সুখী হওয়ার গোপন রহস্য: আইনস্টাইনের সেই চিরকুট নিলামে!

সুখের প্রকৃত সংজ্ঞা কী এবং কীভাবে জীবনে সুখী হওয়া যায়

A picture taken on October 19, 2017, shows Gal Wiener, owner and manager of the Winner's auction house in Jerusalem, displays two notes written by Albert Einstein, in 1922, on hotel stationary from the Imperial Hotel in Tokyo Japan. A note that Albert Einstein gave to a courier in Tokyo, briefly describing his theory on happy living, has surfaced after 95 years and is up for auction in Jerusalem. / AFP PHOTO / MENAHEM KAHANA

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সুখী হওয়ার গোপন রহস্য লিখা আইনস্টাইনের সেই চিরকুটটি নিলামে উঠেছে! সম্প্রতি আইনস্টাইনের সেই নোটটি জেরুজালেমে নিলামে উঠতে চলেছে।

পৃথিবীতে এমন অনেকেই রয়েছেন যারা জীবনে সফল, তবে সুখী নন। অ্যালবার্ট আইনস্টাইন তা নিয়ে ৯৫ বছর পূর্বে নিজের ভাবনা জানিয়ে বলেছিলেন, সুখের প্রকৃত সংজ্ঞা কী এবং কীভাবে জীবনে সুখী হওয়া যায়।

কোনও বিশাল আকারের থিওরিতে নিজের সেই কথা কখনও প্রকাশ করেননি তিনি। মাত্র দু’চার লাইনের একটি ছোট্ট নোটের মধ্যমেই ‘সুখ’ সম্পর্কে বলেছিলেন এই মহাবিজ্ঞানী। ডেইলি মেইল-এ প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, সম্প্রতি আইনস্টাইনের সেই নোটটি জেরুজালেমে নিলামে উঠতে চলেছে।

ডেইলি মেইলের প্রতিবেদন বলা হয়েছে, জাপানের একটি লেকচার ট্যুরে গিয়ে ১৯২২ সালে তিনি এই নোটটি লিখেছিলেন। টোকিও শহরের একটি কুরিয়ার সংস্থার পিওনকে হাতে লেখা এই চিরকুটটি দিয়েছিলেন নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী।

শোনা যায় যে, টোকিওর ইম্পিরিয়াল হোটেলে বক্তৃতা দেওয়ার সময় জাপানি ওই কুরিয়ার সংস্থাটি মহাবিজ্ঞানীর কাছে তার নোবেল জয়ের খবর পৌঁছে দেয়। সেই সময় ওই কুরিয়ার সংস্থার ডেলিভারি বয়কে খুশি হয়ে তিনি টিপসও দিতে চেয়েছিলেন। তবে কোনও টাকা নিতে চাননি ডেলিভারি বয়। তখন ছোট্ট একটি চিরকুটে নিজের হাতে দু’টি লাইন লিখে তাকে উপহার দিয়েছিলেন আইনস্টাইন।

আবার শোনা যায়, টিপস দেওয়ার মতো খুচরা পয়সা কাছে না থাকায় ওই লাইন দু’টি লিখে দিয়েছিলেন আইনস্টাইন!

অবশ্য বিষয়টি নিয়ে মত বিরোধ থাকলেও চিরকুটের লেখাটি যে ভীষণ দামি, সেটি স্বীকার করে নেন সকলেই।
ওই চিরকুটে লেখা ছিল, ‘একটি শান্ত ও শালীন জীবনের মধ্যেই সুখের প্রকৃত চাবিকাঠি লুকিয়ে। সাফল্যের পেছনে ক্রমাগত ছুটলে কেবলমাত্র অস্থিরতাই ধরা দেবে।’ অন্য একটি লাইনে লেখা ছিল, ‘যদি ইচ্ছে থাকে, তবে উপায় বের হবেই।’

Advertisements
Loading...