The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

‘রিং অব ফায়ার’: বিশ্ববাসী ২৬ ডিসেম্বর দেখবে এক বিরল সূর্যগ্রহণ

এমন দৃশ্য শেষবার মানুষ দেখেছিলো ১৭২ বছর পূর্বে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আগামী ২৬ ডিসেম্বর বিশ্ববাসী দেখবে এক বিরল সূর্যগ্রহণ। এমন বিরল সূর্যগ্রহণের দৃশ্য শেষবার মানুষ দেখেছিলো ১৭২ বছর পূর্বে! মাঝে মধ্যেই মহাকাশ বিজ্ঞানীরা এমন কিছু তথ্য দিয়ে থাকেন যা সত্যিই বিরল। এবার এমন এক তথ্য দিয়েছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। তারা বলেছেন, এক বিরল সূর্যগ্রহণের দৃশ্য দেখতে চলেছে পৃথিবীবাসী। এমন দৃশ্য শেষবার মানুষ দেখেছিলো ১৭২ বছর পূর্বে। আগামী ২৬ ডিসেম্বর এমনই এক সূর্যগ্রহণ দেখতে পাবেন বিশ্ব।

‘রিং অব ফায়ার’: বিশ্ববাসী ২৬ ডিসেম্বর দেখবে এক বিরল সূর্যগ্রহণ 1

আগামী ২৬ ডিসেম্বর বিশ্ববাসী দেখবে এক বিরল সূর্যগ্রহণ। এমন বিরল সূর্যগ্রহণের দৃশ্য শেষবার মানুষ দেখেছিলো ১৭২ বছর পূর্বে! মাঝে মধ্যেই মহাকাশ বিজ্ঞানীরা এমন কিছু তথ্য দিয়ে থাকেন যা সত্যিই বিরল। এবার এমন এক তথ্য দিয়েছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। তারা বলেছেন, এক বিরল সূর্যগ্রহণের দৃশ্য দেখতে চলেছে পৃথিবীবাসী। এমন দৃশ্য শেষবার মানুষ দেখেছিলো ১৭২ বছর পূর্বে। আগামী ২৬ ডিসেম্বর এমনই এক সূর্যগ্রহণ দেখতে পাবেন বিশ্ব।

মহাকাশ বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, আড়াই ঘণ্টা ধরে চলবে এই মহাজাগতিক দৃশ্যটি। সূর্যকে ৯০ শতাংশেরও বেশি ঢেকে ফেলবে চাঁদ, যেটি খালি চোখেই অবলোকন করতে পারবে পৃথিবীবাসী। মহাকাশ বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, সূর্যগ্রহণের সময় সূর্যের চারপাশে থাকবে আগুনের এক বলয়। বিজ্ঞানীরা যাকে বলছেন ‘রিং অব ফায়ার’।

মহাকাশ বিষয়ক মার্কিন ওয়েবসাইট স্পেস ডটকম জানিয়েছে, এটিই হবে বছরের শেষ সূর্যগ্রহণ। বাংলাদেশ থেকে এই মহাকাশীয় ঘটনাটি আংশিক দৃশ্যমান হবে। বাংলাদেশ ছাড়াও ইন্দোনেশিয়ার, সৌদি আরব, সুমাত্রা ও মালয়েশিয়া থেকেও দেখা যাবে এই সূর্যগ্রহণটি।

এই সূর্যগ্রহণটি আংশিকভাবে ভারতের কোচবিহার, দার্জিলিং, গ্যাংটক, কোলকাতা থেকেও দেখা যাবে বলে জানিয়েছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। সংযুক্ত আরব আমিরাত হতে দৃশ্যটি সবচেয়ে ভালো দেখা যাবে বলে জানিয়েছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।

চাঁদ, সূর্য, পৃথিবী এক সরল রেখাতে এলে গ্রহণের ঘটনাটি ঘটে। সূর্যগ্রহণের সময়, ভ্রমণরত অবস্থায় চাঁদ কিছু সময়ের জন্য পৃথিবী এবং সূর্যের মাঝখানে এসে পড়ে, তখন কিছু সময়ের জন্য পৃথিবীর কিছু জায়গা হতে সূর্যকে আংশিক কিংবা সম্পূর্ণরূপে আর দেখা যায় না।

তখন চাঁদের ছায়া এসে পৌঁছায় পৃথিবীর ওপর। যে কারণে ছায়া পড়া অংশে খানিক সময়ের জন্য দিনের আলোও থাকে না। এদিকে এই বিরল সূর্যগ্রহণ দেখার জন্য অনেকেই অধির আগ্রহে রয়েছেন। অনেকেই এই বিরল সূর্যগ্রহণের স্বাক্ষী হয়ে থাকতে চান।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে কয়টা হতে শুরু হয়ে কয়টায় শেষ হবে সেই খবর নিশ্চিত না হলেও https://www.indiatoday.in এর এক খবরে বলা হয়েছে, কোলকাতায়, এটি দেখা যাবে ৪৫.১ শতাংশ এবং এটি সকাল ৮::২৬:৫:৫৫-এ শুরু হবে, সর্বাধিক সকাল ৯:৫২:৩৭ এ পৌঁছে সকাল ১১:৩২:৩৭ এ এটি শেষ হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। কোলকাতার সেই হিসেব অনুযায়ী বাংলাদেশে এটি দেখা যাবে সকাল ৮টা ৫৬ মিনিট হতে বেলা ১২.০২ মিনিট পর্যন্ত স্থায়ি হবে এটি।

Loading...