শব্দ দূষণ থেকে সংগীত তৈরি হবে এবার

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ রাস্তায় পাবলিক জায়গাগুলোতে শব্দ দূষণ বেড়েই চলছে। গাড়ীর শব্দ, হর্ন, মানুষ জনের চিৎকার চেচামেচি এসব এলাকার পরিবেশ থাকে অসহনীয়। অপ্রয়োজনীয় শব্দগুলো যন্ত্রণাদায়ক এবং আপনার কার্ম ক্ষেত্রে মন্দ প্রভাব তৈরি করে। যদি এমন হতো এই যন্ত্রণাদায়ক শব্দগুলো থেকে সংগীত তৈরি হত আর চারপাশ এর পরিবেশ কে রাখতো সংগীত ময়? হ্যাঁ ঠিক এমনটাই তৈরি করেছে এক শিল্পী নাম তার মার্ক ডে প্যাপি। চাইম নামে একটি সেন্সর তিনি করেছেন যা প্রকৃত পক্ষে যে কোন শব্দকে সংগীতে রূপান্তর করতে সক্ষম।


The-Chime

চাইম নামে সেন্সরটি পরিবেশ থেকে শব্দ গ্রহণ করে রূপান্তর ঘটিয়ে সংগীত আকারে পরিবেশে ছেড়ে দিবে। এর তৈরি কারক শিল্পী মার্ক ডে প্যাপি পরিবেশ এবং যন্ত্রর মধ্যেকার চমৎকার সম্পর্ক কে কাজে লাগিয়ে সেন্সর টি তৈরি করেছেন। চাইম মূলত ১৮ টি সেন্সর এর সমন্বয়ে গঠিত ২৭ টি প্যারামিটার এর সন্নিবেশ ঘটানো হয়েছে এতে। পরিবেশের নিয়মিত শব্দগুলো এর ভেতরে প্রবাহিত হয়ে নতুন শব্দে রূপান্তির হবে যা সংগীত এর মতই শোনাবে। নির্মাতা মনে করেন, চারপাশের নানা কোলাহলের মাঝে এভাবে নির্মিত সংগীত মানুষদের প্রশান্তি দিবে।

রাস্তার সৃষ্ট নানা অপ্রয়োজনীয় শব্দ নানা ধরণের সমস্যা তৈরির জন্য দায়ী। গাড়ীর হর্ণ, মানুষের কথাবার্তা-চিৎকার, ক্রেতা-বিক্রেতার দর কষাকষি সব কিছু একত্রিত হয়ে এক অসহনীয় অবস্থার তৈরি করে প্রতিনিয়ত আমাদের নগর জীবনে। জ্যাম, কালো ধুয়া, ধূলাবালি-র মিশিলে চারপাশের পরিবেশ প্রতিদিনই খারাপ থাকে। আর সেখানে একটু সংগীত হয়তো পারবে কিছুটা প্রশান্তি এনে দিতে। প্যাপি’র নির্মিত চাইম পরিবেশ এর অপ্রয়োজনীয় শব্দ কে রূপান্তিরত করবে সংগীতে আর সেটা মানুষের ক্লান্তি কিছুটা হলেও লাঘব করবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

বিস্তারিত নিচের ভিডিও তে দেখুন:

তথ্যসূত্র: দি টেক জার্নাল

Advertisements
Loading...