The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

সৎ মায়ের নির্যাতনে ক্ষতবিক্ষত বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিশু রিদওয়ানের জন্য সবাই এগিয়ে আসুন!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক॥ শিশুটির নাম রিদওয়ান সে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী এবং কথা বলতে পারেনা, সৎ মায়ের নির্যাতনে তার শরীর ক্ষতবিক্ষত। কিছু মানুষের প্রচেষ্টায় রিদওয়ান এখন ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসারত কিন্তু সেখানেও তার বাবা ও সৎ মায়ের কালো থাবা তার পিছু ছাড়ছেনা।


RidwanWM

রিদওয়ানের মা সামছুন নাহার সোনিয়ার সাথে তার বাবা রফিকুল ইসলামের ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ার পর তার বাবা আবার বিয়ে করেন এবং ঘরে নিয়ে আসেন সৎ মা। জন্মদাত্রী মায়ের অবর্তমানে রিদওয়ানের জিবনে নেমে আসে সৎ মায়ের নির্দয় নির্যাতন। দৈনিক শারীরিক ও মানসিক ভাবে অসুস্থ রিদওয়ানকে করা হয় নির্যাতন বিভিন্ন ভাবে আঘাত এবং গরম ছ্যাঁক দেয়া হয় রিদওয়ানের শরীরে এমনকি পুরুষাঙ্গটি পর্যন্ত রেহাই পায়নি ওই নারীর নিষ্ঠুরতা থেকে।

বিগত ২৬ নভেম্বর ঘটনা জানতে পেরে রিদওয়ানের আসল মা এবং খালা সাথে করে কয়েকজন সহৃদয়বান স্থানীয় রেডক্রিসেন্ট সদস্যকে নিয়ে রিদওয়ানকে হায়দার ক্লিনিক মোড়, ডাক্তার পাড়া এলাকা থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন ফেনি সদর হাসপাতালে। রিদওয়ান বর্তমানে ফেনী সদর হাসপাতালের ১নং ওয়ার্ডের ১নং কেবিনে ভর্তি আছে। চিকিৎসক জানিয়েছেন রিদওয়ানের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কা জনক।

রিদওয়ানের জন্য তার আসল মা বাদি হয়ে মামলা করেছেন মামলার বিবরণঃ
থানা– ফেনী থানা
তারিখঃ ২৭/১১/২০১৩
মামলা নং– ৩৭

বর্তমানে রিদওয়ানের জন্য প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসা একই সাথে মামলা পরিচালনা করার জন্য আইনি সাহায্য। ঐ দিকে জানা গেছে রেদয়ানের বাবা রফিকুল ইসলাম সৎ মাকে সাথে নিয়ে রিদওয়ানের জীবন নাশ সহ কিডন্যাপ করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

দেশের সচেতন মানুষ যদি এই মুহূর্তে রিদওয়ানের পাশে এসে না দাড়ায় তবে রিদওয়ানের মত নিরীহ বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিশুরা কোথায় দাঁড়াবে? রিদওয়ানের বাবা এবং সৎ মা এর অপচেষ্টায় স্থানীয় প্রশাসন এগিয়ে আসছেনা। পাঠক আপনারা এগিয়ে আসুন। আপনি ফেনীর বাসিন্দা হলে সরাসরি চলে আসুন হাসপাতালের “১নং ওয়ার্ডের ১নং কেবিনে” অথবা এই বার্তা টি শেয়ার করুন সবার সাথে। দেখিয়ে দিন আমরা মানবতার পক্ষে আছি!

রিদওয়ানের বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানতে আমাদের সাথেই থাকুন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...