The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এক্সক্লুসিভ: স্বামীর কারণেই কি ন্যান্সি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলো?

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ গত পরশু হঠাৎ করেই নেত্রকোণায় থাকা অবস্থায় ঘুমের ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ন্যান্সি। তাকে প্রথমে ময়মনসিংহ ও পরে ঢাকা মেডিক্যাল এবং সর্বশেষ ল্যাব এইডে ভর্তি করা হয়েছে। কি কারণে এমন কাজ করতে গেলেন তিনি? তবে কি স্বামীর কারণেই ন্যান্সি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলো? এ প্রশ্নের জবাব খুঁজতেই এই এক্সক্লুসিভ প্রতিবেদন।

attempted suicide-01

গত দুদিন ধরে পুরো মিডিয়া এবং ন্যান্সি ভক্তদের মাঝে একটিই আলোচনার বিষয় ‘কেন ন্যান্সির এই আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন?’।

এ বিষয়ে ন্যান্সির বেশ কয়েকজন ঘনিষ্ঠজন, ন্যান্সির নেত্রকোণার বাসার পাশের প্রতিবেশী এবং নানা জনের সঙ্গে কথা বলে এই প্রশ্নের জবাব খোঁজার চেষ্টা করা হয়েছে। সবাই প্রায় একই ধরনের কথা জানালেন। সবাই মনে করেন, ‘স্বামী নাজিমুজ্জামান জায়েদের কারণেই তিনি এ আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।’ প্রতিবেশীরা বলেছেন, ন্যান্সিকে যখন বাসা থেকে নেত্রকোনা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিলো, তখন ন্যান্সি তার স্বামীকে উদ্দেশ্য করে ‘গালাগালি’ করছিলেন। অবশ্য তখন তার স্বামী সেখানে উপস্থিত ছিলেন না।

attempted suicide

ঘটনাস্থলে উপস্থিত একজন সংবাদ মাধ্যমকে জানান, ন্যান্সি বারবার তখন বলছিলেন, ‘জায়েদ আমার জীবনটা নষ্টা করে দিয়েছে।’

বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদ মাধ্যম জানায়, গত প্রায় সপ্তাহখানেক ধরে ন্যান্সির মোবাইলটি বন্ধ ছিলো। হঠাৎ করেই তিনি সবার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। এসব কারণগুলো বিশ্লেষণ করে ধারণা করা হচ্ছে, স্বামীর সন্দেহপ্রবণতা, সংসারে অশান্তি এসব কারণেই ন্যান্সি এই আত্মহত্যার মতো এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

জানা যায়, বেশ কয়েকমাস ধরেিই গানের জন্য ঢাকায় বসবাস করছিলেন ন্যান্সি। ঢাকায় তার সঙ্গে দুই মেয়ে রোদেলা আর নায়লাকে নিয়ে থাকতেন ন্যান্সি। দুই মেয়েকে নিয়ে ন্যান্সি মাঝে মধ্যে স্বামীর কাছেও যেতেন। কিন্তু স্বামী জায়েদ সেটি মেনে নিতে পারছিলেন না। অপরদিকে ন্যান্সিও গানের জগত থেকে কোনো ছাড় দিতে নারাজ। এসব বিষয় নিয়েই মূলত দুজনার মধ্যে চলছিলো দীর্ঘদিনের মানসিক দ্বন্দ্ব ও মন কষাকষি। তাছাড়া ন্যান্সির প্রতি সন্দেহও বাড়ছিলো জায়েদের। আর এসব কারণেই শুরু হয় অশান্তি।

সংসারের নানা অশান্তি থেকে দূরে থাকতে প্রথম স্বামী সৌরভকে ডির্ভোস দিয়ে জায়েদকে ২য় বার বিয়ে করেন এই কণ্ঠশিল্পী। কিন্তু সুখ মিলল না ন্যান্সির। আর সেসব চিন্তা-ভাবনা থেকেই আত্মহত্যা করার পথ বেছে নেন ন্যান্সি।

উল্লেখ্য, ১৬ আগস্ট দুপুরে ব্রোমাজিপাম গ্রুপের ৪০টি জিওনিল ট্যাবলেট এবং এর ঘণ্টাখানেক পর আরও ২০টি ল্যাক্সিল ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন নতুন প্রজন্মের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ন্যান্সি। বর্তমানে ঢাকার ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...