অল্প বাজেটে ঘুরে আসুন মানালি, লাদাখ

এটা কোন লাক্সারিয়াস ট্যুর প্ল্যান নয়, বাজেট কম কিন্তু কষ্ট বেশি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ছাত্রাবস্থায় অনেকের খুব বেশি বাজেট থাকে না ঘুরার জন্য। কিন্তু অনেকে একটু কষ্ট করে হলেও ব্যাকপ্যাকিং স্টাইলে ঘুরে আসতে চান দেশ, এবং পাশের দেশের দর্শনীয় স্থানগুলো। মানালি লাদাখ ভ্রমণ ,তেমনই একটি ট্যুর প্ল্যান শেয়ার করছি। এটা কোন লাক্সারিয়াস ট্যুর প্ল্যান নয়। বাজেট কম কিন্তু কষ্ট বেশি।

দেশের বাইরে যাবেন আর পাসপোর্ট- ভিসা তো লাগবেই। ভারতীয় ভিসা আবেদনের জন্য ভিজিট করুন। ভিসা ফি ৮০০/ টাকা।

ঢাকা থেকে বেনাপোল নন এসি বাস ভাড়া ৫০০/। সকালে ইমিগ্রেশনে জ্যাম কম থাকে। তাই তাড়াতাড়ি ৫০০/ট্রাভেল ট্যাক্স দিয়ে বর্ডার পার হয়ে যান। কাস্টমস অফিসার এক্সট্রা টাকা চাইলেও না দেয়ার চেষ্টা করুন। ১০০-১৫০ রুপি দিয়ে ভারতীয় সিম কিনে নিন। ৩০ রুপি দিয়ে চলে যান বনগাঁ ট্রেন স্টেশন। ২০ রুপি দিয়ে টিকেট কেটে চলে যান শেয়ালদাহ। সকালের ট্রেনে ভীড় বেশি থাকে। শেয়ালদাহ-হাওড়া বাস ভাড়া ৮ রুপি।

হাওড়া থেকে দিল্লীর পূর্বা ট্রেনের স্লিপার টিকেট ৯০০/ রুপি। খাওয়া দাওয়া ট্রেনেই। ট্রেনের টিকেট আগে থেকে কাটলে কম লাগে। দিল্লী থেকে নন এসি মানালি বাসের টিকেট ৬০০ রুপি। মানালিতে কিছু বাঙ্গালি হোটেল আছে সস্তায়। হোটেল চন্দন, নীলকমল ৪০০ রুপি দিয়ে ২ জন থাকা যাবে। মানালিতে ঘুরতে পারেন সোলাং ভ্যালি লোকাল বাসে । প্যারাগ্লাইডিং, ক্যাবল রাইড করতে পারেন। খাবার নন ভেজ থালি ৮০-১২০ রুপি। ভেজ থালি ৫০-৭০ রুপি। মানালি থেকে লেহ এর নন এসি বাস ভাড়া ৮০০ রুপি। মাঝখানে ১ রাত কেলং এ যাত্রা বিরতি আছে। লেহ লাদাখ যাওয়ার পথে রোথাং পাস সহ আরো ৫ টি মাউন্টেইন পাস পড়বে। শীতের কাপড় চাইলে মানালি থেকে ভাড়া নিতে পারেন।

লেহ লাদাখ গিয়ে প্রচুর হোম স্টে আছে থাকার জন্য ২০০-২৫০ রুপির মধ্যে। পার্মিশনের জন্য লাগবে ৬০০ রুপি লাদাখ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট অফিস থেকে। লাদাখে ঘুরতে পারেন প্যাংগং লেক, চাংলা পাস, খারদুংলা পাস, নুব্রাভ্যালি।

লেহ ডে ট্রিপ গাড়ীতে ১৫০০-১৭০০ রুপি নেয়, গাড়ী চার বা ছয় সিটের হয়,সে হিসাবে ভাগ করে, তেমনি লেহ থেকে তুরতুক, নুব্রা ভ্যালি ও প্যানগং লেক যাওয়ার জন্য পার হেড ২৫০০-৩৫০০ রুপি পরে,হোম স্টে কে দু বেলা খাবার সহ পার হেড ৫০০-৬০০ রুপি পরে,নুব্রাতে ক্যামেল সাফারী ৩০০-৫০০ রুপি লাগে, এ ছাড়া অন্য বেলায় খাবার ১০০-১৫০ রুপিতে হয়ে যায়।
গ্রুপ করে না যেতে পারলেও ওখানে শেয়ারড টাক্সি, মোটর বাইক পাওয়া যায়।

    • মানালি-লেহ লাদাখ রাস্তা বন্ধ থাকে বছরের প্রায় ৬-৮ মাস। এপ্রিল-সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভাল সময়। কলকাতা থেকে লেহ ট্রেন + বাস ভাড়া আসা যাওয়া- ৯০০+১৪০০+১৪০০+৯০০=৪৬০০ রুপি ,মানালি দুই রাত ও লেহ ৩ রাত থাকা=১০০০রুপি, খাবার প্রতিদিন ২৩০ রুপি= ২৩০০ রুপি
    • এই বাজেট শুধু বেসিক ট্যুরের। কোন এডভেঞ্চার এক্টিভিটিস / বাড়তি জায়গায় যেতে চাইলে খরচ বাড়তে পারে।
    • মানালি-লেহ রুটে ৫ টা হাই অল্টিচিউড মাউন্টেইন পাস আছে । তাই উচ্চতাজনিত সমস্যার জন্য সতর্ক থাকবেন।
    • এইখানে আমি ১০-১২ দিনের কোন প্যাকেজ ট্যুরের কথা বলিনি। প্রতিদিনের খরচ আর কিভাবে কম খরচে ভ্রমণ করা যায় তার বিবরণ দিয়েছি। এইবার আপনারা মিলিয়ে নিতে পারেন কয়দিন থাকবেন, সেই হিসেবে বাজেট করুন।

 

যাতায়াতের সময়:

    • ঢাকা-বেনাপোল বাস (৮-১২ঘন্টা) ফেরীতে জ্যাম লাগলে বেশীও লাগতে পারে।
    • বেনাপোল-বনগা ট্রেন স্টেশন (৩০-৪০ মিনিট)
    • বনগা-শেয়ালদাহ(২ঘন্টা)
    • হাওড়া-দিল্লী(২৪-৩০ ঘন্টা)
    • দিল্লী-মানালী(১২-১৫ ঘন্টা)
    • মানালী-কেলং(৮-১৫ ঘন্টা)
    • কেলং-লেহ(১২ ঘন্টা)

      (যারা আরামপ্রিয়/কষ্ট করতে পছন্দ করেন না, আপনাদের জন্য এই ট্যুর প্ল্যান না)

    • কলকাতা-দিল্লী বাই এয়ার ২ ঘন্টা
    • দিল্লী-লেহ লাদাখ বাই এয়ার ২ ঘন্টা।

বিঃদ্রঃ যেখানে সেখানে ময়লা ফেলবেন না। নির্দিষ্ট স্থানে পানির বোতল,চিপসের প্যাকেট ফেলুন। মনে রাখবেন আপনি বাংলাদেশের একজন প্রতিনিধি। আপনার আচরণে দেশের ভাবমূর্তি খারাপ হোক সেটা নিশ্চয়ই চাইবেন না।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...