The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

শর্টফিল্ম ‘নট আউট’ দিয়ে ঈশিতার অভিনয়ে ফেরা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এক বছরেরও বেশি সময় পর আবারও অভিনয়ে ফিরলেন রুমানা রশীদ ঈশিতা। শর্টফিল্ম ‘নট আউট’ দিয়েই ঈশিতা অভিনয়ে ফিরলেন।

শর্টফিল্ম ‘নট আউট’ দিয়ে ঈশিতার অভিনয়ে ফেরা 1

নাট্য নির্মাতা মিজানুর রহমান আরিয়ানের পরিচালনায় আগামী কোরবানী ঈদের জন্য নির্মিতব্য ২০ মিনিট দৈর্ঘ্যের একটি শর্টফিল্মে দেখা যাবে এই জনপ্রিয় অভিনেত্রীকে। ওই শর্টফিল্মটির গল্প লিখেছেন পরিচালক নিজেই।

‘নট আউট’ শিরোনামে এই শর্টফিল্মটির গল্প সম্পর্কে নির্মাতা জানিয়েছেন, একটি পরিবারের অপরাজিত যুদ্ধের গল্পই হলো নট আউট। এই শর্টফিল্মে পরিবারের বড় মেয়ে ‘তানিয়া’ চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাবে ঈশিতাকে।

কেনোই বা এই চরিত্রে ঈশিতাকে নিয়ে কাজ করা, এ সম্পর্কে আরিয়ান বলেন, ‘সত্যি বলতে কী, এই শর্টফিল্মটির গল্পতে আমি যখন তানিয়া চরিত্রটি নিয়ে ভাবেছি তখন ঈশিতা আপুর কথাই আমার ভাবনায় আসে। তিনি অভিনয় করলেই খুব ভালো হবে। অবশেষে তিনি সত্যিই অভিনয় করেছেন। নিঃসন্দেহে তিনি একজন গুণী অভিনেত্রী। এই শর্টফিল্মে তিনি তার চরিত্রে কেমন করেছেন তা দর্শকদের দেখার অনুরোধও রইলো।’

গত শনি এবং রবিবার দুদিন এই শর্টফিল্মের শুটিং হয়েছে রাজধানীর উত্তরাতে। অভিনয় সম্পর্কে ঈশিতা বলেন, ‘গল্প ও চরিত্র ভালো না হলে অর্থাৎ আমার ভালো না লাগলে আমি কখনই অভিনয় করি না। করোনার কারণে এর মধ্যে পরিবারের বাইরে কোথাও সাধারণত আমি বেরই হই না। আরিয়ানের ‘বড় ছেলে’সহ আরও বেশকিছু নাটকও দেখেছি আমি। সে চেষ্টাও করে গল্পকে ভালোভাবে তুলে ধরার। তার নির্দেশনায় এটিই আমার প্রথম কাজ, সবকিছু মিলিয়ে খুবই ভালো লেগেছে আমার নট আউট কাজটি করে।’

‘নট আউট’ শর্টফিল্মে আরও অভিনয় করেছেন ওয়াহিদা মল্লিক জলি, খায়রুল বাশার, ফখরুল বাশার মাসুম।

উল্লেখ্য, ঈশিতাকে গত বছর সর্বশেষ আশফাক নিপুণের ‘ইতি মা’ ও মাহমুদুর রহমান হিমির ‘কেন’ নাটকে অভিনয় করতে দেখা যায়।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...