The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

সেকেন্ড হ্যান্ড কি কিনবেন ও কি কিনবেন না

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ আমাদের প্রায় সবারই সেকেন্ড হ্যান্ড জিনিস পত্র কেনার বাতিক আছে। তবে সব কিছুই সেকেন্ড হ্যান্ড হিসেবে কেনা ঠিক নয়। গুণগত মান, টেকসই এবং অর্থ সাশ্রয়ের কথা চিন্তা করে কিছু জিনিস থাকে যা সেকেন্ড হ্যান্ড কেনা বুদ্ধিমানের কাজ আবার কিছু জিনিস আছে সেকেন্ড হ্যান্ড কেনা বোকামির পরিচায়ক।


second-hand

যে জিনিসগুলো সেকেন্ড হ্যান্ড কেনা উচিত নয়:

১. ল্যাপটপ
আগের তুলনায় বর্তমান বাজারে ল্যাপটপ এর দাম তুলনামূলক কম। প্রতিযোগিতাও অনেক। দেখা যায় একটা ল্যাপটপ কয়েক বছর ব্যবহার এর পরই নানা সমস্যা দেখা দেয়। কী বোর্ড, টাচ প্যাড ঠিক মতন কাজ করে না। বেশি ব্যবহার এর ফলে বিভিন্ন পোর্টগুলোতেও সমস্যা দেখা দেয়। কুলিং ফ্যান গরম হয়ে পড়া পুরান ল্যাপটপ এর একটা বড় সমস্যা। এছাড়া ল্যাপটপ এর ব্যাটারি ব্যবহার যত বেশি করা হয় তত এর স্থায়িত্ব কমে। কম সময় চার্জ থাকে। আপনি হয়তো দেখে শুনে কিনছেন কিন্তু কয়েকদিন বাদেই যদি এই সমস্যা গুলো দেখা দেয়া শুরু করে তবে পুরো টাকাটা জলে যাবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ল্যাপটপ এ কোন সমস্যা না দেখা দিলে কেও কিন্তু বিক্রি করতে চান না।

২. ডিজিটাল ক্যামেরা
এই যুগে সবারই টুকটাক ছবি তোলার শখ থাকে। মোটামুটি সব পরিবারেই একটি ডিজিটাল ক্যামেরা থাকে। সুন্দর মুহূর্তগুলো ক্যামেরা বন্দী করতে না পারলে আফসোস এর সীমা থাকে না। উৎসব অনুষ্ঠান মানেই ছবি তোলা বাধ্যতামূলক। তাই এতো গুরুত্বপূর্ণ কাজ যে দরকারি জিনিসটি দিয়ে করবেন তা নতুন না কিনলে মনের ভেতর খুত খুতানি তো থাকবেই। আবার সেকেন্ড হ্যান্ড ডিজিটাল ক্যামেরায় থাকে নানা সমস্যা। ক্যামেরার লেন্সে সমস্যা থাকতে পারে, ক্যামেরা ফাংগাস পড়া থাকতে পারে, সব ফাংশন কিংবা সুইচ ঠিক নাও থাকতে পারে। তাই অল্প বাজেট হলেও নতুন ক্যামেরা কেনা সবচেয়ে বুদ্ধিমান এর মত কাজ।

৩. ক্যামেরা লেন্স
একটা ডিজিটাল ক্যামেরার সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ হচ্ছে এর লেন্স। যে ক্যামেরার লেন্স যত ভালো হবে সেটি দিয়ে তত ভালো ছবি তুলতে পারবেন। আদ্রতা ধুলাবালিতে লেন্সের ক্ষতি হয়। পুরান ক্যামেরায় ফাংগাস পড়া থাকতে পারে যা হয়তো আপনি খেয়ালই করলেন না। তাই ক্যামেরার লেন্স কিনুন অবশ্যই নতুন।

৪. বাইক হেলমেট
যেখানে নিরাপত্তার প্রশ্ন জড়িত সেখানো সেকেন্ড হ্যান্ড কখনোই না। নিরাপত্তার সাথে আপোস হয় না। সেকেন্ড হ্যান্ড বাইক হেলমেট, আপনি দেখছেন হয়তো আনকোরা নতুন। কিন্তু ভেতরে ভেতরে অনেক সমস্যাই থাকতে পারে যা আদতে বোঝা যাচ্ছে না। যার একটি হঠাৎ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আসতে পারে।

