The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

‘আজকে রাবেয়া-রোকেয়া বাড়ি ফিরে যাবে, তাদের মা-বাবার কোলে হেসে খেলে বেড়াবে এটা সত্যিই খুব বড় পাওয়া’: প্রধানমন্ত্রী

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আজকে রাবেয়া-রোকেয়া বাড়ি ফিরে যাবে, তাদের মা-বাবার কোলে হেসে খেলে বেড়াবে এটা সত্যিই খুব বড় পাওয়া’।

‘আজকে রাবেয়া-রোকেয়া বাড়ি ফিরে যাবে, তাদের মা-বাবার কোলে হেসে খেলে বেড়াবে এটা সত্যিই খুব বড় পাওয়া’: প্রধানমন্ত্রী 1

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুজিব বর্ষে সংযুক্ত মাথার জমজ বোন রাবেয়া ও রোকেয়াকে সফল অস্ত্রপচারের মাধ্যমে পৃথক করে তাদের সুস্থ শরীরে বাবা-মা’য়ের কাছে ফিরিয়ে দেওয়াকে বাংলাদেশের জন্য বড় একটি অর্জন হিসেবে অভিহিত করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘আজকে রাবেয়া-রোকেয়া বাড়ি ফিরে যাবে, তাদের মা-বাবার কোলে হেসে খেলে বেড়াবে এটা সত্যিই খুব বড় পাওয়া। যেখানে আমরা মুজিববর্ষ উদযাপন করছি, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করতে যাচ্ছি, ঠিক এই সময় এতো বড় একটা সফল অস্ত্রপচার করা ও সফলতা অর্জন করা এটা বাংলাদেশের জন্য অনেক বিরাট একটা অর্জন।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘মুজিববর্ষে জোড়া মাথা থেকে মুক্তি পাওয়া রাবেয়া-রোকেয়া’র শুভ গৃহ প্রত্যাবর্তন সকলের জন্যই আনন্দের এবং গর্বের।’

প্রধানমন্ত্রী গতকাল (রবিবার) অপরাহ্নে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ)-এ সংযুক্ত মাথা হতে মুক্তি পাওয়া রাবেয়া-রোকেয়ার গৃহ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে এসব কথা বলেন। তিনি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে ঢাকা সেনানিবাসে অবস্থিত সিএমএইচ-এর ওই অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

মার্চ মাসে বাঙালির ইতিহাসে অনেক কিছুই ঘটেছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই মাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্ম গ্রহণ করেন, দেশের স্বাধীনতা অর্জিত হয়, ১৯৪৮ সালের ১১ মার্চ ভাষা আন্দোলন শুরু হয়, ’৭১ এর ৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ভাষণ দেন।

প্রধানমন্ত্রী যমজ শিশুদেরকে জিজ্ঞেস করেন তারা কেমন আছে। উত্তরে বাচ্চাদের একজন জানায়, সে ভাল আছে এবং সে প্রধানমন্ত্রীকে কেমন আছেন জিজ্ঞেস করায় প্রধানমন্ত্রী জবাব দেন তিনিও ভালো আছেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ছোট বোন শেখ রেহানা তাকে একটি পত্রিকায় প্রকাশিত খবর দেখিয়ে যমজ শিশুদের সম্পর্কে অবহিত করার পর তিনি সংযুক্ত শিশুদের চিকিৎসার উদ্যোগ নেন। রাবেয়া-রোকেয়া’র মতো যমজকে পৃথক করার মতো এক বড় অপারেশন বাংলাদেশে করার কারণ হলো, এখনকার চিকিৎসক এবং টেকশিয়ানদের একটি অভিজ্ঞতা হবে। ৪৮টি অপারেশন ও ৩৬ ঘন্টা ধরে অপারেশন করা, এটা বিরাট একটা ব্যাপার। হাঙ্গেরি থেকে আসা চিকিৎসকদের দলটি এখানে দীর্ঘদিন অবস্থান করে অপারেশনটি করেছে। আর সব থেকে ভালো লেগেছে এরা প্রত্যেকেই খুব আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছেন, এভাবেই বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী সকলের কাজের আন্তরিকতার প্রশংসা করে বলেন, প্রত্যেকেই এতো আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছেন যে, এটা আমি ভাষায় বর্ণনা করতে পারবো না।

