The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

টাকা সঞ্চয়ের জন্য এই টিপসগুলো উপকারে আসবে

সকলেরই কিছু কিছু করে সঞ্চয় করার অভ্যাস গড়ে তোলা উচিত

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সকলেরই কিছু কিছু করে সঞ্চয় করার অভ্যাস গড়ে তোলা ভালো। বিপদের সময় ওই সঞ্চয় আপনার উপকারে আসবে তাতে সন্দেহ নেই। আজ জেনে নিন এই বিষয়ে কিছু টিপস।

অর্থ আমাদের পরম বন্ধু এটি আমরা জানি। নিজের আয় যতোই হোক না কেনো তা থেকে প্রতিমাসে কিছু সঞ্চয় করার চেষ্টা করা সকলের জন্যই মঙ্গলজনক। এতে করে বছর শেষে দেখবেন বেশ মোটা অংকের টাকা আপনার হাতে এসেছে। প্রতিদিন বাসার কয়েকটা জায়গায় অল্প অল্প করে টাকা জমাতে পারেন। সম্ভব না হলে দু’এক জায়গায় টাকা জমানোর চেষ্টা করে দেখতে পারেন। আসুন এমন কয়েকটি জায়গা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক:

টাকার পাত্র

একটি কাঁচের জার তৈরি করুন বা মাটির ব্যাংক কিনে নিন। যার মধ্যে আপনি কিছু কিছু করে টাকা রাখুন। সেখান থেকে প্রয়োজন মতো টাকা বের করেও নিতে পারবেন। এতে করে আপনি নিজে চোখেই দেখতে পাবেন কতো টাকা থাকলো বা খরচ হলো। তাছাড়া বছরান্তে হঠাৎ একদিন খুলে দেখবেন অবিশ্বাস্য অর্থ জমা হয়েছে। যা আপনি প্রয়োজনীয় কাজে লাগাতে পারবেন।

গাড়ির ভিতর

আপনি যখন বাইরে বের হবেন তখন গাড়ির ভিতরে কিছু জায়গা থাকে ওইখানে অল্প করে প্রতিদিন কিছু টাকা রেখে দিতে পারেন যা প্রয়োজনের সময় আপনার কাজে আসবে।

কফি খাওয়া বাদ দিয়ে টাকা জমান

আপনি হয়তো কল্পনাও করতে পারবেন না যে, কফির পিছনে মাসে আপনি কতো টাকা খরচ করেন। কফি খাওয়া কমিয়ে দিন এতে করে দেখবেন আপনার অনেক টাকা সাশ্রয় হচ্ছে।

মাসিক সঞ্চয়

দীর্ঘদিন ধরে যদি আপনার কোনো লোন থাকে তাহলে সেটি পরিশোধ করে তারপর কিছু কিছু টাকা সঞ্চয় করুন প্রতি মাসে। এতে করে বছর শেষে বেশ কিছু টাকা জমে থাকবে আপনার জন্য। যা আপনি সত্যিই প্রয়োজনের সময় খরচ করতে পারবেন। বা হয়তো আপনি বেড়ানোর টাকা পাচ্ছেন না, এগুলো সে কাজে ব্যবহার করতে পারবেন বছরের নির্দিষ্ট একটি সময়।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...