অক্ষত অবস্থায় ২৪০০ বছরের পুরোনো জাহাজ উদ্ধার!

গবেষকরা ধারণা করছেন, পানির এতো নিচে অক্সিজেনের সরবরাহ না থাকার কারণে যুগের পর যুগ এই জাহাজটি অক্ষত অবস্থায় ছিল

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রাচীন গ্রীসের একটি বাণিজ্যিক জাহাজ বুলগেরিয়ান উপকূলে কৃষ্ণ সাগরে নীচে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত জাহাজটি ২৪০০ বছরের পুরোনো।

আল জাজিরার এক খবরে বলা হয়েছে, গবেষকরা এই জাহাজটিকে বিশ্বের প্রাচীনতম জাহাজ হিসাবে অভিহিত করেছেন। তাদের ধারণা মতে, এই জাহাজটি অন্ততপক্ষে ২৪০০ বছর পূর্বের। ‘ব্রিটিশ-লেড ব্ল্যাক সি মেরিটাইম আরকিউলজি প্রজেক্টের’-এর পক্ষ হতে গত মঙ্গলবার এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এই গবেষক দলে ছিলেন ব্রিটিশ, সুইডিশ, বুলগেরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র ও গ্রিকের সমুদ্র বিষয়ক প্রত্নতাত্ত্বিক এবং সমুদ্র বিজ্ঞানীরা। তারা জাহাজটিকে প্রায় ২ কিলোমিটার পানির নিচে পেয়েছেন বলে জানানো হয়।

গবেষকরা ধারণা করছেন যে, পানির এতো নিচে অক্সিজেনের সরবরাহ না থাকার কারণে যুগের পর যুগ এই জাহাজটি অক্ষত অবস্থায় ছিল, জাহাজটির কোনো রকম ক্ষতিই হয়নি।

উদ্ধারকৃত জাহাজের পাশে এটির রাডার ও অন্যান্য যন্ত্রাংশ পাওয়া যায়। মনে করা হচ্ছে যে, তখন কৃষ্ণ সাগর উপকূলে বাণিজ্য উপকূল ছিল। আর এই জাহাজটি ছিল তখন গ্রিক উপনিবেশ আমলের।

উদ্ধারকৃত জাহাজের এমন একটি অংশ পাওয়া গেছে, যা সবার কাছেই জাহাজের সবেচেয়ে পুরাতন ধ্বংসাবেশস হিসেবে অধিক পরিচিত।

এই জাহাজ সম্পর্কে গবেষক দলের প্রধান তদন্তকারী ও ইংল্যান্ডের সাউথদাম্পটন ইউনিভার্সিটির প্রফেসর জন এ্যাডামস বলেছেন, ‘এই জাহাজটি উদ্ধারের কারণে প্রাচীন যুগের জাহাজ বিষয়ে আমাদের ধ্যান-ধারণায় বেশ পরিবর্তন আসবে। দু’কিলোমিটার পানির নিচে এতো দীর্ঘ বছর ধরে জাহাজটি অক্ষত অবস্থায় কিভাবে ছিল তা নিয়ে বেশ ভাবার বিষয় রয়েছে।’

গবেষকরা বিষয়টি নিয়ে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন। গবেষণা অব্যাহত থাকলে হয়তো সেইসব আমলের জাহাজ সম্পর্কে অনেক অজানা তথ্য জানা সম্ভব হবে।

Advertisements
Loading...