The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

জাপানের ঐতিহাসিক ‘কোবে মসজিদ’

বৌদ্ধ ধর্মের সংখ্যাধিক্যের দেশ হলেও জাপানে প্রায় লক্ষাধিক মুসলমানের বসবাস

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুভ সকাল। শুক্রবার, ১১ মে ২০১৮ খৃস্টাব্দ, ২৮ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ২৪ শাবান ১৪৩৯ হিজরি। দি ঢাকা টাইমস্ -এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভ সকাল। আজ যাদের জন্মদিন তাদের সকলকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শুভ জন্মদিন।

জাপানের ঐতিহাসিক ‘কোবে মসজিদ’ 1

যে ছবিটি আপনারা দেখছেন সেটি জাপানের প্রথম ইসলামিক ঐতিহাসিক স্থাপনা হিসেবে খ্যাত ‘কোবে মসজিদ’। এই মসজিদটি ইতিহাসের স্বাক্ষী বহন করছে।

আমরা জানি কারিগরি শিল্পে উন্নত প্রযক্তির দেশ হলো জাপান। বৌদ্ধ ধর্মের সংখ্যাধিক্যের দেশ হলেও সেখানে প্রায় লক্ষাধিক মুসলমানের বসবাস। এই মুসলমানদের মধ্যে আবার ১০ শতাংশ মানুষ জাপানি বংশোদ্ভূত।

এক তথ্যে বলা হয়েছে, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর জাপানের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ধর্মীয় শিক্ষা নিষিদ্ধ করা হলেও সেখানে ইসলামের ইতিহাস ও ঐতিহ্যর বিষয়টি নতুন নয়। জাপানের সঙ্গে মুসলিম বিশ্বের সম্পর্ক গড়ে ওঠে ১৮৮৬ সালের দিকে।

জাপানে ইসলামের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও মসজিদ স্থাপনা সম্পর্কে অনেকেরই কোনো ধারণা নেই। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে জাপানের সৈন্যবাহিনী বিভিন্ন মুসলিম দেশেও অবস্থান করে। সে সময়টিতে তারা ইসলামের সৌন্দর্য এবং জীবন ব্যবস্থা দেখে ইসলামের প্রতি আগ্রহী হয়।

সেই সময় জাপানের এক সেনাপ্রধান ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। তার নাম ওমর বোকেনা। তিনি জাপান ফিরেই ইসলাম গ্রহণের ঘোষণা দেন। চায়নিজ মুসলমানরাও জাপান স্থানান্তরিত হয়েও সে অঞ্চলে ইসলামের প্রচার ও প্রসারে বিশেষ ভূমিকা রাখে। দিন দিন বাড়তে থাকে মুসলিমানদের সংখ্যা। এভাবেই সেখানে গড়ে ওঠে মসজিদ। জাপানের এই ঐতিহাসিক ‘কোবে মসজিদ’ ইতিহাসের স্বাক্ষী বহন করছে।

ছবি ও তথ্য: www.jagonews24.com এর সৌজন্যে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...