এরশাদ এখন ‘বিশ্ব হিরো’তে পরিণত হয়েছেন!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বিশ্ব হিরোতে পরিণত হয়েছেন। কারণ গত দুদিন শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্ববাসীর দৃষ্টিতে চলে এসেছেন এইচ. এম. এরশাদ।

Ershad001

দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি যখন ভয়াবহ, তখন এরশাদের ছোট্ট একটি ঘোষণা সমগ্র দেশ তথা বিশ্ববাসীর নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। গতকাল বিশ্বের নামি-দামি বেশ কিছু সংবাদ মাধ্যমের মধ্যমনিতে পরিণত হন তিনি। এর মূল কারণ হলো বিরোধী দল বিএনপিকে ছাড়া বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার যখন এরশাদকে সঙ্গে নিয়ে নির্বাচন করতে যাচ্ছে ঠিক সে সময় এরশাদের এমন একটি ঘোষণা বিশ্ববাসীকে রীতিমতো তাক লাগিয়ে দিয়েছেন।

প্রধান বিরোধী দল গত দুই বছর যাবত আন্দোলন করছে নির্দলীয় তত্ত্বাবধাক সরকারের অধিনে নির্বাচনের দাবিতে। তবে এই আন্দোলন আরও প্রকট আকার ধারণ করেছে গত এক মাসে। আওয়ামীলীগ সরকারের ৫ বছর পুরা হওয়ায় ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে সরকার যখন বিরোধী দলকে ছাড়ায় নির্বাচন করতে যাচ্ছে তখন দেশে শুরু হয়েছে আন্দোলন। এই আন্দোলনে দেশব্যাপী সৃষ্টি হয়েছে এক অচলাবস্থা।

cartoon-19-November-2013

এদিকে এরশাদের জাতীয় পার্টি যেহেতু আওয়ামীলীগের মহাজোট সরকারে ছিলেন সেহেতু তাকে নির্বাচনে টানার বিষয়টি অত্যন্ত স্বাভাবিক ঘটনা। কিন্তু সমস্যা অন্যখানে। এরশাদ সকালে এক কথা বলেন আর বিকেলে বলেন আরেক কথা। এমন দ্বৈত নীতির কারণে দেশজুড়েই এরশাদকে নিয়ে এক অনিশ্চয়তা থেকেই যায়। তবে যেহেতু এরশাদের জাতীয় পার্টির বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতা বর্তমান সর্বদলীয় সরকারে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে, সেহেতু সকলেই ধরে নিয়েছিলেন এরশাদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন এটা নিশ্চিত। কিন্তু হঠাৎ করেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করলেন এরশাদ। মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার পর ৩ ডিসেম্বর অকস্মাৎ নির্বাচন থেকে সরে আসার ঘোষণা দিলেন। এমন অবস্থায় শুধু দেশে নয় বিশ্বের অন্যান্য দেশেও ব্যাপক প্রভাব পড়ে বিষয়টি। কারণ একটিই তা হলো, এরশাদের দল জাতীয় পার্টি এখন দেশের তৃতীয় বৃহত্তম দল। সেই দলটি যখন নির্বাচন বয়কট করে তখন স্বভাবতই সবার দৃষ্টিতে আসে এই নির্বাচন হবে কিনা বা হলেও তা কতখানি গ্রহণযোগ্য হবে।

এমন এক পরিস্থিতিতে জাতীয় পার্টির এই চেয়ারম্যান গতকাল আবারও সংবাদ মাধ্যমকে জানান, এটিই তার শেষ কথা এবং তিনি সেই সঙ্গে পার্টির সদস্যদের মনোনয়ন প্রত্যাতার করতে বলেন। এমন এক পরিস্থিতিতে তাকে নিরাপত্তার জন্য নিয়োজিত র‌্যাব পুলিশের অতিরিক্ত বহর দেখে তিনি ঘাপড়ে যান। সাংবাদিকরা তাকে প্রশ্ন করনে তিনি কি গ্রেফতার হতে যাচ্ছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেছেন, ‘আমার কাছে পিস্তল আছে, যদি আমাকে গ্রেফতার করতে আসা হয় আমি আত্মহত্যা করবো।’

ershad1

বাচ্চা ছেলের মতো আত্মহত্যার হুমকি দিন আর যায়ই করুন না কেনো, এ কথা সবাইকে শিকার করতে হবে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ এখন ‘বিশ্ব হিরো’তে পরিণত হয়েছেন। এক সময় যারা তাঁকে ‘বিশ্ব বেহায়া’ বলে সম্বোধন করেছিলেন আজ তারাই (বিএনপিসহ) তাকে বাহবা দিচ্ছেন!

এদেশের রাজনৈতিক দলগুলো দেশের মানুষের কথা বলে, দেশের কথা বলে রাজনীতি করেন। কিন্তু বেশির ভাগ সময় তারা প্রকারন্তে দেশের মানুষের বিরুদ্ধেই চলে যান। যেমন এখন এক পক্ষ এক তরফা নির্বাচন করতে যাচ্ছেন আরেক পক্ষ জ্বালিয়ে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করে আন্দোলন সফল করছেন। আজ জনগণের একটাই প্রত্যাশা আর তা হলো, সকল দলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে একটি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন যাতে একটি স্থিতিশীল সরকার প্রতিষ্ঠা হয়ে দেশে শান্তি ফিরে আসে।

কার্টুন: (সৌজন্যে) সাদাত ও তন্ময়

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...