The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

গোলাপের পাপড়িতে সৌন্দর্য চর্চা

নারীদের সাজে গোলাপের ব্যবহার যুগ যুগ ধরে প্রচলিত

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আমরা জানি গোলাপ ফুলের কদর সবসময়ই বেশি। প্রেম নিবেদন বা ভালোবাসা প্রকাশে গোলাপ না থাকলে যেনো চলে না। আজ জেনে নিন গোলাপের পাপড়িতে সৌন্দর্য চর্চা কিভাবে করবেন।

নারীদের সাজে গোলাপের ব্যবহার যুগ যুগ ধরে প্রচলিত। চুলের এক পাশে একটি গোলাপ গুঁজে দিলে পুরো সাজেই যেনো আসে এক পরিপূর্ণতা। ঘরের কোণে কয়েকটি গোলাপ রেখে দিলেও এর মিষ্টি সুবাসে মন ভালো থাকবে সারাদিন। আপনি কি জানেন? রূপচর্চাতেও গোলাপের পাপড়ির রয়েছে অসাধারণ কিছু ব্যবহার? আজ জেনে নিন সৌন্দর্য চর্চায় গোলাপের পাপড়ির কয়েকটি ব্যবহার।

ত্বক মসৃণ করতে

নিয়মিত গোলাপের পানি ব্যবহার করলে ত্বক হয়ে উঠবে আরও উজ্জ্বল ও মসৃণ। গোলাপের পাপড়িতে রয়েছে প্রাকৃতিক তেল যা ত্বকের জন্য ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ভালো কাজ করে। যে কারণে ত্বকের শুষ্ক ভাব দূর হয়ে যায় ও ত্বক হয়ে ওঠে আরও মসৃণ এবং সুন্দর।

টোনার হিসেবে গোলাপের পাপড়ি

টোনার হিসেবে গোলাপের পাপড়ির যেনো জুড়ি নেই। কিছু গোলাপের পাপড়ি পানিতে সেদ্ধ করে তারপর পানিটা ছেঁকে নিন। এবার পানিটাকে ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে নিন। তারপর ঠাণ্ডা সেই পানির মধ্যে তুলা ভিজিয়ে সেটি দিয়ে পুরো মুখ ভালো করে মুছে নিন। গোলাপের পাপড়ির এই টোনার ত্বকের জন্য খুবই উপকারী একটি জিনিস।

ব্রণের উপদ্রব কমাতে

ত্বকে ব্রণের উপদ্রব রয়েছে অনেকের। গোলাপের পাপড়িতে রয়েছে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান যা ত্বকে ব্রণের উপদ্রব কমাতে বিশেষভাবে সহায়তা করে। তাছাড়াও গোলাপের পাপড়ির রস ব্রণের লালচে ভাব কমাতে সহায়তা করে ও ব্রণের আকৃতি ছোট করে দেয় বেশ দ্রুত সময়ের মধ্যে।

চোখের নিচের কালচে ভাব

চোখের নিচের কালো ভাব গোলাপের পাপড়ির রস কমিয়ে দিতে পারে। কিছু গোলাপের পাপড়ি বেঁটে চোখের নিচের ত্বকে লাগিয়ে রাখতে হবে। কিংবা গোলাপের পানিতে তুলা ভিজিয়ে চোখের উপর দিয়ে রাখতে হবে। এটি নিয়মিত ব্যবহার করলে চোখের কালি দূর হয়ে যাবে পুরোপুরিভাবে। সেই সঙ্গে চোখের ক্লান্তি দূর হবে।

রোদে পোড়া ভাব কমাতে

প্রচণ্ড রোদে বাইরে বের হলেই ত্বকের রং অনেকটাই কালচে হয়ে যেতে পারে। নিয়মিত গোলাপের পানি ব্যবহার করলে ত্বকে রোদে পোড়া দাগ অনেকটাই কমে যাবে। যে কারণে ত্বক থাকে আরও উজ্জ্বল এবং স্নিগ্ধ। তাছাড়াও গোলাপের পাপড়িতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি যা সূর্যের আলো হতে ত্বককে রক্ষা করতে সাহায্য করে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...