Loading...