The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এ বছর শেষের দিকে মুক্তিপেতে পারে ‘রিক্সা গার্ল’ [ট্রেলার]

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বাংলাদেশ-আমেরিকার যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এবং অমিতাভ রেজা পরিচালিত পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘রিক্সা গার্ল’ এ বছরের শেষের দিকে মুক্তি পেতে পারে। ইতিমধ্যেই প্রকাশ পেয়েছে ছবিটির ট্রেলার।

এ বছর শেষের দিকে মুক্তিপেতে পারে ‘রিক্সা গার্ল’ [ট্রেলার] 1

‘আয়নাবজি’ নির্মাণ করেই হইচই ফেলে দেন নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী। তারপর কেটে গেছে প্রায় ৫ বছর। এবার আসছেন তার দ্বিতীয় পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘রিক্সা গার্ল’।

গত সপ্তাহে ‘রিক্সা গার্ল’ এর অফিশিয়াল ওয়েব সাইট এবং সোশাল মিডিয়ায় ট্রেলার প্রকাশিত হয়েছে। সোয়া দুই মিনিটের ট্রেলারটিতে দেখা গেছে দারুণ এক গল্পের আভাস। সেই সঙ্গে চমৎকার দৃশ্য, রং মুগ্ধ করবে যে কোনো সিনেমাপ্রেমীকেই।

শিল্পীমনা নারী নাঈমার গল্প নিয়ে তৈরি করা হয়েছে ‘রিক্সা গার্ল’। অন্তত ট্রেলারে এমনই ইঙ্গিত রয়েছে। সোয়া ২ মিনিটের ট্রেলারে দেখা যায়, নাঈমার কাছে ছবি আঁকা ভীষণ পছন্দের একটি বিষয। তবে দরিদ্র সংসারে একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি তার বাবা হঠাৎ একদিন অসুস্থ হয়ে পড়লে সবকিছুই একেবারে পাল্টে যায়। যেহেতু ছবি এঁকে পয়সা পাওয়া যায় না, তাই বাধ্য হয়েই সেই নাঈমা শেষ পর্যন্ত রাস্তায় রিক্সা নিয়ে বের হন। যে কারণে তাকে সম্মুখিন হতে হয় নানা জটিলতার।

এই ছবিতে মূল চরিত্র নাঈমার ভূমিকাতে অভিনয় করেছেন নভেরা রহমান। পুরো ট্রেলারজুড়ে উজ্জ্বল উপস্থিতিও রয়েছে তার। সেই সঙ্গে তার মায়ের চরিত্রে দেখা গেছে মোমেনা চৌধুরী এবং বাবার চরিত্রে নরেশ ভুঁইয়া। এছাড়াও এক ঝলকে স্বভূমিকায় দেখা পাওয়া যায় চিত্রনায়ক সিয়ামের।

ইংরেজি ভাষায় ডাবিংকৃত ট্রেলারটি সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন আমেরিকান প্রযোজক এরিক জে এডামস। তিনিই ‘রিক্সা গার্ল’ এরও প্রযোজক। ট্রেলারটি শেয়ার করে তিনি জানিয়েছেন যে, এটিই আমেরিকা এবং বাংলাদেশের প্রথম যৌথ প্রযোজনায় কোনো পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। যা এ বছরের শরতেই দেখতে পাবেন দর্শক।

দেখুন ভিডিওটি

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...