ঋত্বিকের অস্ত্রোপচারের পরে বলিউডের নায়করা অভিনয়ে অনেক সতর্ক হয়েছেন

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক॥ সম্প্রতি বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা ঋত্বিক রোশনের মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। ‘ব্যাং ব্যাং‘ সিনেমার শুটিং করতে গিয়ে মাথায় আঘাত পান ঋত্বিক রোশন। অভিনয় করতে গিয়ে ঋত্বিক রোশনের মস্তিষ্কে চোট পাওয়ায় বর্তমানে বলিউডের অনেক অভিনেতারা অভিনয়ে আগের চেয়ে সতর্ক হয়ে গেছেন।


action-here-akshay-kumar-latest-still

সম্প্রতি নিজের ছবির ঝুঁকিপূর্ণ একশান দৃশের স্ট্যান্ট অভিনয় নিজেই করার একটি প্রবণতা বলিউড হিরোদের মাঝে দেখা যায়। বর্তমানে বলিউড ছবির নায়করা আগের থেকে স্বাস্থ্যগতভাবে অনেক বেশী সুঠাম দেহের অধিকারী, ফলে দর্শক চায় তাঁদের প্রিয় অভিনেতাদের থেকে আরও জীবন্ত ও বাস্তবধর্মী অভিনয়। এ প্রেক্ষিতে প্রতিযোগিতামূলক বলিউডে সকল নায়ক চেয়েছেন নিজেদের অভিনয় শৈলীতে কিছুটা ব্যতিক্রম আনতে।

তবে সম্প্রতি বলিউডে নিজের ছবিরস্ট্যান্ট স্ট্যান্ট করতে গিয়ে ঝুঁকির সম্মুখীন হয়েছেন অনেকেই, সর্বশেষ ঋত্বিক রোশন আঘাত পেয়েছেন তার মস্তিষ্কে এরই প্রেক্ষিতে তাকে মস্তিষ্কে অস্রপ্রচারও করাতে হয়েছে ফলে বর্তমানে ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনা করে অনেক অভিনেতা আর ঝুঁকিপূর্ণ স্ট্যান্টে অংশ নিচ্ছেন না।

এ বিষয়ে একশান ডিরেক্টর টান্নু ভারমা মিডিয়াকে বলেন, “আমি অভিনেতাদের এখন আর ঝুঁকিপূর্ণ স্ট্যান্টে অংশ নিতে জোর করিনা, সাধারণত প্রথমে সম্পূর্ণ বিষয়টি হিরোকে বুঝিয়ে দিই। পরবর্তীতে হিরো এটি করতে আগ্রহী হলেই কেবল আমরা স্ট্যান্টটি হিরোকে দিয়ে করাই তবে এক্ষেত্রে আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকে সর্বোচ্চ।”

আরেক একশান ডিরেক্টর সান কুশাল বলেন, “আমরা কখনই নায়ককে অনিরাপদ স্ট্যান্ট দৃশ্যে অংশ নিতে দিনা। যেকোনো একশান দৃশ্য প্রথমে বেশ কয়কবার স্ট্যান্টম্যানকে দিয়ে করানো হয়। তবে বিশেষ ক্ষেত্রে যদি চরিত্রের প্রয়োজনে নায়ককেই এসব ঝুঁকিপূর্ণ স্ট্যান্ট অংশ নিতে হয়, সে ক্ষেত্রে বলিউড নায়করা সাহসের সাথেই অংশ নেন, এক্ষেত্রে তাঁদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকে সর্বোচ্চ।”

জনপ্রিয় নায়ক অক্ষয় কুমারের অনেক ছবির একশান ডিরেক্টর আব্বাস আলী মুগল বলেন, “অনেক ক্ষেত্রেই একশান দৃশ্য সমূহে অভিনয় করাটা খুবি ঝুঁকিপূর্ণ, যেমন আপনি ভাবতেই পারবেন না আয়না ভাঙ্গার দৃশ্যে সামান্য একটি আয়নার অংশ আপনার চোখে পড়ে আপনার চোখ সম্পূর্ণ রুপে নষ্ট করে দিতে পারে।”

