The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

শ্রীপর্ণার কণ্ঠে এবার অরিজিতের ‘কলঙ্ক’!

জনপ্রিয় হিন্দি সিনেমা ‘কলঙ্ক’র টাইটেল ট্র্যাক কণ্ঠে তুলে নিয়েছেন শ্রীপর্ণা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এবার দেড় মাসের ব্যবধানে দর্শক-শ্রোতাদের জন্য নতুন গান নিয়ে উপস্থিত হয়েছেন ভারত-বাংলাদেশের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী রায় শ্রীপর্ণা।

শ্রীপর্ণার কণ্ঠে এবার অরিজিতের ‘কলঙ্ক’! 1

অবশ্য এই গানটি মৌলিক নয়, বরং জনপ্রিয় হিন্দি সিনেমা ‘কলঙ্ক’র টাইটেল ট্র্যাক কণ্ঠে তুলে নিয়েছেন শ্রীপর্ণা। ২৬ জুলাই বিকেলে কণ্ঠশিল্পীর নিজস্ব চ্যানেলে এই ‘কলঙ্ক’ গানটি প্রকাশ পেয়েছে। চলতি বছরের ১৬ জুন ‘জান নিসার’ শিরোনামে রায় শ্রীপর্ণার অন্য একটি গান ইউটিউবে বেশ সাড়া ফেলে। সেই জনপ্রিয়তার রেষ কাটতে না কাটতেই ‘কলঙ্ক’ নিয়ে এলেন এই জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী।

জানা গেছে, এই ‘কলঙ্ক’ গানটির সংগীতায়োজন করেছেন পার্শ্বিক ঘোষ। অডিও মিক্সিং অ্যান্ড মাস্টারিং করেছে সালকা স্টুডিওর মিলটন দেব বর্মা, অডিও ডাবিং করেছেন স্টুডিও ইটার্নাল ড্রীমের শঙ্কর কালিতা।

অরিজিতের গানটি নিজ কণ্ঠে ধারণের কারণ উল্লেখ করে এই শিল্পী বলেছেন, ‘কলঙ্ক সিনেমাতে গানটি গেয়েছেন অরিজিৎ সিং, গানের কথা লিখেন অমিতাভ ভট্টাচার্য। এই গানটি পুরুষ কণ্ঠেই সাধারণত সবাই শুনে থাকেন। আমি চেষ্টা করেছি সর্বোচ্চ মনোযোগ সহকারে গানটি গাওয়ার। আশা করি আমার শ্রোতাদেরও ভালো লাগবে। শ্রোতাদের অনুপ্রেরণা নিয়েই আমি সামনে আরও এগিয়ে যেতে চাই।

উল্লেখ্য, রায় শ্রীপর্ণা ভারতের ক্লাসিক্যাল মিউজিকে স্বর্ণপদক প্রাপ্ত একজন শিল্পী। গত দুর্গা পূজায় তার ‘ঢাক বাজা, কাসর বাজা’ গানটি পূজার গান হিসেবে বেশ জনপ্রিয়তার শীর্ষে ছিল। এছাড়াও ২০১৯ সালে ‘দ্য লিজেন্ড’ গানটি প্রকাশ করেও তুমুল সাড়া পান এই কণ্ঠশিল্পী।

দেখুন ভিডিও গানটি

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...