The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

চুল পড়া সমস্যার সমাধান

আমরা আমাদের ত্বকের প্রতি যে যত্নশীল হয়ে থাকি তার অর্ধেক আমরা আমাদের চুলের প্রতি যত্নশীল হতে পারিনা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আমাদের সৌন্দর্যের একটি আবিচ্ছেদ্য অংশ হল চুল। চুল আমাদের সৌন্দর্যকে করে তোলে আরো আকর্ষিক। তবে আমাদের মধ্যে অনেকের চুল পড়া সমস্যা রয়েছে। চুল পড়া সমস্যার সমাধান জেনে নিন আজ।

চুল পড়া সমস্যার সমাধান 1

আমরা আমাদের ত্বকের প্রতি যে যত্নশীল হয়ে থাকি তার অর্ধেক আমরা আমাদের চুলের প্রতি যত্নশীল হতে পারিনা। যার ফলে আমাদের চুল হয় অবহেলিত। আর এই অবহেলার ফলেই আমরা হারাই আমাদের মূল্যবান চুল। আমরা অনেকেই আমাদের চুল পড়ে যাওয়া খেয়াল করিনা। যার ফলে আমাদের চুল পড়ার মাত্রা খুব বেড়ে যায় আর আমরা তখন হতাশ হয়ে পড়ি। আমাদের নানাবিধ কারনে চুল পড়ে থাকে, যদি আমাদের মাথায় রাসায়নিক অতিব মাত্রায় ব্যবহার করা হয়, যদি আমাদের মাথা ভেজা থাকে দীর্ঘ সময়, আমাদের চুলের যত্নে অবহেলা করা, বংশগত সমস্যা ইত্যাদি কারণে আমাদের চুল পরতে পারে। চুল পড়া সমস্যায় প্রায় আমরা সকলেই পড়ি আর তাতে আমাদের হতাশ হওয়ার কিছু নেই সঠিক ভাবে চুলের যত্ন নিলে অচিরেই আমরা আমাদের এই সৌন্দর্য বর্ধক চুলকে পড়ার হাত থেকে রক্ষা করতে পারবো। তাহলে আসুন জেনে নেয়া যাক চুল পড়া রোধের কিছু সহজ ও সাশ্রয়ী উপায়।

বাদামঃ বাদাম আমরা সকলেই খেয়ে থাকি। এটি আমাদের শরীরের সাথে সাথে আমাদের চুলের জন্যেও অনেক উপকারী একটি খাবার। সঠিক ভাবে নিয়মিত বাদাম খেলে আমাদের সারা বছর চুল ভাল থাকবে বলে ধারনা করা যায়। বাদামের মধ্যে রয়েছে স্বাস্থ্যকর চর্বি ও ফাইটোক্যামিক্যাল যা আমাদের চুল পড়া রোধে ভুমিকা পালন করে থাকে। এছাড়াও বাদামে প্রচুর মিনারেল, পপ্রোটিন, ভিটামিন, ফ্যাট ইত্যাদি খাদ্য গুনাগুণ আছে যা আমাদের চুলের মলিন ভাবকে দূর করে থাকে।
পেঁয়াজের রসঃ চুল পড়া রোধে পেঁয়াজের রস খুবি ভাল একটি প্রাকৃতিক পদ্ধতি। পেঁয়াজের রস ব্যবহারের ক্ষেত্রে আমাদের কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ভয় থাকে না। পেঁয়াজের রস শুধু চুল পড়া রোধ করে না সাথে সাথে নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করে। পেঁয়াজের রস ব্যবহারে আমাদের মাথার নানান সমস্যা যেমন খুশকি, ছত্রাক হওয়া ও অকালে চুল পেকে যাওয়া থেকেও আমাদেরকে রক্ষা করে থাকে। আমাদের অনেকের চুল অকালে ভেঙ্গে যায়, চুল পাতলা হয়ে যায় এসকল সমস্যাতেও আমরা পেঁয়াজের রস ব্যবহার করতে পারি।

গ্রিন টিঃ গরম পানিতে গ্রিন টির একটি টি ব্যাগ প্রথমে চুবিয়ে রাখতে হবে তারপর তা ঠাণ্ডা করে মাথায় ব্যবহার করতে হবে। এই পদ্ধতিতে নিয়মিত গ্রিন টির টি ব্যাগ ব্যবহার করলে আমাদের চুল পড়া অনেক দ্রুত কমে যাবে। চুলের গড়া শক্ত করার ক্ষেত্রে গ্রিন টি খুবি কার্যকারী ভুমিকা পালন করে থাকে।

পালং শাকঃ পালংশাক পুষ্টির উৎস হিসেবে আমাদের প্রায় সকলের খুবি পরিচিত একটি খাদ্য। পালংশাকে পুষ্টির পাশাপাশি রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা আমাদের চুলের জন্য খুবি উপকারী। এটিতে আয়রন পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম,ও ম্যাগনেসিয়ামের পাশাপাশি আরো পাওয়া যায় ওমেগা থ্রি ও ফ্যাটি এসিড যা আমাদের চুলের জন্য খুবি দরকারি।

এছাড়াও আমারা আমাদের চুলের পড়া রোধে ডিম ব্যবহার করতে পারি ডিমের প্রোটিন আমাদের চুলের জন্য খুবি উপকারী এছাড়া গাঁজর, আমলকী, জাম পাতা ইত্যাদি ব্যবহারে আমরা আমাদের হারান চুলকে খুব সহজেই ফিরে পেতে পারি। জাম পাতাকে নারকেল তেলের সাথে ভাল করে মিশাতে হবে তারপর তা গরম করে মাথায় ব্যবহার করতে হবে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...