The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এই ব্যক্তি হার্ট ছাড়াই বেঁচে ছিলেন ৫৫৫ দিন!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ হৃৎপিণ্ড ছাড়া কী বেঁচে থাকা যায়? স্বাভাবিক দৃষ্টিকোণ থেকে এর উত্তর ‘না’ হলেও এই অসম্ভবকে সম্ভব করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এক যুবক। ২৫ বছর পূর্ণ হওয়ার আগেই হৃৎপিণ্ড ছাড়াই এক বছরেরও বেশ সময় (৫৫৫ দিন) বেঁচে থেকে বিশ্বকে চমকে দিয়েছেন।

এই ব্যক্তি হার্ট ছাড়াই বেঁচে ছিলেন ৫৫৫ দিন! 1

স্টান লারকিন নামে ওই যুবকের বেঁচে থাকার গল্প চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের কাছে অনুপ্রেরণা। এমনকি এই সময় বন্ধুদের সঙ্গে হালকা খেলাধূলাও করতে পেরেছেন ওই যুবক!

২০১৬ সালের কথা। ২৫ বছর বয়সে নতুন হার্ট পান স্টান লারকিন। তবে তার আগে দাতা পাওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি পিঠে বহন করেছেন সিন্কআরকাডিয়া ডিভাইস নামে ছোট একটি যন্ত্র। কৃত্রিম হার্টের মতো কাজ করা এই ডিভাইসটি ৫৫৫ দিন পিঠে বহন করেন তিনি।

দুই পাশের হার্ট ফেইল করার পর ও হার্ট সাপোর্টকারী সাধারণ যন্ত্রগুলো যখন রোগীকে বাঁচাতে সক্ষম হয় না, ঠিক তখনই অস্থায়ী হার্ট হিসেবে সিন্কআরকাডিয়া ডিভাইস ব্যবহার হয়ে থাকে। স্টান লারকিন হাসপাতাল ছেড়ে দিয়ে ১৩.৫ পাউন্ড ওজনের বহনযোগ্য ডিভাইসটি নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।

২০১৬ সালে ইউনিভার্সিটি অব মিশিগানের ফ্রাঙ্কনেল কার্ডিওভাসকুলার সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে স্টান লারকিন বলেন যে, ‘এটা (সিন্কআরকাডিয়া ডিভাইস) আমার জীবন ফিরিয়ে দিয়েছে এবং আমাকে এখনকার মতো স্বাস্থ্যবানও রেখেছে।’

হার্টের সমস্যায় থাকা পরিবারের একমাত্র সদস্য নন স্টান লারকিন। তার বড় ভাই ডোমিনিকের কার্ডিওমিয়োপ্যাথি অসুখ ছিলো। এই অসুখে হার্টের পেশিগুলো শরীরে রক্ত পরিবহনে অক্ষম হয়ে যায় এবং তা থেকে হার্ট ফেলের মতো ঘটনাও ঘটতে পারে।

এদের দুই ভাইয়েরই সার্জারি করেন অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর জোনাথন থাফট। তিনি বলেছেন, ‘এদের দুই ভাইয়ের সঙ্গে যখন প্রথম আমার ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে দেখা হয়, তখন তারা খুবই অসুস্থ অবস্থায় ছিলো। আমরা তাদের হার্ট প্রতিস্থাপন করতে চাইছিলাম তবে দেখলাম যথেষ্ট পরিমাণ সময় পাওয়া যাবে না। তাদের কাঠামোর অনন্য অবস্থানের কারণে অন্য কোনও প্রযুক্তিতে কাজ চালানোর উপায়ও ছিলো না।’

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...