The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

যেসব স্বপ্ন দেখলে হতে পারে অর্থ লাভ!

স্বপ্ন সম্পর্কে একটি বিশ্লেষণ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মানুষ ঘুম আসলেই স্বপ্ন দেখেন। সেটিই স্বাভাবিক ঘটনা। তবে কিছু কিছু স্বপ্ন রয়েছে যেগুলো দেখলে আপনার ভালো হতে পারে বিশেষ করে অর্থ লাভ যোগ রয়েছে। আজ সেই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে।

যেসব স্বপ্ন দেখলে হতে পারে অর্থ লাভ! 1

অনেকেরই ঘুম কম হয়। আবার অনেকের ঘুমের কোনো সমস্যা থাকে না। একবার বালিশে মাথা দিলেই কেল্লাফতে। তখন গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন হয়ে পড়েন, কারও আবার ঘুম এতোটাই পাতলা যে, সামান্য শব্দেই ঘুম ভেঙে যায়। তবে যখন যেমন ঘুমই হোক না কেনো তাতে স্বপ্ন থাকবেই। তবে কোনও কোনও স্বপ্ন মনে থেকে যায়, কোনওটা আবার বিস্মৃতির অতলে তলিয়েও যায়। তবে প্রত্যেক স্বপ্নের কিছু না কিছু অর্থ রয়েছে, এমনই দাবি করে থাকেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, কিছু স্বপ্ন যেমন খারাপ সময়ের ইঙ্গিত করে, আবার কিছু স্বপ্ন এমনও হয় যাতে সুসময়ের বার্তাও পাওয়া যায়।

ভারতের সংবাদ প্রতিদিনের একটি বিশ্লেষণ পাঠকদের সামনে আজ তুলে ধরা হলো:

# ফলের রাজা হিসেবে খ্যাত আম স্বপ্নে দেখা খুবই শুভ লক্ষণ। বলা হয়ে থাকে যে, এতে নাকি অর্থ লাভ হয়। আবার সোনা বা হীরের গয়না পাওয়ার সম্ভাবনাও নাকি থাকে।

# আপনি যদি কখনও এমন স্বপ্ন দেখেন যে, আপনি ক্রমাগত গাছের উপরের দিকেই উঠছেন। তার মানে হলো আপনার জীবনে সাফল্য আসতে চলেছে। সেটি সাংসারিক ক্ষেত্রেও হতে পারে, আবার হতে পারে পেশাগত ক্ষেত্রেও।

# বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, স্বপ্নে মৌমাছি বা মৌচাক দেখা খুবই ভালো। তার অর্থ হলো আপনার জীবন মধুর হতে চলেছে। সেটি আর্থিক দিক থেকেও হতে পারে, আবার ভালাবাসার মানুষের আগমনও ঘটতে পারে।

# বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, স্বপ্নে টিয়া পাখি দেখলে আপনি ধনী হতে চলেছেন। সুখ জাতীয় পাখি খুবই শুভ বলে মনে করা হয়।

# স্বপ্নে পাহাড়ের শিখরে উঠছেন অর্থ হলো আপনি সমস্ত বাধা বিপত্তি পেরিয়ে সাফল্যের শিখরে পৌঁছাতে চলেছেন।

# বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, ফল ভরতি গাছ দেখলেও আপনার সংসারের শ্রী বৃদ্ধি পেতে চলেছে বলে ধরে নিতে হবে।

# স্বপ্নে মরা পাখি দেখাও নাকি শুভ লক্ষণ। তাতে অর্থ এবং সাফল্য দুই-ই পাওয়া যায় বলে মনে করা হয় বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...