The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

সংযুক্ত আরব আমিরাত স্যাটেলাইট যন্ত্রাংশে মার্কিন গুপ্তযন্ত্র খুঁজে পেয়েছে

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ সংযুক্ত আরব আমিরাত ফরাসি একটি কোম্পানি থেকে ৯৩০ মিলিওন ডলার মূল্যের স্যাটেলাইট হার্ডয়ার আর প্রযুক্তি ক্রয়ের প্রক্রিয়ায় ছিল। কিন্তু স্যাটেলাইটে যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তুতকৃত যন্ত্রপাতিতে গুপ্ত প্রযুক্তি খুঁজে পাওয়ায় সংযুক্ত আরব আমিরাত কতৃপক্ষ চুক্তি বাতিলের চিন্তা ভাবনা করছে।


SPAC_Satellite_Pleiades-1B_Assembly_Toulouse_2012_D_Marques_EDS_lg

এই চুক্তিতে এয়ারবাস ডিফেন্স এন্ড স্পেস এর সাথে সাথে থালাস এলেনিয়া স্পেস সংপৃক্ত ছিল। স্যাটেলাইট গুলো যদিও ফ্রান্সের কোম্পানি প্রস্তুত করেছে তথাপি তাতে যুক্তরাষ্ট্রের যন্ত্রাংশ থাকায় অবাক হওয়ার কিছু নেই। কেননা দু’দেশের মধ্যে প্রযুক্তি হস্তান্তরের চুক্তি আছে।

স্যাটেলাইটে গুপ্ত প্রযুক্তি খুঁজে পাওয়ায় উদ্ভূত পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাচ্ছে। সমস্যা ইতিমধ্যেই সংযুক্ত আরব আমিরাত এর সেনাবাহিনীর ডেপুটি সুপ্রিম কমান্ডার শেখ মুহাম্মদ বিন জায়েদের নজরে আনা হয়েছে।

উক্ত স্যাটেলাইট গুলো দ্বারা আদান প্রদান কৃত তথ্যের সংবেদনশীলতার কথা চিন্তা করে কতৃপক্ষ চুক্তি পরিবর্তন বা বাতিলের চিন্তা ভাবনা করছে। যদি চুক্তি বাতিল হয়, তবে সংযুক্ত আরব আমিরাত রাশিয়া থেকে এই প্রযুক্তি ক্রয়ের করবে বলে ধারনা করা যায়। দেশটি এখনি রাশিয়ার স্পেস প্রযুক্তি ব্যাবহার করছে। একজন ফরাসি প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞ বলেছেন, “সংযুক্ত আরব আমিরাত পশ্চিমী ইউরোপীয় অস্ত্র ব্যবস্থায় একটি অতিরেক বৈশিষ্ট্য হিসাবে লাগানো GLONASS স্থান ভিত্তিক ন্যাভিগেশন সিস্টেম দিয়ে রাশিয়ান প্রযুক্তির নিকটস্থ হয়েছে”।

মজার বিষয়, চুক্তি বলবত থাকলে ২০১৮ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাত ফ্রান্স থেকে Pleiades টাইপ স্যাটেলাইট গ্রহন করবে। ফরাসি প্রতিরক্ষা বিশ্লেষকরা উপগ্রহে সম্ভাব্য গুপ্ত যন্ত্র দেশের সার্বভৌমত্বের আপোষ হতে পারে বলে সরকারকে সাবধান করেছেন।

সূত্রঃ দি টেক জার্নাল

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...