‘ছবির প্রতিচ্ছবি’ টেলিফিল্মের ব্যাপক কদর!

চ্যানেল আইয়ের পর্দায় প্রচারিত হয় ‘ছবির প্রতিচ্ছবি’ টেলিফিল্মটি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কোনো টেলিফিল্ম এতো জনপ্রিয় হতে পারে তা আগে বোঝা যায়নি। ইউটিউব পেজে আপলোড করার পর ‘ছবির প্রতিচ্ছবি’ টেলিফিল্মটি ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

৯ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বিকাল ৩.০৫ মিনিটে চ্যানেল আইয়ের পর্দায় প্রচারিত হয় ‘ছবির প্রতিচ্ছবি’ টেলিফিল্মটি। এরপর ১০ ফেব্রুয়ারি চ্যানেল আইয়ের ইউটিউব পেজে আপলোড করা হয় ‘ছবির প্রতিচ্ছবি’। আপলোডের পর মাত্র কয়েক দিনেই পাঁচ লাখ ছাড়াতে চলেছে এই টেলিফিল্মটি।

কাহিনীটি ছিলো এমন: বিখ্যাত ব্যবসায়ী গুলজার খানের নাতনি হলো নৈঋত (জেসিয়া)। গুলজার সাহেব মৃত্যুর পূর্বেই তার এই বিশাল অর্থ-সম্পদ, ব্যবসা-বাণিজ্য সবকিছুর মালিকানা করে দেয় তার একমাত্র প্রবাসী নাতনীকে। যা প্রাপ্তবয়স্ক হওয়া মাত্রই হস্তান্তর হয়ে যাবে তার নামে। নৈঋতের বয়স বর্তমানে ১৮। পড়ালেখা শেষ করে নিউইয়র্ক হতে এই প্রথমবার বাংলাদেশে আসছেন নৈঋত।

বাবা এবং দাদার ছোট্ট অভিমানে তাদের সম্পর্কের দূরত্বটা তৈরি হয়েছিলো বহু বছর পূর্বে। তাইতো জন্মের পর কখনও বাংলাদেশেই আসতে পারেননি তিনি, এমনকি দাদার সঙ্গে কথা বলার সৌভাগ্যও হয়নি তার। দাদা গুলজার সাহেব নৈঋতের পছন্দের সকল বিষয়াদি সাজিয়ে গুছিয়ে রেখেছিলেন তার জন্যই, যা দেখে রীতিমত অবাক হয়ে যান নৈঋত। পুরনো এ্যালবামে দাদার যৌবনকালের কিছু ছবি দেখতে পান নৈঋত। হঠাৎ একদিন তিনি দাদার ওই যৌবনকালের ছবির মতন হুবহু এক মুখ রেস্টুরেন্টে দেখতে পান!

এরপর নৈঋত দাদার বহু পুরনো ছবির সঙ্গে সালমানের চেহারার মিলের কথা খুলে বলেন সালমানকে। তবে সালমান তার ইউটিউবে বানানো গল্পের মতোই বানোয়াট গল্প ভেবে হেসে উড়িয়ে দেন বিষয়টিকে। যখন স্বচক্ষে সালমান নিজের ছবি নৈঋতের দাদার এ্যালবামে দেখেন তখন সত্যিই চমকে ওঠেন তিনি। সালমানের রঙ্গিন জীবনে হঠাৎ এই উদ্ভট গল্পটি তাকে ভাবিয়ে তোলে ভীষণভাবে। এভাবেই গল্পটি এগোতে থাকে টেলিফিল্মটির।

‘ছবির প্রতিচ্ছবি’ রচনা করেছেন আবদুল্লাহ জহির বাবু, আর নির্মাণ করছেন ফয়েজ আহমেদ রেজা। সালমান-জেসিয়া ছাড়াও অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত, কাজী উজ্জল, বাদল প্রমুখ অভিনয় শিল্পী।

দেখুন ভিডিওটি

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...