শেখ হাসিনা বলেন, এখানে প্রতিটি ক্ষেত্রে অত্যন্ত পারদর্শী যারা, তাদেরকে একত্রিত করা হয়েছে। যাতে কোনো রকম ফাঁক না থাকে। সব যেনো ঠিকমতো হয়। কারণ হলো এটা একটা জটিল অপারেশন ছিল।

তিনি আরও বলেন, রাবেয়া ও রোকেয়া জোড়া মাথা নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছে। চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় একে বলে ‘ক্রেনিয় পেগাজ’। এই ধরণের ঘটনা মাঝে মাঝে দেখা গেলেও আমাদের দেশে এটি পৃথক করার ঘটনা সম্পূর্ণই নতুন। সেটি সফলভাবে সম্পন্ন করতে পারায় সংশ্লিষ্ট সকলকেই আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ১ আগস্ট বাংলাদেশের চিকিৎসা বিজ্ঞানের ইতিহাসের এক মাইলফলক। এই দিনেই সিএমএইচ ঢাকায় জোড়া মাথা পৃথকীকরণের জটিল অপারেশনটি শুরু করা হয়। হাঙ্গেরী সরকারের সহযোগিতায় ‘একশন ফর ডিফেন্সলেস পিপল ফাউন্ডেশন’এর সক্রিয় অংশগ্রহণের মাধ্যমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ এবং হাঙ্গেরীতে ছোট-বড় ৪৮টি অপারেশন সম্পন্ন করা হয়। পরবর্তীতে শিশু দু’টিকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে এই অপারেশনের সবচেয়ে জটিল অংশ হলো যমজ-মস্তিস্ক পৃথকীকরণের কাজটি ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) সম্পন্ন কর হয়।

এই ধরণের জটিল অপারেশন সারা বিশ্বেই বিরল ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় প্রথম। অপারেশন পরবর্তী সাফল্যও বিশ্বে খুব বেশি একটা নেই।

তবে দুই বোনের মধ্যে একজন সম্পূর্ণ সুস্থ্য থাকলেও আরেক বোন বেশ অসুস্থ্য রয়েছে। তবে চিকিৎসকরা আশা করছেন সেও পুরোপুরি না হলেও স্বাভাবিক পর্যায়ে চলে আসবে।

পিএমও সূত্র জানায়, ঢাকা সিএমএইচ শিশু দু’টির জন্য আজীবন চিকিৎসা সুবিধা কার্ড প্রদান করা হয়েছে, যাতে ভবিষ্যতে সিএমএইচসহ যে কোনো সরকারি হাসপাতালে তারা বিনামূল্যে সব ধরণের চিকিৎসা সেবা পেতে পারে।

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ ও শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন এন্ড প্লাষ্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্তলাল সেন এই অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

বিষয়টি জানার পর প্রধানমন্ত্রী তাদের অপারেশন ও সুচিকিৎসার নির্দেশ দেন এবং সেই নির্দেশনা মোতাবেক তাদের অপারেশন করা হয়। আজ মাথা জোড়া অবস্থায় দুর্বিসহভাবে বেঁচে থাকার হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে দুটি শিশু। তারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

রাবেয়া এবং রোকেয়া এই যমজ দুই বোন সংযুক্ত মাথা নিয়ে পাবনার চাটমোহরের স্কুল শিক্ষক দম্পতি রফিকুল ইসলাম ও তাসলিমা খাতুনের ঘরে জন্মগ্রহণ করে ২০১৬ সালের ১৬ জুলাই।

তথ্যসূত্র: একুশে টেলিভিশন

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx