ভূতের সঙ্গে ‘রাত্রিযাপন’ করার চাঞ্চল্যকর তথ্য!

হঠাৎ ঘুম হতে উঠে দেখি পাশে কে যেনো বসা। লম্বা কালো চুল, দেখতে খুব দারুণ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভূতের সঙ্গে ‘রাত্রিযাপন’ করার চাঞ্চল্যকর এক তথ্য প্রকাশ পেয়েছে। এমন একটি ঘটনা ঘটেছে ইংল্যান্ডের নাগরিক সিয়ানের জীবনে!

২২ বছর বয়সী ইংল্যান্ডের নাগরিক সিয়ান। খুব স্বাভাবিকভাবেই প্রেমে পড়েন তিনি। তবে খুব বেশিদিন টিকলো না তার ভালোবাসা। প্রিয় মানুষকে হারানোর বেদনা সয়েছেন তিনি বহুদিন। তবে তিনি পারেননি একেবারে ভুলতে।

আর তাই সিদ্ধান্ত নিলেন নিজ বাসা ছেড়ে দূরে কোথায়ও চলে যাবেন। তাতে যদি অতীতের ক্ষতে প্রলেপ পড়ে যায়। এমন চিন্তা তার মাথায় ভালো করেই চেপে বসলো।

আর তাই একদিন তল্পিতল্পাসহ ঠিকই বাড়ি থেকে রওয়ানা দিলেন সিয়ান। যেতে যেতে ওয়েলসের দুর্গম একটা এলাকায় পা রাখলেন। জায়গাটা বেশ মনে ধরার মতো। কয়েক কদম হেঁটে দেখলেন বেশ জীর্ণশীর্ণ একটা বাড়ি মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে রয়েছে। বাড়িটা দেখে পুরনোই মনে হলো তার কাছে। আরেকটু এগোলে বাড়ির দেওয়ালে চোখ পড়লো সিয়ানের। দেখলেন ১৮২০ সালে নির্মাণ করা হয়েছে এই বাড়িটি। যে লেকটা বাড়ির দেখভালের দায়িত্বে রয়েছেন; তাকে অনেক অনুরোধ করে বাড়িটা ভাড়া করে নিলেন সিয়ান।

সিয়ামের শুরুটা বেশ ভালোই কাটছিল। একাকীত্ব তাকে বিন্দুমাত্র স্পর্শও করতে পারেনি। তবে ধীরে ধীরে সময়টা থমকে যায়। হঠাৎ এক রাতের নতুন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হলেন সিয়ান। ‘দেয়ালের একটা আঁকা ছবি দেখছি অনেক দিন হতে। আমি প্রায়ই বিছানা হতে ওই ছবিতে নজর দেই। বেশ পুরনো একটি ছবি। ওই রানের কথা বললে আমার গা কাটা দেয় এখনও। অবশ্য সেই রাতটা আমি উপভোগ করেছি। সে রাতে আমি হঠাৎ ঘুম হতে উঠে দেখি পাশে কে যেনো বসা। লম্বা কালো চুল, দেখতে খুব দারুণ। প্রথমে আমি ভালো করে দেখিনি। পরে দেখলাম দেওয়ালের ছবিতে যাকে এতোদিন দেখলাম, সে বাস্তবে আমার সামনে সত্যিই হাজির হলো। অনেক রাত তার সঙ্গে কাটিয়েছে। সময়টা সত্যিই অসাধারণ ছিল। নাম তার রবার্ট। ১০০ বছর পূর্বে সে এই ধরায় জীবিত ছিল। তার সঙ্গে আমার ভালো একটা সম্পর্কও গড়ে উঠে।’

Advertisements
Loading...