ভোট দিয়ে সেলফি তোলার অনুরোধ জানালেন নায়ক ফেরদৌস

তাদের এটা বোঝাতে হবে যে তোমার এক একটি ভোট অসম্ভব মূল্যবান হতে পারে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আর কদিন পরেই ভোট। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। ওই নির্বাচনে ভোট দিয়ে সেলফি তোলার অনুরোধ জানালেন নায়ক ফেরদৌস।

৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এ নির্বাচনকে ঘিরে চলছে নানা প্রচার-প্রচারণা। শোবিজ ভূবনের অনেকেই যুক্ত হয়েছেন প্রচারণার কাজে। ৩০ তারিখে সবার আগে ভোট দেবে এবং যে কালো দাগটি হাতে দেওয়া হয় সেটিসহ সেলফি তুলে তরুণদের ফেসবুকে পোস্ট করার আহ্বান জানিয়েছেন বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ। রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে সামাজিক সংগঠন ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ আয়োজিত এক সেমিনারে তিনি এই কথা বলেন।

তরুণ ভোটারদের ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ আরও বলেছেন, আমি টিনেজারদের বলি, তোমরা যখন একটি রেস্টুরেন্টে খেতে যাও, তখন ওই খাওয়ার একটা সেলফি তোলো, একটা পোস্ট দিয়ে দাও। আমি তোমাদের অনুরোধ করবো, ৩০ ডিসেম্বর তোমরা সবার আগে ভোট দেবে ও যে কালো দাগটি হাতে দেওয়া হয় সেটিসহ সেলফি তুলে পোস্ট করবে, অর্থাৎ ভোট উদযাপন করবে। সেটি হবে সেদিনের সবচেয়ে বড় একটি প্রচারণা।

ফেরদৌস আরও বলেন, আমরা জানি অনেক তরুণ ভোটার ভোট দিচ্ছেন এবছর। এই সংখ্যা ২ কোটিরও উপরে। যাদের অনেকের বয়সই ১৮-১৯ বছরের মধ্যে। অনেক টিনেজার আছেন যারা ভাবেন আমি একটি ভোট না দিলে কী-ই বা হবে। তবে তাদের এটা বোঝাতে হবে যে তোমার এক একটি ভোট অসম্ভব মূল্যবান হতে পারে। একেকটি অস্ত্রের মতোই। তোমার একটি ভোট পুরো দেশকে হয়তো পাল্টে দিতে পারে।

ফেরদৌস বলেন, এই ইয়াং ছেলে-মেয়েরা অনেক বেশি ইমোশনাল, অনেক বেশি লাজুক। তারা এখনও কোনো পক্ষেরই নয়। অনেকেই আছেন ৫০-৬০ বছর বয়সী। তারা অনেকেই তাদের মতো করে তাদের পক্ষ বেছে নেন। তবে তরুণরা তা করেননি। অনেক তরুণ ভোটার ভাবেন যে আমার বয়স ১৮ বা ১৯। আমি তো স্টুডেন্ট, আমি কেনোই বা ভোট দেবো। তাদের এটা বোঝাতে হবে যে, আগামী ৫ বছরে তাদের ভাগ্যের আমূল পরিবর্তন ঘটবে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...