দেড় মাস বয়সী শিশু সন্তানকে খুন করে আলমারীতে রাখলো পাষণ্ড বাবা!

পুলিশ সন্ধায় ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আলমারি হতে শিশু আতিকা জান্নাতের লাশ উদ্ধার করে

ঈশ্বরদী থেকে ডা: আনোয়ারুল ইসলাম ॥ ঈশ্বরদীতে শিশু সন্তানকে খুন করলো এক পাষণ্ড বাবা। ঈশ্বরদী অরণকোলা এটিআই কলেজের পেছনের বাড়ি থেকে গতকাল (শনিবার) দেড় মাস বয়সী আতিকা জান্নাতের মৃতদেহ আলমারী থেকে উদ্ধার করেছে ঈশ্বরদী থানা পুলিশ।

ছবি ইতিহাস ২৪ এর সৌজন্যে প্রাপ্ত

পুলিশ সন্ধায় ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আলমারি হতে শিশু আতিকা জান্নাতের লাশ উদ্ধার করে। শিশুটির পিতা আশরাফুল ইসলামকে পুলিশ গ্রেফতার করে। সেইসঙ্গে আটক করা হয় আশরাফুলের বাবা-মা ও মামীকে।

জানা যায়, আশরাফুলের অনুপস্থিতিতে শিশুটির মা নিশি খাতুন তার কোলের শিশু জান্নাতকে ঘরে শুইয়ে রেখে বড় সন্তান তানিশাকে নিয়ে ছাদে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এর কিছুক্ষণ পর ঘরে এসে দেখেন তার সন্তান ঘরে নেই। অনেক খোঁজাখুঁজির পর যখন তাকে পাওয়া যায়নি তখন ঘটনাটি ভিন্ন খাতে নেওয়া জন্য বলা হয়, কোনো এক মহিলা শিশুটিকে চুরি করে নিয়ে গেছে।

বিষয়টি পুলিশ পর্যন্ত গড়ালে শিশুটিকে খোঁজার জন্য পুলিশ তল্লাশি শুরু করে। তল্লাশির এক পর্যায়ে পুলিশ তাদের শোবার ঘরের আলমারীর মধ্য হতে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে। শিশুটিকে হত্যার দায়ে শিশুর পিতা আশরাফুল ইসলাম ও তার পিতা আইয়ুব আলী খান (৭২), মাতা সেলিনা খান (৬৮) এবং তার মামী জোস্মা খাতুন (৫৭) কে গ্রেফতার করে। জানা গেছে, শিশু আতিকা জান্নাত প্রতিবন্ধি ছিল। সে কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পুলিশ বলছে, ইচ্ছাকৃতভাবে এই শিশুটিকে হত্যা করা হয়েছে।

Advertisements
Loading...