The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

জেমস বন্ডের নতুন ট্রেলার আলোচনায় [ট্রেলার]

আগেই কথা ছিলো চলতি বছরের এপ্রিলেই প্রেক্ষাগৃহে যাবে এই সিনেমাটি। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে সব ভেস্তে যায়।

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ হলিউডের তুমুল জনপ্রিয় সিরিজের চরিত্র জেমস বন্ড। এই চরিত্রকে নিয়ে মুক্তি পাওয়া সবগুলো সিনেমা সুপারহিট। এবার সিরিজের ২৫তম সংস্করণ ‘নো টাইম টু ডাই’ সিনেমা মুক্তি পেতে যাচ্ছে।

জেমস বন্ডের নতুন ট্রেলার আলোচনায় [ট্রেলার] 1

আগেই কথা ছিলো চলতি বছরের এপ্রিলেই প্রেক্ষাগৃহে যাবে এই সিনেমাটি। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে সব ভেস্তে যায়।

সম্প্রতি বন্ড সিরিজের নতুন এই সিনেমার পোস্টার শেয়ার করে জানানো হয় যে, আসছে নভেম্বরে সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে। সে লক্ষে বিশাল আয়োজনে এর প্রচারণাও শুরু হয়েছে ইতিমধ্যে। যার অংশ হিসেবে মুক্তি পেয়েছে এই সিনেমাটির দ্বিতীয় ট্রেলার।

সেপ্টেম্বরের ৩ তারিখে প্রকাশ হওয়া ট্রেলারটি নিয়ে বেশ উত্তেজনায় দেখা যাচ্ছে বন্ডপ্রেমীরা। ইতিমধ্যে ৯৯ লাখ দর্শক ট্রেলারটি দেখে ফেলেছেন। এটি পছন্দ করে ‘লাইক’ দিয়েছেন অন্তত ৯০ হাজার দর্শক।

ট্রেলারে আভাস পাওয়া গেছে দুর্দান্ত এক গল্প এবং ধুন্ধুমার অ্যাকশন দেখা যাবে ‘নো টাইম টু ডাই’ সিরিজটিতে। গল্পে দেখা যাবে যে, জেমস বন্ড তার কর্মক্ষেত্র হতে অবসর নিয়েছেন। তিনি জ্যামাইকাতে শান্তিপূর্ণ জীবন উপভোগ করছেন। তবে তার সেই শান্তি খুব বেশি সময় কপালে আর সইলো না।

সিআইএ-তে কাজ করা তার এক পুরনো বন্ধু ফেলিক্স লেইটার বিপদে পড়ে বন্ডের সাহায্য চান। অপহৃত এক বিজ্ঞানীকে উদ্ধার করে দিতে হবে তাকে। তবে সেই মিশন প্রত্যাশার চেয়েও বেশি জটিলতা এবং বেশ ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে। এক বিস্ময়কর ভিলেন এবং তার অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ভয়ংকর অস্ত্রের সঙ্গে লড়তে হয় জেমস বন্ডকে। তিনি কি পারবেন সেই বিজ্ঞানীকে শেষ পর্যন্ত উদ্ধার করতে? উত্তর জানতে হলে আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে নভেম্বর পর্যন্ত।

দেখুন ট্রেলারটি

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...