মালদ্বীপে পানির নিচে বিস্ময়কর হোটেল

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ বিজ্ঞানের কল্প-কাহিনীকেও হার মানিয়ে এবার হোটেল হবে সমুদ্রের পানির নিচে। সম্প্রতি মালদ্বীপে এরূপ হোটেল নির্মাণের পরিকল্পনা চলছে। এ বিষয়ে পোলিশ আর্কিটেকচারাল এবং ডিপ-সি ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি ডিপ ওসেন টেকনোলজি (DOT) সম্প্রতি চুক্তি করেছে রিজউড হোটেল এন্ড স্যুট প্রাইভেট লিমিটেড এর সাথে। পানির নিচে হোটেল এটাই প্রথম নয়। এর আগে অনেক হোটেল নির্মাণ করা হলেও মালদ্বীপে নির্মিত হোটেলটি হবে সব চেয়ে বড় আন্ডার ওয়াটার হোটেল বা পানির তলদেশে হোটেল।


Water-Discus

সম্ভাব্য হোটেলটির আকৃতি হবে স্পেসশীপ এর ন্যায়। অনেকটা ফ্লাইং সসার বা ইউএফও (UFO) আকৃতির। সায়েন্স ফিকশন ঘরানার মুভি গুলোতে আমরা যেমনটি দেখতে পাই। চাকতি (Disk) আকৃতির হোটেল ডিজাইন দেখলে ভবিষ্যৎ কল্পকাহিনীর বিলাস বহুল হোটেল মনে হতে পারে। বিলাসবহুল হোটেলটি দুটি বিশাল ডিস্ক আকৃতির লাউঞ্জ নিয়ে গঠিত। এর একটি পানি থেকে সাত মিটার উপরে পাঁচ টি পিলার এর উপরে অবস্থিত। গ্লাস টানেল দিয়ে পানির তলদেশে অপরটি তে যাবার ব্যবস্থা আছে। উপরের ভাগে রেস্টুরেন্ট, স্পা করার ব্যবস্থা, হেলিকপ্টার ল্যান্ডিং প্যাড, বাগান রাখা হয়েছে। অতিথিরা উপর থেকে ভৌগোলিক আবহাওয়ার স্বাদ নিতে পারবেন আবার একই সাথে পানির তলদেশের বিচিত্র অভিজ্ঞতাও উপভোগ করতে পারবেন।

পানির তলদেশের ৩০ মিটার নিচের অংশটিকেই সবচেয়ে আকর্ষণীয় ধরা হচ্ছে। এখানে ২১ টি চলন উপযোগি শব্দপ্রতিরোধী কক্ষ তৈরি করা হবে। সাবমেরিন সদৃশ্য হোটেল বার থাকছে, বায়ুরোধী অংশ থেকে যে কেও সমুদ্রে ঝাঁপ দিতে পারবে। গভীর সমুদ্রে বেড়ানোর জন্য বা অনুসন্ধান এর জন্য থাকছে তিন জন যাত্রী বিশিষ্ট বিশেষ যান। এছাড়া মোটর বোট, ওয়াটার স্কিইং, জেট স্কিস এবং আন্ডার ওয়াটার স্কুটার থাকবে।

Water-Discus-9

পোলিশ ডেভেলোপার কোম্পানিটি ইতোমধ্যে মালদ্বীপ জাতীয় পর্যটন মন্ত্রণালয় এর অনুমোদন পেয়েছে। হোটেল নির্মাণ কবে শুরু হবে কিংবা কখন হোটেল কার্যক্রম শুরু হতে পারে এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষ কোন তথ্য জানায় নি। বলা হচ্ছে খুব দ্রুত এর নিমার্ণ প্রক্রিয়া শুরু হবে। ধারণা করা হচ্ছে এ বছরই নির্মাণ কার্যক্রম শুরু হতে পারে।

তথ্যসূত্র: দি টেক জার্নাল

Advertisements
Loading...