The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

কোরআন মুখস্থ মাত্র ৩ বছরের শিশুর!

এই বিস্ময় শিশুর নাম জাহরা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সত্যিই এক বিস্ময়কর ব্যাপার। তবে এটিকে আল্লাহর কুদরত হিসেবেও নেওয়া যেতে পারে। মাত্র ৩ বছর বয়সী এক শিশু পবিত্র আল কোরআন মুখস্থ করেছেন!

কোরআন মুখস্থ মাত্র ৩ বছরের শিশুর! 1

এই বিস্ময়কর শিশুর নাম জাহরা। আজারবাইজানের ৩ বছরের ছোট্ট ফুটফুটে একটি শিশু। এতো কম বয়সেই মুখস্থ করেছে পবিত্র কোরআন শরীফ। যে কারণে সেই হচ্ছে দেশটির সবথেকে কনিষ্ঠ হাফেজ! তার এই ধরনের পারদর্শিতায় ইতিমধ্যে আজারবাইজানসহ বিশ্বজুড়ে সৃষ্টি হয়েছে আলোড়ন।

জাহরার পরিবার বসবাস করে আজারবাইজানের রাজধানী বাকুতে। এতো অল্প বয়সে কোরআনের হাফেজ হওয়ায় জাহরার মা জানান, জাহরা যখন তার গর্ভে তখন আমি বেশি বেশি কোরআন তেলাওয়াত করতাম। উচ্চস্বরের কুরআনের তেলাওয়াত খুব মনোযোগ সহকারে শুনতাম।

জাহরার জন্মের পর ছড়া বা কবিতার পরিবর্তে তাকে ঘুম পাড়াতে কুরআনের ছোট ছোট সুরাগুলো তেলাওয়াত করতেন বলেও জানান জাহরার মা।

জাহরার মা আরও বলেছেন, জাহরার বয়স যখন ১ বছর তখন থেকেই আমি লক্ষ্য করি, তার তেলাওয়াত করা ছোট ছোট সুরাগুলো তার সঙ্গে তেলাওয়াতের চেষ্টা করছে। মেয়ের এই আগ্রহ দেখে তিনি কুরআন তেলাওয়াত বাড়িয়ে দেন। এভাবেই ৩ বছর বয়সে কোনো শিক্ষক ছাড়াই আমার কাছ থেকে শুনে শুনে জাহরা পবিত্র কুরআন শরীফের ৩৭টি সুরা মুখস্থ করে ফেলে।

জাহরার কুরআন মুখস্থে তার মায়ের অবদানই সবথেকে বেশি। কারণ তার জন্মের আগে থেকে মায়ের নিয়মিত কোরআন তেলাওয়াত ও জন্মের পর ঘুম পাড়ানোর সময় কোরআনের অবিরাম তেলাওয়াতই জাহরাকে কুরআনের প্রতি আরও বেশি করে আগ্রহী করে তুলেছে।

Loading...