The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

স্যামসাং এর দুই সংস্করণে নোট ১০

গ্যালাক্সি নোট ১০ ও নোট ১০ প্লাস দুই সংস্করণেই যোগ করা হয়েছে পূর্বের চেয়ে উন্নত স্টাইলাস পেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ স্যামসাং সম্প্রতি কার্যকরিতা এবং সৃজনশীলতাকে নতুন ধাপে নেওয়ার লক্ষ্যে নতুন গ্যালাক্সি নোট ১০ উন্মোচন করেছে। এই ডিভাইসটি উন্মোচন করা হয় দুটি সংস্করণে।

স্যামসাং এর দুই সংস্করণে নোট ১০ 1

গ্যালাক্সি নোট ১০ ও নোট ১০ প্লাস দুই সংস্করণেই যোগ করা হয়েছে পূর্বের চেয়ে উন্নত স্টাইলাস পেন। এতে গ্রাহকের স্টাইলাস ব্যবহারের অভিজ্ঞতা আরও অনেক ভালো হবে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে আইএএনএস।

গ্যালাক্সি নোট ১০-এর পর্দার মাপ ৬.৩ ইঞ্চি কিন্তু নোট ১০+ এর পর্দা ৬.৮ ইঞ্চি। তাছাড়াও নোট ১০-এর একটি ৫জি সংস্করণ উন্মোচন করেছে ইলেকট্রনিক পণ্য নির্মাতা দক্ষিণ কোরীয়ার এই খ্যাতিমান প্রতিষ্ঠানটি।

গ্যালাক্সি নোট ১০ এবং ১০ প্লাসের অনেক ফিচারেই মিলও রয়েছে। এখানে পার্থক্য করা হয়েছে ডিসপ্লে, ব্যাটারির আকার, র‍্যাম ও ক্যামেরার মধ্যে। এই স্মার্টফোন দুটিতে রয়েছে এফএইচডি+ পর্দা।

গ্যালাক্সি নোট ১০-এ আছে ৮ জিবি র‍্যাম, ২৫৬ জিবি স্টোরেজ এবং এলটিই সুবিধা । দক্ষিণ কোরিয়ার বাজারে ৫জি সমর্থিত একটি নোট ১০ সংস্করণে ১২ জিবি র‍্যাম ব্যবহৃত হবে বলেও জানানো হয়। তবে এই সংস্করণটিতে কোনো মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট রাখা হয়নি।

অপরদিকে নোট ১০ প্লাসে ১ টেরাবাইট পর্যন্ত মাইক্রোএসডি কার্ড সমর্থন পাওয়া যাবে বলে জানানো হয়েছে। এমনিতেই ২৫৬ জিবি কিংবা ৫১২ জিবি স্টোরেজ অপশনও পাবেন গ্রাহকরা।

নতুন গ্যালাক্সি নোট ১০-এর দুটি সংস্করণেই ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্রসেসর। গ্যালাক্সি নোট ১০-এর ব্যাটারির ক্ষমতা হলো ৩৫০০ এমএএইচ ও নোট ১০ প্লাসের ব্যাটারি ৪৩০০ এমএএইচ। এই ডিভাইসগুলো চলবে অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই অপারেটিং সিস্টেমে।

সম্প্রতি ব্রুকলিনে ডিভাইসটি উন্মোচনকালে স্যামসাং ইলেকট্রনিকস-এর আইটি অ্যান্ড মোবাইল কমিউনিকেশনস ডিভিশনের প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী ডি. জে. কো বলেছেন, “গ্যালাক্সি নোট ১০-এর প্রতিটি উপাদান নকশা করা হয়েছে যাতে গ্রাহকরা আরও বেশি কিছু পেতে পারেন। বড় কোনো কাজ শেষ করা, ভিডিও ধারণ ও এডিটং কিংবা পছন্দের মোবাইল গেইম খেলা ইত্যাদি, গ্যালাক্সি নোট ১০ গ্রাহককে আরও দ্রুতগতিতে এবং ভালোভাবে কাজগুলো করার সুযোগ করে দেবে।”

গ্যালাক্সি নোট ১০-এর পেছনে ব্যবহার করা হয়েছে ৩টি ক্যামেরা সেন্সর। অপরদিকে নোট ১০ প্লাসের পেছনে রাখা হয়েছে ৪টি ক্যামেরা।

নোট ১০-এর পেছনের ক্যামেরা লেন্স হলো ১৬ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড লেন্স, ১২ মেগাপিক্সেল ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স ও ১২ মেগাপিক্সেল টেলিফটো লেন্স। নোট ১০ প্লাসের পেছনে বাড়তি হিসেবে রয়েছে একটি ভিজিএ ডেপথ সেন্সর। দুইটি ডিভাইসের সামনেই রাখা হয়েছে সেলফি ক্যামেরা ১০ মেগাপিক্সেলের।

নতুন এই ফ্যাবলেট ফোনগুলোতে এবার ৩.৫ মিলিমিটার হেডফোন জ্যাককে বিদায় জানিয়েছে স্যামসাং। ইউএসবি-সি পোর্টের মাধ্যমে হেডফোন সংযুক্ত করতে হবে গ্রাহকদেরকে।

এবার নোট ১০-এর নতুন এস পেন-এ যোগ করা হয়েছে ‘জেসচার ন্যাভিগেশনের’ মতো বেশ কিছু দারুন দারুন ফিচার।

বলা হয়েছে যে, এই এস পেন-এর ‘এয়ার অ্যাকশন’ এসডিকে উন্মুক্ত করার মাধ্যমে ডেভেলপাররা খুব সহজেই কাস্টমাইজড কন্ট্রোল বানাতে পারবেন, যার মাধ্যমে জেসচার দিয়ে পছন্দের গেইমও খেলতে পারবেন গ্রাহকরা।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...