৫. জুতা
ফুটপাতে হাঁটলে অনেক ধরণের আকর্ষণীয় জুতা পাওয়া যায় খুবই স্বল্প মূল্যে। দেখতে সেগুলো চক চকে, আপনার কাছে মনে হতে পারে আরামদায়ক টেকসই। ভালো করে লক্ষ্য করলে বুঝতে পারবেন সেগুলো আসলে পালিশ করা পুরনো জুতা। তার অধিকাংশরই থাকে সোল পাল্টানো। চামড়ার জুতা ব্যবহারের সাথে সাথে চামড়ার গুণগত মানও হ্রাস পায়। তাই পুরনো জুতা কেনা এবং অকাজের একটা জিনিস কেনা সমার্থক।

৬. টুপি, ক্যাপ
টুপি ক্যাপ বানানো হয় শক্ত কাপড় দিয়ে। খুব ভালো ব্র্যান্ডের টুপিতে চামড়াও ব্যবহার করা হয়। শক্ত কাপড় ব্যবহার করার কারণে এগুলো পরিষ্কার করা যায় না ভালোভাবে। ব্যবহারকরীর ঘাম আর শরীরের ময়লার কারণে এক ধরণের চট চটে রং তৈরি হয় যা খুব খারাপ দেখায়। পরিষ্কার করা হয় না বলে অনেক জীবাণুও থাকতে পারে টুপি কিংবা ক্যাপে। পুরানো হিসাবে টুপি ক্যাপ কিনা কখনোই ঠিক নয়।

৭. ব্লেন্ডার মেশিন
ব্লেন্ড করার জন্য আমরা কম বেশি ব্লেন্ডার মেশিন ব্যবহার করি। পুরনো দোকানগুলোতে সেকেন্ড হ্যান্ড ব্লেন্ডার মেশিন কিনতে পাওয়া যায়। ব্লেন্ডার মেশিন এর ব্লেড ব্যবহার করতে করতে ক্ষয় প্রাপ্ত হয়। আসল জিনিসই যদি ঠিক না থাকে তবে সেই জিনিস কেনা বোকামী।

৮. কাঠের আসবাবপত্র
কাঠের আসবাবপত্র পুরনো কেনার প্রধান সমস্যা এর খুঁত ধরা যায় না। পুডিং দিয়ে ঘুণে খাওয়া অংশ তো জুড়ে দেয় ই আবার ভাংগা-চোরা অংশগুলোও মেরামত করে দেয়। কিন্তু আপনি ধরতে পারবেন না। ব্যবহার করার পর মেরামত করা অংশতে ফাটলগুলো ধরা পড়ে। কাঠের আসবাবপত্র সেকেন্ড হ্যান্ড কেনার পর সেটা দীর্ঘদিন কখনোই ব্যবহার উপযোগি থাকে না।

৯. ফোম, তুলা
সোফা, গদি, কুশন, বালিশ এগুলোতে আমরা ফোম, তুলা ব্যবহার করি। ভালো কার্যকরী কিছু পেতে চাইলে এই দুটি জিনিস সেকেন্ড হ্যান্ড ক্রয় করা যাবে না। বার বার ব্যবহার করার ফলে ফোম, তুলা সংকোচিত হয়ে যায়। এবং টেকসই কিছু পাওয়া যায় না।

১০. ভ্যাকুয়াম ক্লিনার
ঘর অফিস পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করার অপরিহার্য হচ্ছে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার। ভালো টেকসই কাজ পেতে হলে ভ্যাকুয়াম ক্লিনিয়ার কিনতে হবে অবশ্যই নতুন। পুরানো ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ঠিক ঠাক মতন কাজ করতে পারে না। ঘন ঘন নষ্ট হয়ে যায়।

