মিশরে আড়াই হাজার বছরের জিমনেশিয়ামের সন্ধান!

এটি প্রাচীন হেলেনিস্টিক বা গ্রিক আমলের এক নিদর্শন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এবার মিশরে পাওয়া গেছে আড়াই হাজার বছরের জিমনেশিয়াম! এটি তৃতীয় খ্রিস্টপূর্বাব্দের জিমনেশিয়ামকে মাটি খুঁড়ে বের করা হয়েছে।

এবার সন্ধান মিলেছে মিশরে আড়াই হাজার বছরের পুরনো জিমনেশিয়ামের (শরীরচর্চা কেন্দ্র)। এটি তৃতীয় খ্রিস্টপূর্বাব্দের জিমনেশিয়ামকে মাটি খুঁড়ে বের করা হয়।

গবেষকরা দাবি করেছেন যে, এটি প্রাচীন হেলেনিস্টিক বা গ্রিক আমলের এক নিদর্শন। কায়রোর ৫০ মাইল দক্ষিণ–পশ্চিমে ফেওম প্রদেশের ওয়াতফায় ঐতিহাসিক এই জিমনেশিয়ামটি খুঁজে বের করেন জার্মান এবং ইজিপশিয়ান পুরাতত্ত্ববিদদের একটি যৌথ দল।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, এটি তৈরি হয়েছিল ২ হাজার ৩০০ বছর পূর্বে। তৃতীয় খ্রিস্টপূর্বাব্দে রাজা পোলেমি দ্বিতীয়ের গড়ে তোলা প্রাচীন ফিলোতেরিস গ্রামের একটি এলাকা হলো ওয়াতফা। এই স্থানটির নাম রাখা হয় তার বোন ফিলোতেরার নামে। এসব তথ্য দিয়েছেন মিশরের অ্যান্টিকুইটিস মিনিস্ট্রি।

এ বিষয়ে সংবাদ মাধ্যমকে অ্যানসিয়েন্ট ইজিপশিয়ান অ্যান্টিকুইটিস সেক্টরের প্রধান ড. আয়মান আশমাওয়ি জানিয়েছেন, এই শরীরচর্চা কেন্দ্রটি একটি বিশাল। এরমধ্যে রয়েছে সভা করার বড় এক হলও। এইসব হলগুলোতে শোভা পেতো বিভিন্ন ভাস্কর্য।
এখানে আরও রয়েছে ডাইনিংয়ের একটি বড় অংশ। এরমধ্যে রয়েছে ২০০ মিটার লম্বা দৌড়ানোর ট্র্যাকও।

দেখা যাচ্ছে গোটা ব্যায়ামাগারকে ঘিরে রেখেছে একটি বাগান। জার্মান আর্কিওলজিক্যাল ইনস্টিটিউট (ডিএআই) এর বিশেষজ্ঞ ও এই দলের প্রধান ড. কর্নেলিয়া রোমার জানিয়েছেন, প্রাচীন গ্রিকদের শরীরচর্চা কেন্দ্রগুলোতে ধনীদের আনাগোনাই ছিল বেশি। গ্রিকদের উঁচু শ্রেণীর তরুণরাই মিশরে এসে এই প্রশিক্ষণ প্রদান করতেন। সেইসঙ্গে তারা অধ্যয়ন ও লেখালেখিও করতেন। মিশরের এই ব্যায়ামাগারটিও একই কাজে ব্যবহৃত হতো। গবেষকরা এটির সন্ধান পাওয়ার পর গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তারা হয়তো এই জিমনেশিয়াম সম্পর্কে আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাবেন।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...