ভারতের লোকসভায় অনাস্থা প্রস্তাবে তৃণমূল

আগামীকাল (শুক্রবার) লোকসভায় এই প্রস্তাবের পক্ষে বিপক্ষে ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভারতের লোকসভায় অনাস্থা প্রস্তাবে এসেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর নেতৃত্বাধীন তৃণমূল। অনাস্থা প্রস্তাবে হাজির থাকার জন্য ৩৪ জন তৃণমূল এমপিকে নির্দেশ জারি করেছেন মমতা।

আগামীকাল (শুক্রবার) লোকসভায় এই প্রস্তাবের পক্ষে বিপক্ষে ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হবে বলে জানানো হয়েছে।শনিবার রয়েছে কোলকাতায় তৃণমূলের শহিদ দিবসের জনসভা। শুক্রবার অনেক রাত পর্যন্ত লোকসভায় অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা ও ভোটাভুটি চললে ২১ জুলাইয়ের অনুষ্ঠানে পৌঁছাতে সমস্যা হতে পারে। তারপরেও বিরোধী ঐক্যের স্বার্থে মমতা এই সিদ্ধান্ত নেন বলে তৃণমূল সূত্রে বলা হয়েছে।

তৃণমূল এমপিদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, শুক্রবার যতো রাতই হোক, চিন্তা করতে হবে না। ভোটাভুটি শেষ না হওয়া পর্যন্ত এমপিরা অধিবেশন ছেড়ে বেরোবেন না। প্রয়োজন পড়লে শনিবার ভোরের বিমানে কোলকাতা ফিরবেন।

তবে দলীয় সূত্র বলছে, অনাস্থা নিয়ে কংগ্রেসের সিদ্ধান্তে মমতা বেশ ক্ষুব্ধ। তৃণমূল নেত্রী মনে করেন, উনিশের ভোটের আগে এই অনাস্থা ভোটে লাভের চেয়ে ক্ষতিই হবে বেশি। কেনোনা লোকসভায় আসন সংখ্যার নিরিখে ভোটাভুটি হলে বলা যায় বিরোধীদের পরাজয় নিশ্চিত।গতকাল (বুধবার) নবান্নেও মমতা বলেছেন, ‘এটা প্রকৃতপক্ষে আসল অনাস্থা নয়। ৭/৮ মাস পর আসল অনাস্থা আনবে জনগণ। সংসদের ভিতরে ওদের সংখ্যা রয়েছে, বাইরে নেই। বৃহত্তর স্বার্থে আমরা থাকবো।’

গতকাল লোকসভায় অনাস্থা প্রস্তাবটি আনার সময় হাজির ছিলেন তৃণমূলের সৌগত রায়, দীনেশ ত্রিবেদী এবং অনুপম হাজরা। স্পিকার এই প্রস্তাব মেনে শুক্রবারই ভোটাভুটির দিন ধার্য করেছেন। অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে আলোচনায় মোদী সরকারের সমালোচনার সুযোগ পাওয়া যাবে বলে মনে করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মূলত সেটি কাজে লাগানোর নির্দেশ দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Advertisements
Loading...