The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বছরের শেষে এসে মাত্র সাত প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেলো সিনেমা ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’

ঢাকার বলাকা, শ্যামলী সিনেমা, নারায়ণগঞ্জের সিনেস্কোপ, সিলেটের বিজিপি সিনেমা হল, খুলনার লিবার্টি, বগুড়ার সোনিয়া এবং চট্টগ্রামের সিলভার স্ক্রিন’প্রেক্ষাগৃহে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বছরের শেষে এসে সরকারী অনুদানে নির্মিত সিনেমা ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’ মুক্তি পেলো দেশের মাত্র সাতটি প্রেক্ষাগৃহে। এই ছবি মুক্তির মাধ্যমে ঢালিউডের ২০১৯ সাল শেষ হলো। ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’ নির্মাণ করেছেন মাসুদ পথিক। এই নির্মাতার স্বপ্ন ছিলে অনেক হলে একসঙ্গে মুক্তি দেবেন সিনেমাটি। কিন্তু তা সম্ভব হয়নি তা। সিনেমাটি মুক্তি দিতে গিয়ে তিনি নোংরা রাজনীতির শিকার হচ্ছেন বলেও দাবি করেছেন তিনি। ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে এও বলেছেন, আগামীতে তিনি সিনেমা বানাবেন কিনা সেটাও সন্দেহ রয়েছে! অবশেষে ৭টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে বছরের শেষ সিনেমা ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’।

বছরের শেষে এসে মাত্র সাত প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেলো সিনেমা ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’ 1

বছরের শেষে এসে সরকারী অনুদানে নির্মিত সিনেমা ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’ মুক্তি পেলো দেশের মাত্র সাতটি প্রেক্ষাগৃহে। এই ছবি মুক্তির মাধ্যমে ঢালিউডের ২০১৯ সাল শেষ হলো। ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’ নির্মাণ করেছেন মাসুদ পথিক। এই নির্মাতার স্বপ্ন ছিলে অনেক হলে একসঙ্গে মুক্তি দেবেন সিনেমাটি। কিন্তু তা সম্ভব হয়নি তা। সিনেমাটি মুক্তি দিতে গিয়ে তিনি নোংরা রাজনীতির শিকার হচ্ছেন বলেও দাবি করেছেন তিনি। ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে এও বলেছেন, আগামীতে তিনি সিনেমা বানাবেন কিনা সেটাও সন্দেহ রয়েছে! অবশেষে ৭টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে বছরের শেষ সিনেমা ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’।

এই বিষয়ে নির্মাতা মাসুদ পথিক জানিয়েছেন, প্রথম সপ্তাহে ছবিটি চলবে ঢাকার বলাকা, শ্যামলী সিনেমা, নারায়ণগঞ্জের সিনেস্কোপ, সিলেটের বিজিপি সিনেমা হল, খুলনার লিবার্টি, বগুড়ার সোনিয়া এবং চট্টগ্রামের সিলভার স্ক্রিন’প্রেক্ষাগৃহে।

সংবাদ মাধ্যমের এক খবরে জানা যায় যে, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদের চিত্রকর্ম ‘নারী’ ও কবি কামাল চৌধুরীর ‘যুদ্ধশিশু’ কবিতা অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে ‘মায়া, দ্য লস্ট মাদার’ চলচ্চিত্রটি। এই চলচ্চিত্রটি সম্পর্কে জ্যোতি বলেন, প্রতিটি দেশপ্রেমী মানুষেরই এই চলচ্চিত্রটি দেখা উচিত। ছবিটিতে রয়েছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং মুক্তিযুদ্ধ-পরবর্তী বর্তমান সমাজ ব্যবস্থার বাস্তব চিত্র। এতে মাটির গন্ধ রয়েছে, আরও রয়েছে বাংলাদেশের ৬৮ হাজার গ্রাম-বাংলার রূপ। সবাইকে ছবিটি দেখার আমন্ত্রণও জানান তিনি।’

উল্লেখ্য যে, এই ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’ চলচ্চিত্রটিতে জ্যোতিকা জ্যোতি ছাড়াও অভিনয় করেছেন মুমতাজ সরকার (কোলকাতা), প্রাণ রায়, দেবাশীষ কায়সার, সৈয়দ হাসান ইমাম, ঝুনা চৌধুরীসহ প্রমুখ।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...