১১. গাড়ীর টায়ার
পুরনো গাড়ীর চাকা ক্ষয়প্রাপ্ত থাকে। আর বেশিক্ষণ চলনশীল থাকলে গরমে গলে যেতে পারে। গাড়ী সাথে মানানসই নতুন টায়ার ব্যবহার করাটাই যুক্তি সংগত। তা না হলে অল্প কিছু দিন ব্যবহার এর পরই টায়ার ছিদ্র হয়ে বিপত্তি দেখা দিবে।

১২. কম্পিউটার সফটওয়্যার
যদিও বাংলাদেশে অধিকাংশ মানুষ সফটওয়্যার কিনে ব্যবহার করেন না। ভালো সেবা এবং সঠিক নিরাপত্তা পেতে হলে অবশ্যই টাকা খরচ করে সফটওয়্যার ব্যবহার করা উচিত। তাই বলে সফটওয়্যার সেকেন্ড হ্যান্ড কেনা যাবে না। কারণ একটা সফটওয়্যার মাত্র একটা পিসির জন্য তৈরি করা হয়। আপনি চালাকি করে হয়তো ব্যবহার করলেন কিন্তু ভালো সেবা আসা করতে পারবেন না।

second-hand-1

যে জিনিসগুলো সেকেন্ড হ্যান্ড হিসেবে কিনতে পারেন:

১. বাই সাইকেল
ইদানিং বাইসাইকেল খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। নানা ব্র্যান্ডের নানা দামের বাই সাইকেল পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। তরুণরা সাইকেল কিনছেনও প্রচুর। সাইকেল চালানোর উপযোগিতাও বাড়ছে দিন থেকে দিন। দেখা যায় কেও হয়তো একটা সাইকেল কিনলো কিছুদিন পরই সেটা বিক্রি করে নতুন ব্র্যান্ড এর একটা কিনছেন। আপনি দেখেশুনে পুরনো সাইকেল কিনলে লাভবান হবেন। কারণ সাইকেল সহজেই মেরামত করা যায় আর টায়ার বাদে সাইকেল এর বিভিন্ন অংশ সহজে নষ্ট হয় না।

২. বই
বই এর মূল আকর্ষণই হচ্ছে এর লেখা। মানুষ বই পড়ে লেখা পড়ার জন্য। তাই নতুন বই কেনা কখনও বুদ্ধিমানের কাজ নয়। স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় এর পাঠ্য বই থেকে শুরু করে গল্প, উপন্যাস, কবিতা, বিদেশী সাহিত্য সব ধরণেই পুরনো বই পাবেন আপনি। একটা নতুন বইয়ে যা থাকবে তা পুরনো বইতেও থাকবে। অথচ পুরনো বই এর দাম নতুন বই থেকে অনেক কম। অবশ্য যারা বই সাজানোর জন্য কিনবের তাদের কথা আলাদা। জ্ঞান অর্জন পড়াশুনা করার জন্য পুরানো বই হচ্ছে সেরা পছন্দ।

৩. গাড়ী
গাড়ী উচ্চবিত্তের বিলাসীতা। আপনি হয়তো একটি গাড়ী কেনার কথা ভাবছেন। বাজেট কম। নতুন গাড়ী কেনা সম্ভব হচ্ছে না। চিন্তা না করে কিনে ফেলুন পুরনো মডেলের কোন গাড়ী। সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ী কিনলে আপনি ঠকবেন না বরং বাঁচবে আপনার অনেকগুলো টাকা। তবে কেনার আগে অবশ্যই ইঞ্জিন ঠিক আছে কিনা দেখে কিনবেন।

৪. অফিস ফার্নিচার
অফিস ফার্নিচার সেকেন্ড হ্যান্ড হিসাবে কেনা অত্যন্ত লাভজনক এবং সাশ্রয়ী। সাধারণ বড় প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়মিত অফিস সাজ সোজ্জা ফার্নিচার পরিবর্তন করে। পুরনো ফার্নিচার বিক্রি করে দেয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় অফিস পরিসর বড় করার জন্য পুরনো ফার্নিচার বিক্রি করে দেন। এই অবস্থায় আপনি যদি চান অফিসের ব্যয় সংকোচন করবেন তবে অফিসের জন্য পুরনো ফার্নিচারই কিনতে পারবেন। এবং এই ধরণের অফিস ফার্নিচারগুলো ভালো গুণগত মানেরই হয়।