ঘটনা যাই হোক সম্প্রতি ভারতীয় এ মাল্টি বিলিয়ন ডলারের সেক্টরের নায়কদের ঝুঁকিপূর্ণ ছবির দৃশ্যে স্ট্যান্ট করতে গিয়ে ইজুরিতে আক্রান্ত হবার ঘটনা অহরহ ঘটছে, এরই প্রেক্ষিতে বর্তমানে বলিউডের অনেক নায়ক আগে নিজের নিরাপত্তার দিকে নজর দিচ্ছেন।

চলুন জেনে নেয়া যাক বলিউডে একশান দৃশ্যে অভিনয় করতে গিয়ে আঘাত পেতে হয়েছে এমন কয়েকজন অভিনেতার পরিচয়ঃ

vivekoberoi_141010

বিবেক ওবরয়: ২০০৩ সালে বিবেক ওবরয় তার মানি তত্নাম যুবা ছবিতে অভিনয় করতে গিয়ে পায়ের ইনজুরিতে পড়েন হন। বিবেক আরও দুইবার ঝুঁকিপূর্ণ দৃশ্যে অভিনয় করতে গিয়ে গুরুতর আঘাত পান।

Aishwarya-Rai-aishwarya-rai-bachan-34545397-1280-960

ঐশ্বরিয়া রায়ঃ ২০০৩ সালে ঐশ্বরিয়া তার খাকি ছবিতে অভিনয় করতে যেয়ে পায়ের মাইনর ইনজুরিতে পড়েন। এ সময় তিনি যে দৃশ্যে অভিনয় করছিলেন তা ছিল একটি গাড়ি তার পাশদিয়ে দ্রুত চলে যাবে, কিন্তু দুর্ভাগ্য বশত গাড়ীর চাকা ঐশ্বরিয়ার পায়ের উপরদিয়ে চলে যায়। অল্পের জন্য ঐশ্বরিয়া গুরুতর ক্ষতি থেকে বেঁচে যান।

Shah-Rukh-Khan1

শাহ্‌রুখ খানঃ এখন পর্যন্ত শাহ্‌রুখ খান’কে ৭ টি মাইনর ও মেজর ইঞ্জুরির জন্য অপারেশান করাতে হয়েছে শরীরের বিভিন্ন জায়গায়। ডন, দুলহা মিল গেয়া, শক্তি সহ অনেক ছবির একশান স্ট্যান্ট দৃশ্যে অভিনয় করতে গিয়ে শাহ্‌রুখ খানকে আঘাত পেতে হয়েছে।

Abhishek-Bachchan1

অভিষেক বচ্চনঃ অভিষেক বচ্চনকে একবার ঝুঁকিপূর্ণ দৃশ্যে অভিনয়ের সময় গুরুতর আঘাত পেতে হয়েছে। এ ঘটনা ঘটে অভিষেক বচ্চনের “বোল বচ্চন” ছবির এক দৃশ্য সম্পাদনের সময়। এতে তিনি রিক্সায় নাচতে গিয়ে পড়ে যান ফলে তার চোখের খুব কাছেই ৬টি সেলাই পড়ে।

Amitabh-Bachchan_1

অমিতাভ বচ্চনঃ মুম্বাই ছবির জগতের রাজা ভাবা হয় তাকে। তিনি একবার ছবি করতে গিয়ে গুরুতর আঘাত পান ১৯৮২ সালের ২৬ জুলাই’তে। ঘটনাটি ঘটে অমিতাভ যখন তার হিট ছবি “Coolie” এর শুটিং করছিলেন। এ সময় অমিতাভ মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরে আসেন অনেকটা। এ দুর্ঘটনার পর অমিতাভ প্রায় ৩ মাস কোন ছবি করতে পারেন নি।

এছাড়াও কিছুদিন আগে দি ঢাকা টাইমস এ সালমান খান ও বলিউডের নায়কদের ইজুরির বিষয়ে একটি বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটি এখান থেকে পড়ুন।

সূত্রঃ দি টাইমস অফ ইন্ডিয়া

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...