The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

আতঙ্কিত গৃহিণী: হঠাৎ রান্নাঘরের মেঝেতে কুমির!

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় রাত সাড়ে ৩টায় এমন একটি ঘটনা ঘটে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় রাত সাড়ে ৩টায় এমন একটি ঘটনা ঘটে। মাঝ রাতে হঠাৎ একটি রান্নাঘরের মেঝেতে ১১ফুট লম্বা এক কুমির এসে হাজির! আচমকা কুমির দেখে ওই ঘরে অবস্থানকারী নারী আতঙ্কিত হয়ে পরেন।

আতঙ্কিত গৃহিণী: হঠাৎ রান্নাঘরের মেঝেতে কুমির! 1

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় রাত সাড়ে ৩টায় এমন একটি ঘটনা ঘটে। মাঝ রাতে হঠাৎ একটি রান্নাঘরের মেঝেতে ১১ফুট লম্বা এক কুমির এসে হাজির! আচমকা কুমির দেখে ওই ঘরে অবস্থানকারী নারী আতঙ্কিত হয়ে পরেন।

মেরি উইসুচেন নামে ওই মার্কিন নারী রান্না ঘরে কিছু একটা পড়ে যাচ্ছে এমন শব্দ শুনে তার ঘুম ভেঙ্গে গিয়েছিলো। উঠে দেখতে গেলেন কী ঘটেছে, যা দেখলেন তা ছিল যেনো তারকাছে রীতিমতো দুঃস্বপ্নের চেয়েও বেশি।

তিনি দেখলেন রান্নাঘরের মেঝেতে চড়ে বেড়াচ্ছে ১১ফুট লম্বা একটি কুমির! বিশাল লেজের আঘাতে জিনিসপত্র উল্টেপাল্টে ফেলছে কুমিরটি, মাঝে মাঝেই যেনো ক্রদ্ধ হুঙ্কারও করছে!

তার আগেই কুমিরটি রান্নাঘরের জানালার কাঁচ ভেঙ্গে ফেলেছে। ভয়ে সঙ্গে সঙ্গে সেখান থেকে সরে যান মেরি। তবে হুশ হারাননি তিনি, তাই তিনি ফোন দেন ৯১১ এ, এরপর ফোন দেন পরিবেশ বিভাগেও।

ক্লিয়ারওয়াটার পুলিশ জানিয়েছে যে, কুমিরটি আসলে একটি পুরুষ কুমির। তাদের ধারণা কাছাকাছি কোনো কুমির প্রজনন কেন্দ্র বা চিড়িয়াখানা হতে হয়তো পালিয়ে এসেছে এই কুমিরটি। পরে স্থানীয় এক শিকারিকে খবর দিয়ে আনা হয়।

তিনি জালে আটকে কুমিরটিকে ধরে স্থানীয় একটি চিড়িয়াখানার পরীক্ষাগারে দিয়ে আসেন। তবে বেরিয়ে যাবার আগে কুমিরটি মেরির ওয়াইন র্যাক উল্টে ফেলে। কুমিরটি এক ঘণ্টার মতো ছিল মেরির বাড়িতে। তবে এই সময় কেও আহত হয়নি।

জানা গেছে, ফ্লোরিডায় বন্যপ্রাণী সুরক্ষায় কঠোর আইন থাকার কারণে প্রাণ সংশয় না হলে কেও প্রাণী হত্যা করতে পারেনা, যে কারণে সেখানে কুমিরের সংখ্যা গত কয়েক বছরে ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পেয়েছে।

সে কারণে প্রায়ই রাস্তাঘাটে ও মানুষের বাড়িতে উঠে আসে কুমির। ফ্লোরিডায় কেবল ২০১৮ সালেই ৮ হাজারের বেশি কুমির মানুষের বাড়িতে ঢুকে পড়ে।

এইসব কুমিরের আক্রমণে অনেক সময় মানুষের আহত কিংবা নিহত হওয়ার খবরও পাওয়া যায়। যদিও সে সংখ্যা আনুপাতিক হারে খুব একটা উদ্বেগজনক নয়।

বিবিসির এক খবরে বলা হয়, গতবছর জুন মাসে এক বাড়িতে কুমিরের আক্রমণে মারা যান এক নারী। ১৯৪৮ সাল হতে এই পর্যন্ত ফ্লোরিডায় কুমিরের আক্রমণে মাত্র ২২ জন মানুষ প্রাণ দিয়েছেন।

Loading...