৫. পোষা প্রাণী
অনেকের বিভিন্ন প্রাণী পোষার শখ থাকে। কেও হয়তো বিড়াল পোষেন, কেও হয়তো কুকুর, আবার কেও হয়তো কবুতর। নতুন হিসাবে দোকান থেকে এই পোষাপ্রাণী কেনা অনেক সময়ই সাধ্যেই বাইরে থাকে। আপনার যদি কোন কিছু পোষার থাকে খোঁজ রাখতে পারেন অনেক সময়ই পোষা প্রাণী অনেকেই নানা কারণে বিক্রি করে দেন। পোষা প্রাণী নতুন দোকান থেকে কিনুন আর মালিক এর কাছ থেকে কিনুন একই জিনিসই পাবেন। অথচ আপনার খরচের পরিমাণ যাবে কমে।

৬. সিডি-ডিভিডি
নতুন সিডি-ডিভিডি কেনা চরম বোকামী। এই যুগে একটা সিডি-ডিভিডি সহজেই কপি করে রেখে দেয়া যায়। সিনেমা, গান, গেমস এর সিডি-ডিভিডি আপনি চাইলে অবশ্যই সেকেন্ড হ্যান্ড কিনতে পারেন। আপনার টাকাও বাঁচবে আবার যা চাচ্ছেন তাও পাবেন।

৭. বাড়ী
মধ্যবিত্ত পরিবারের অনেকরই স্বপ্ন থাকে একটি বাড়ীর। অনেক নতুন ফ্লাট কিনেন। তবে সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ হচ্ছে পুরানো বাড়ী কেনা। পুরানো বাড়ী কিনে কেও ঠকে না।

৮. অলংকার
অলংকার নারীর প্রিয় পছন্দ। তাদের আভিজাত্য প্রকাশ পায় যেন অলংকারে। কম টাকায় ভালো অলংকার পেলে আপনার ক্ষতি নেই। স্বর্ণের অলংকার গহনা কখনো পুরনো হয় না।

৯. বাদ্য যন্ত্র
বাদ্য যন্ত্র অনেক ধরণের হয়ে থাকে। উঠতি বয়েসের অনেকে নিত্য নতুন বাদ্য যন্ত্র কিনেন আবার বিক্রিও করে দেন। পুরনো হিসাবে বাদ্যযন্ত্র কেনাটা ক্ষতির কিছু না। কিছু ব্যতিক্রম ছাড়া নতুন বাদ্য যন্ত্র আর পুরানো বাদ্য যন্ত্র একই ধরণের কাজ দিয়ে থাকে।

১০. খেলাধুলা উপকরণ
সেকেন্ড হ্যান্ড খেলাধুলা উপকরণ কেনা যেতে পারে। তবে কেনার আগে টেকসই কিনা খেয়াল করে কিনতে হবে।

১১. ভারোত্তোলন যন্ত্রপাতি
সচেতন মানুষ মাত্রই তার দেহ নিয়ে চিন্তা করেন নিয়মিত শরীর চর্চা করেন। যারা নিয়মিত শরীর চর্চা করেন তাদের ভারোত্তোলন যন্ত্রপাতি প্রয়োজন হয়। ভারোত্তোলন যন্ত্রপাতি খুব একটা নষ্ট হয় না। একমাত্র মরিচা ছাড়া আর সবই ঠিক থাকে। ভারোত্তোল যন্ত্রপাতি অবশ্যই কিনতে পারেন সেকেন্ড হ্যান্ড।

১২. হ্যান্‌ড টুলস
ঘরে গৃহস্থালী কাজ করার জন্য প্রয়োজন হয় নানা ধরণের ছোট খাট যন্ত্রপাতি। যেমন: স্ক্রু ড্রাইভার, প্লায়ার্স, টেস্টার ইত্যাদি। সেকেন্ড হিসাবে এগুলো অবশ্যই সংরক্ষণে রাখতে পারেন।

তথ্যসূত্র: বিজনেস ইনসাইডার

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx