The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

সিএমএইচ থেকে ফিরে জাফর ইকবাল বললেন: আমি কোরআন শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েছি

মৃত্যুর দ্বার হতে ফিরে এসেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ তাঁকে নিয়ে ভুল ধারণা পোষণ করছেন কতিপয় ব্যক্তি। আর সে কারণেই তাঁর উপর এমন বর্বরোচিত হামলা করা হয়। তাই সিএমএইচ থেকে ফিরে জাফর ইকবাল বললেন, আমি কোরআন শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েছি।

সিএমএইচ থেকে ফিরে জাফর ইকবাল বললেন: আমি কোরআন শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েছি 1

তাঁকে নিয়ে ভুল ধারণা পোষণ করছেন কতিপয় ব্যক্তি। আর সে কারণেই তাঁর উপর এমন বর্বরোচিত হামলা করা হয়। তাই হাসপাতাল থেকে ফিরে জাফর ইকবাল বললেন, আমি কোরআন শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েছি। এগারদিন পূর্বে যে জায়গায় ছুরিকাহত হন, ঠিক সেখানে দাঁড়িয়েই তিনি কথা বললেন। সেইসঙ্গে তিনি ক্ষমাও করে দিলেন যিনি তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ছু্রি মেরেছিলেন সেই ফয়জুলকে! বললেন অনেক আশার কথা। তরুণরা যাতে বিপথগামী না হয় সে কথাও বলেছেন ড. জাফর ইকবাল।

মৃত্যুর দ্বার হতে ফিরে এসেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। ঢাকার সিএমএইচ ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসাধীন থাকার পর রিলিজ পেয়েই প্রথমেই ছুটে গেছেন সবুজে ঘেরা শাবি ক্যাম্পাসে। কথা বলেছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলের সঙ্গে। তাঁর জন্য অধীর আগ্রহে ছিলো পুরো বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার। ড. জাফর ইকবালও যেনো শাবিতে ফিরে এসে প্রশান্তি অনুভব করলেন। কারণ এখানকার শিক্ষার্থীরা যেনো তাঁর প্রাণ।

গতকাল (বুধবার) বেলা ১২টা ৪৬ মিনিটে নভোএয়ারের একটি ফ্লাইটে সিলেট এমএজি ওসমানী বিমানবন্দরে পৌঁছান ড. জাফর ইকবাল। এই সময় তাঁর সঙ্গে স্ত্রী অধ্যাপক ড. ইয়াসমিন হক এবং তাঁর মেয়ে ইয়েশিম ইকবালসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন। বিমানবন্দরে তাঁকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন শাবি ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ। এই সময় কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাসসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন। তারপর এয়ারপোর্ট হতে সোজা শিক্ষক কোয়ার্টারে নিজ বাসভবনে পৌঁছান ড. ইকবাল। কোয়ার্টারে গাড়ি হতে নেমে রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হক এবং সাবেক প্রধান মেডিকেল অফিসার ড. মাহবুবুর রহমানের সঙ্গে কিছু সময় কুশল বিনিময় করেন।

এরপর তিনি বলেন, আমি জানতাম না দেশের মানুষ আমাকে এতোটা ভালোবাসে। এই আঘাত না পেলে বিষয়টি আমার সত্যিই অজানা থাকতো।

তারপর বিকাল ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে যে স্থানটিতে হামলার শিকার হয়েছিলেন সে স্থানেই দাড়িয়ে সব শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীর উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন তিনি।

সেখারকার মুক্তমঞ্চে ‘সাদাসিধে কথা- জাফর স্যার ও আমরা’ শিরোনামে এই আয়োজনে আরও বক্তব্য রাখেন শিক্ষার্থী, শিক্ষক, সাংবাদিকসহ অনেকেই। এ সময় ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিলো চোখে পড়ার মতো। পুলিশ প্রশাসনের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের পক্ষ হতেও পৃথক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়।

এই সময় ড. জাফর ইকবালের কাছে শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে জাফর ইকবালের উদ্দেশ্যে লেখা বিভিন্ন চিঠি ও শিক্ষার্থীদের আঁকা বিভিন্ন ছবি তুলে দেওয়া হয়। এরপর তিনি তার বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন।

বক্তব্যে ড. জাফর ইকবাল বলেন, আমি আমার পাশে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। কারো প্রতি তার কোনো ধরনের ক্ষোভ নেই জানিয়ে তিনি বলেন, আমি মৃত্যুর খুব কাছ থেকে ফিরে এসেছি। তিনি আরও বলেন, আমি পবিত্র কুরআন শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত খুবই ভালোভাবেই পড়েছি।

এর পূর্বে তার স্ত্রী ড. ইয়াসমিন বলেন, ‘ জাফরকে নাস্তিক হিসেবে যারা অভিহিত করে তারা আসলে তার সম্পর্কে খুব বেশি একটা কিছু জানে না। এমনকি জাফরের দুইশত বইয়ের কোনোটাতেই ইসলাম বিরোধী কোনো কথায় নেই।’

এ সময় বক্তব্য চলাকালে ড. ইকবাল কুরআন মাজীদের একটি আয়াতের (৫/৩২) কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘আল্লাহ বলেছেন- যে লোক অপর একজনকে হত্যা করে সে যেনো পুরো মানবজাতিকেই হত্যা করলো।’ এই সময় তাকে বাঁচানোর জন্য সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান।

ড. জাফর ইকবাল তরুণদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘তোমরা পিতামাতার যে স্বপ্ন নিয়ে এখানে পড়তে এসেছো তা কখনও নষ্ট করে দিয়ো না। এই সময় তরুণদেরকে বিপথগামী না হওয়ারও আহ্বান জানান।

তাঁকে ছুরিকাঘাতকারী ফয়জুলের প্রতি তার কোনো ক্ষোভ নেই বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, নিশ্চয়ই ওই ছেলেটিকে কেও না কেও ভুল বুঝিয়েছে যার পরিপ্রেক্ষিতে সে এই কাজটি করেছে। ড. ইকবাল বলেন, আল্লাহ আমাকে নিশ্চয়ই কোনো ভালো কাজ করার জন্যই আবার ফেরত পাঠিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ৩ মার্চ বিকালে ইইই ফেস্টিভাল চলাকালীন সময় ছুরিকাহত হন ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবাল। ওইদিন রাত থেকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ড. জাফর ইকবারের উপর এহেন হামলায় পুরো দেশ প্রতিবাদে ফেটে পড়ে। বুধবারই তাকে হাসপাতাল হতে রিলিজ দেওয়া হলে তিনি সিলেট ফিরে আসনে।

Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx