The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

দেখেনিন পৃথিবীর সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ রাস্তাসমূহ

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ কোন কোন ভ্রমনার্থীরা মনে করেন ভ্রমনপিপাসু মানুষের কাছে রাস্তা হলো একটি অন্যতম আকর্ষণীয় বিষয়। কেননা তারা পথিকের মতো পথের মাঝেই শান্তি খুজে ফিরেন। আবার অন্যরা বলেন রাস্তার ক্ষেত্রে কখনো কখনো ঝুঁকিও থেকে থাকে। কিছু কিছু রাস্তা হয়ে থাকে বিপদসংকুল।


IMG_4516

আজ আমরা দি ঢাকা টাইমসের পাঠকদের জন্য এমনি কিছু সংকটময় রাস্তার কথা তুলে ধরবো যার প্রতিটি পদক্ষেপে ভ্রমনার্থীদের জন্য রয়েছে ঝুঁকি।

১. মাদাগাস্কারের ন্যাশনাল রোড

মাদাগাস্কারের উত্তরাঞ্চলের শহর মারনেস্ত্রা থেকে দক্ষিনাঞ্চলের সানেরিও আভিও পর্যন্ত বিস্তৃত এই রোড। আফ্রিকার বিভিন্ন জনপদের মানুষ মজা করে এই রোড সম্পর্কে বলে, এই রোডে গাড়ি চালিয়ে যেতে হলে আপনার লাগবে একজন ড্রাইভার আর একজন মেকানিক। আফ্রিকার একটি ট্রাভেল এজেন্সির মালিক অ্যান্ডারস আলিম বলেন, আমার মতে পৃথিবীর সবচেয়ে খারাপ রোড হলো এটি। পুরোপুরি পাথরে নির্মিত এই রোডটির দৈর্ঘ্য মাত্র ২০০ কিলোমিটার কিন্তু গাড়ি চালিয়ে এই রোড অতিক্রম করতে সময় লাগে প্রায় ২৪ ঘন্টা। সবচেয়ে মারাত্মক সমস্যা হয়ে দাঁড়ায় বর্ষার সময়ে অর্থাৎ ডিসেম্বর থেকে মার্চ মাসে।

২. রোতাং পাস, ভারত

Rohtang-1

রোতাং শব্দের অর্থ হলো ‘মৃতদেহের স্তূপ’ যা ভারতের রোতাং পাস রোডের সাথে একেবারে মিলে যায়। হিমালয়ের পশ্চিমাঞ্চলের প্রায় ৪০০০ মিটার উচ্চতায় এই রোডটি পুরোপুরি কর্দমাক্ত। এছাড়াও এই অঞ্চলের আবহাওয়া পুরোপুরি অনির্দিষ্ট। কখনো তুষারপাত শুরু হয় আবার কখনো বলতে না বলতেই হিমবাহ শুরু হয়ে যায়। প্রতিবছর রাস্তা মেরামতকারীরা জিপিএস ব্যবহার করে রাস্তাটি খুজে বের করে তারপর এর মেরামতের কাজ করে থাকে। পর্যটকরা এই রাস্তাটি সম্পর্কে বলেন, মে থেকে নভেম্বর পর্যন্ত এই রাস্তাটি খোলা থাকে ভ্রমনার্থীদের জন্য কেননা এর বাইরের সময়টুকু পুরো রাস্তাই বরফে ঢাকা থাকে।

৩. ট্রান্সফেগারাস রোড, রোমানিয়া

transfagarasan-6

বিবিসি একটি জরিপ অনুসারে এই রাস্তাটিকে বলা হয় বিশ্বের সেরা রোড। এর চারপাশের পাহাড়ের অতিকায় মূর্তিমান চিত্র আর রাস্তার আঁকাবাঁকা অবস্থা একে এনে দিয়েছে এই উপাধি। এই রোডটি নির্মাণ করা হয়েছিল মিলিটারী কাজের ব্যবহারের জন্য ১৯৭০ সালে। এটি রোমানিয়ার সবচেয়ে উচ্চতম রোড হিসেবেও পরিচিত। উত্তরাঞ্চলের শহরের সাথে দক্ষিণাঞ্চলের শহর কার্পেথিয়ানের সাথে এটি সংযোগ স্থাপন করেছে। এই পুরো রাস্তাটির মোট দৈর্ঘ্য প্রায় ২৩০ কিলোমিটার।

৪. আইয়ার হাইওয়ে, অস্ট্রেলিয়া

Old eyer4

কার্ল লোগান পার্থ শহরের একজন পুলিশ অফিসার। তিনি ভ্রমনার্থিদের ৬৮৪ মাইল দীর্ঘ এই রোড সম্পর্কে সতর্ক করে দেন এই বলে যে দীর্ঘতম এই রোড দিয়ে গাড়ি চালাতে গিয়ে আপনি হয়তো বিরক্তিতে ভুগতে পারেন। এই রোডটি হয়তো বিরক্তিকর এর দীর্ঘসুত্রিতার জন্য কিন্তু এটি সবচেয়ে মজাদার একটি রোড ভ্রমনপিপাসুদের জন্য কেননা এই রোড দিয়ে গাড়ি চালাতে গিয়ে তারা দেখা পান বিভিন্ন প্রানীর তার মধ্যে রয়েছে ক্যাঙ্গারু, এমু এবং মাঝে মাঝে উট। বন্য এই সকল প্রাণীরা এই রাস্তায় চলা বিভিন্ন গাড়িদের আক্রমণ করে থাকে বিশেষকরে রাতের সময় গাড়ির হেডলাইটের আলোয় তারা ভড়কে যায়।

৫. পৃথিব রোড, নেপাল

IMG_2138

১৭৪ কিলোমিটার দীর্ঘ কাঠমুন্ডু থেকে পোখারা পর্যন্ত বিস্তৃত এই রোড। এই রোডটি পর্যটকদের কাছে পরিচিত কেননা এই রোড ধরেই তারা পৌছে যায় অন্নপুর্ণা পর্বতে। বিস্তৃত এই রোডের চারপাশে রয়েছে নান্দনিক দৃশ্যাবলী যা পর্যটকদের মোহনীয় করে রাখে। এর পাহাড়ি বাঁক আর পাথুরে রাস্তার কারণে একে বিবেচনা করা হয় বিশ্বের অন্যতম ঝুঁকিপূর্ণ রাস্তা হিসেবে।

এছাড়াও আরো রয়েছে রাশিয়ার কইলিংমা হাইওয়ে, চীনের গংলিয়ান টানেল রোড সহ আরো অনেকগুলো রাস্তা যা সত্যি একি সাথে রোমাঞ্চকর আর বিপদসংকুল।

তথ্যসূত্রঃ বিবিসি

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...