The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

গৌতম বুদ্ধকে নিয়ে গান করলেন কনা [ভিডিও]

ইতিমধ্যেই এই গানটি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়েছে। অনেকেই প্রশংসা করেছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ দিলশাদ নাহার কনা। বর্তমান সময়ের একজন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী। তিনি এবার গান করলেন গৌতম বুদ্ধকে নিয়ে। ইতিমধ্যেই এই গানটি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়েছে। অনেকেই প্রশংসা করেছেন।

গৌতম বুদ্ধকে নিয়ে গান করলেন কনা [ভিডিও] 1

দিলশাদ নাহার কনা। বর্তমান সময়ের একজন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী। তিনি এবার গান করলেন গৌতম বুদ্ধকে নিয়ে। ইতিমধ্যেই এই গানটি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়েছে। অনেকেই প্রশংসা করেছেন।

বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব হলো শুভ মাঘী পূর্ণিমা। এদিন বুদ্ধদেব তাঁর পরিনির্বাণের কথা ঘোষণা করেছিলেন। সারা বিশ্বের বৌদ্ধরা এই মহান তিথিটি নানা অনিত্য সভা ও পূজা-অর্চনার মধ্য দিয়ে উদযাপন করে থাকে।

গৌতম বুদ্ধকে নিয়ে চমৎকার একটি গান লিখেছেন কালজয়ী কবি, গীতিকার এবং সুরকার মাহবুবুল এ খালিদ। ইমন সাহার সুরে ‘বুদ্ধ পূর্ণিমা’ শিরোনামের গানটিতে কণ্ঠ দিলেন বর্তমান সময়ে জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী দিলশাদ নাহার কনা।

গানটি ইতিমধ্যেই মাহবুবুল এ খালিদের সংগীত বিষয়ক ওয়েবসাইট ‘খালিদসংগীত ডটকম’ (www.khalidsangeet.com) এ প্রকাশিত হয়েছে। সেই সঙ্গে একটি মিউজিক ভিডিও ইউটিউবের ‘খালিদ সংগীত’ চ্যানেলে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

এ সম্পর্কে গীতিকার মাহবুবুল এ খালিদ বলেছেন, জগৎ অনাচার, পাপাচারে নিমজ্জিত হলে মানুষকে জীবনের সঠিক পথ দেখাতে জগতের কল্যাণে ও জীবের দুঃখমোচনে গৌতম বুদ্ধের আবির্ভাব ঘটেছিলো।

মানুষে মানুষে ভেদাভেদ জাত-পাতের চরম বৈষম্য, ধর্মের নামে প্রাণযজ্ঞ ও হিংসার বদলে তিনি মানুষকে শুনিয়েছেন ভালোবাসার এক বাণী। তাদেরকে তিনি দেখিয়েছেন আলোর পথ।

তাঁর সাধনা এবং সুখ কামনা ছিল সব জীবের জন্যই। তিনি এই শিক্ষা দিয়েছেন যে জীবের সুখ বিনষ্ট হয়, এমন কাজ করা থেকে বিরত থাকতে হবে। ‘বুদ্ধ পূর্ণিমা’ গানটির মাধ্যমে গৌতম বুদ্ধের জীবন এবং শিক্ষার প্রতি আলোকপাত করা হয়েছে। আশা করছি গানটি সবার কাছেই খুব ভালো লাগবে।

রবির গ্রাহকরা ‘বুদ্ধ পূর্ণিমা’ গানটি মোবাইলের ওয়েলকাম টিউন হিসেবে সেটও করতে পারবেন। সেজন্য ডায়াল করতে হবে *28466*240#।

উল্লেখ্য যে, মাহবুবুল এ খালিদের রয়েছে সংস্কৃতির প্রতি অক্লান্ত ভালোবাসা। জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে তিনি সবার জন্যই গান রচনা করেন। তার কাছে সংগীত কোনো জাতি কিংবা ধর্মের নয়, সংগীত সবার জন্যই।

রমজান, ঈদ, কোরবানি, শ্রীকৃষ্ণ, দুর্গাপূজা, বড়দিন ইত্যাদি ধর্মীয় সকল উৎসব ঘিরে তার লেখা অসংখ্য গান রয়েছে।

দেখুন ভিডিওটি

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...